ইকোপার্কের খালের পাড়ে ৭টি হরিণের চামড়া ও মাংস
jugantor
ইকোপার্কের খালের পাড়ে ৭টি হরিণের চামড়া ও মাংস

  পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি  

১৫ নভেম্বর ২০২১, ১৫:৪৯:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ইকোপার্কের খালের পাড়ে ৭টি হরিণের চামড়া ও মাংস

বরগুনার পাথরঘাটা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় সাতটি হরিণের চামড়া ও মাংস উদ্ধার করা হয়েছে। বিষখালী নদীসংলগ্ন উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরলাঠিমারা এলাকা থেকে এসব উদ্ধার করেছে দক্ষিণ স্টেশন কোস্টগার্ড পাথরঘাটা।

স্টেশান কমান্ডার পাথরঘাটা লে. ফাহিম শাহরিয়ারের নেতৃত্বে রোববার রাত ১১টার দিকে এগুলো উদ্ধার করেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা।

এ বিষয়ে লে. ফাহিম শাহরিয়ার জানান, সুন্দরবন এলাকা থেকে হরিণ শিকারের সঙ্গে জড়িত চোরাকারবারিরা একটি বড় চালান নিয়ে উপকূলীয় এলাকায় প্রবেশ করতে যাচ্ছে— এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে পাথরঘাটা উপজেলার চরলাঠিমারা এলাকার হরিণঘাটা খালসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান নিয়ে অভিযান চালানো হয়।

পরে রাত ১১টার দিকে হরিণঘাটা ইকোপার্কের খালের পাড় থেকে সাতটি হরিণের কাঁচাচামড়া ও ১০ কেজি মাংস পরিত্যক্ত অবস্থায় জব্দ করা হয়।

কিন্তু কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারিরা পালিয়ে যায়। এ সময়ে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। জব্দকৃত হরিণের মাংস ও চমড়া পাথরঘাটা বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ইকোপার্কের খালের পাড়ে ৭টি হরিণের চামড়া ও মাংস

 পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি 
১৫ নভেম্বর ২০২১, ০৩:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইকোপার্কের খালের পাড়ে ৭টি হরিণের চামড়া ও মাংস
ছবি: যুগান্তর

বরগুনার পাথরঘাটা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় সাতটি হরিণের চামড়া ও মাংস উদ্ধার করা হয়েছে। বিষখালী নদীসংলগ্ন উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরলাঠিমারা এলাকা থেকে এসব উদ্ধার করেছে দক্ষিণ স্টেশন কোস্টগার্ড পাথরঘাটা।

স্টেশান কমান্ডার পাথরঘাটা লে. ফাহিম শাহরিয়ারের নেতৃত্বে রোববার রাত ১১টার দিকে এগুলো উদ্ধার করেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা।

এ বিষয়ে লে. ফাহিম শাহরিয়ার জানান, সুন্দরবন এলাকা থেকে হরিণ শিকারের সঙ্গে জড়িত চোরাকারবারিরা একটি বড় চালান নিয়ে উপকূলীয় এলাকায় প্রবেশ করতে যাচ্ছে— এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে পাথরঘাটা উপজেলার চরলাঠিমারা এলাকার হরিণঘাটা খালসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান নিয়ে অভিযান চালানো হয়।

পরে রাত ১১টার দিকে হরিণঘাটা ইকোপার্কের খালের পাড় থেকে সাতটি হরিণের কাঁচাচামড়া ও ১০ কেজি মাংস পরিত্যক্ত অবস্থায় জব্দ করা হয়।

কিন্তু কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারিরা পালিয়ে যায়। এ সময়ে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। জব্দকৃত হরিণের মাংস ও চমড়া পাথরঘাটা বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন