ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে প্রেম! ১২ লাখ টাকা খোয়াল দুই প্রবাসী
jugantor
ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে প্রেম! ১২ লাখ টাকা খোয়াল দুই প্রবাসী

  গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

১৫ নভেম্বর ২০২১, ২২:৪৬:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া আইডি খোলে সুন্দরী তরুণীদের দিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করে দুই প্রবাসীর কাছ থেকে ১২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে রুবেল মৃধা নামে জনৈক যুবকের বিরুদ্ধে।

রুবেলের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার দীঘা গ্রামে। সালিশে প্রতারণা করে টাকা আত্মসাতের সত্যতা প্রমাণ পাওয়া গেলেও রুবেল মৃধার বড় ভাই রাজারবাগ পুলিশ লাইনের কনস্টেবল রাসেল মৃধার দাপটে প্রতারিতরা সুবিচার পাচ্ছেন না।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের দীঘা গ্রামের রুহুল আমিন মৃধার ছেলে রুবেল মৃধা। সংসারের অভাব অনটন দূর করতে প্রায় দুই বছর আগে চাকরি নিয়ে সৌদি আরবে চলে যান। সেখানে মদিনা শহরে একটি কোম্পানিতে লেবার পদে কাজ করতেন তিনি।

কিছু দিন চাকরি করার পর প্রবাসী বাংলাদেশির সঙ্গে প্রতারণা করে মদিনা শহর ছেড়ে রিয়াদে পালিয়ে যায় রুবেল মৃধা। রিয়াদে গিয়ে পরিচয় হয় লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলার চরপাতা গ্রামের কামাল উদ্দিন লিটনের সঙ্গে। সেখানে এসে তার সঙ্গে গড়ে তোলেন সখ্যতা।

প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রুবেল মৃধা নিজে এবং ‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ (কানাডা প্রবাসী) ও ‘হঠাত দেখা, হঠাত দেখা’ নামে সুন্দরী তরুণীদের নামে দুইটি ভুয়া আইডি খোলেন। এসব আইডি থেকে কামাল উদ্দিন লিটনসহ রিয়াদে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক করেন রুবেল মৃধা।

‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’নামের আইডিটি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ছাত্রী লিখে তাতে বসবাস টঙ্গী এলাকায় উল্লেখ করা হয়।‘হঠাত দেখা,হঠাত দেখা’নামে অপর আইডি ময়মনসিংহের ফুলপুর হাই স্কুলের শিক্ষিকার ঠিকানা উল্লেখ করে জনৈক সুন্দরী তরুণীর ছবি ব্যবহার করে সে।

সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিদের টার্গেট করে রুবেল মৃধা ওইসব আইডি থেকে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তোলে। বন্ধুত্বের পর তাদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা।

প্রবাসী কামাল উদ্দিন লিটন অভিযোগ করে বলেন,‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ নামে ফেসবুক আইডি ব্যবহারকারীকে (রুবেল মৃধার পরিচালিত ফেসবুক আইডি) তার চাচাত বোন পরিচয়ে দিয়ে আমার সঙ্গে বন্ধুত্বে সম্পর্ক করে দেন রুবেল মৃধা। বন্ধুত্ব থেকে ওই আইডি থেকে তরুণীকে দিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এবং আমাকে কানাডা নিয়ে যাওয়ার কথা বলে প্রতারণা করে আট লাখ টাকা হাতিয়ে কৌশলে দেশে চলে যায় সে।

একই অভিযোগ সৌদি প্রবাসী কুমিল্লা জেলা শহরের জাহাঙ্গীর আলমের। তিনি বলেন, রুবেল মৃধা ‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ ও ‘হঠাত দেখা, হঠাত দেখা’ নামে দুইটি ভুয়া ফেসবুক আইডি থেকে আমার সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক করেন। বন্ধুত্বের পর প্রেমের ফাঁদে ফেলে আমার কাছ থেকে চার লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় রুবেল মৃধা। টাকা হাতিয়ে নেয়ার সময় দেশের গ্রামীণফোনের একটি বিকাশ নাম্বার ব্যবহার করা হয়। বর্তমানে ওই নম্বরটি রুবেল মৃধার বোন ব্যবহার করছেন।

ফুলপুর উপজেলার বওলা ইউনিয়নের সুতারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এএসএম সাজ্জাদ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, রুবেল মৃধা প্রকৃত পক্ষে একজন প্রতারক।‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ ও ‘হঠাত দেখা,হঠাত দেখা’ নামে দুইটি ভুয়া ফেসবুক আইডি সুন্দরী তরুণীদের দিয়ে পরিচালনা করত রুবেল মৃধা। ওইসব ভুয়া ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে আনে সে।

টাকা উদ্ধারের জন্য গত ২৭ অক্টোবর পৌর শহরের চাঁদনী মোড় পুরাতন হাসপাতাল কক্ষে সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশে রুবেল মৃধা প্রতারণা করে টাকা আত্মসাতের ঘটনাটি উপস্থিত সবার কাছে প্রমাণিত হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে প্রতারণার বিষয়টি অস্বীকার করেন রুবেল মৃধা। তবে কামাল উদ্দিন লিটনের সঙ্গে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছেন তিনি।

ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে প্রেম! ১২ লাখ টাকা খোয়াল দুই প্রবাসী

 গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
১৫ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া আইডি খোলে সুন্দরী তরুণীদের দিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করে দুই প্রবাসীর কাছ থেকে ১২ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে রুবেল মৃধা নামে জনৈক যুবকের বিরুদ্ধে।

রুবেলের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার দীঘা গ্রামে। সালিশে প্রতারণা করে টাকা আত্মসাতের সত্যতা প্রমাণ পাওয়া গেলেও রুবেল মৃধার বড় ভাই রাজারবাগ পুলিশ লাইনের কনস্টেবল রাসেল মৃধার দাপটে প্রতারিতরা সুবিচার পাচ্ছেন না।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের দীঘা গ্রামের রুহুল আমিন মৃধার ছেলে রুবেল মৃধা। সংসারের অভাব অনটন দূর করতে প্রায় দুই বছর আগে চাকরি নিয়ে সৌদি আরবে চলে যান। সেখানে মদিনা শহরে একটি কোম্পানিতে লেবার পদে কাজ করতেন তিনি।

কিছু দিন চাকরি করার পর প্রবাসী বাংলাদেশির সঙ্গে প্রতারণা করে মদিনা শহর ছেড়ে রিয়াদে পালিয়ে যায় রুবেল মৃধা। রিয়াদে গিয়ে পরিচয় হয় লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলার চরপাতা গ্রামের কামাল উদ্দিন লিটনের সঙ্গে। সেখানে এসে তার সঙ্গে গড়ে তোলেন সখ্যতা।

প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রুবেল মৃধা নিজে এবং ‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ (কানাডা প্রবাসী) ও ‘হঠাত দেখা, হঠাত দেখা’ নামে সুন্দরী তরুণীদের নামে দুইটি ভুয়া আইডি খোলেন। এসব আইডি থেকে কামাল উদ্দিন লিটনসহ রিয়াদে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক করেন রুবেল মৃধা।

‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’নামের আইডিটি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ছাত্রী লিখে তাতে বসবাস টঙ্গী এলাকায় উল্লেখ করা হয়।‘হঠাত দেখা,হঠাত দেখা’নামে অপর আইডি ময়মনসিংহের ফুলপুর হাই স্কুলের শিক্ষিকার ঠিকানা উল্লেখ করে জনৈক সুন্দরী তরুণীর ছবি ব্যবহার করে সে।

সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিদের টার্গেট করে রুবেল মৃধা ওইসব আইডি থেকে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তোলে। বন্ধুত্বের পর তাদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা।

প্রবাসী কামাল উদ্দিন লিটন অভিযোগ করে বলেন,‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ নামে ফেসবুক আইডি ব্যবহারকারীকে (রুবেল মৃধার পরিচালিত ফেসবুক আইডি) তার চাচাত বোন পরিচয়ে দিয়ে আমার সঙ্গে বন্ধুত্বে সম্পর্ক করে দেন রুবেল মৃধা। বন্ধুত্ব থেকে ওই আইডি থেকে তরুণীকে দিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে এবং আমাকে কানাডা নিয়ে যাওয়ার কথা বলে প্রতারণা করে আট লাখ টাকা হাতিয়ে কৌশলে দেশে চলে যায় সে। 

একই অভিযোগ সৌদি প্রবাসী কুমিল্লা জেলা শহরের জাহাঙ্গীর আলমের। তিনি বলেন, রুবেল মৃধা ‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ ও ‘হঠাত দেখা, হঠাত দেখা’ নামে দুইটি ভুয়া ফেসবুক আইডি থেকে আমার সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক করেন। বন্ধুত্বের পর প্রেমের ফাঁদে ফেলে আমার কাছ থেকে চার লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় রুবেল মৃধা। টাকা হাতিয়ে নেয়ার সময় দেশের গ্রামীণফোনের একটি বিকাশ নাম্বার ব্যবহার করা হয়। বর্তমানে ওই নম্বরটি রুবেল মৃধার বোন ব্যবহার করছেন।

ফুলপুর উপজেলার বওলা ইউনিয়নের সুতারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এএসএম সাজ্জাদ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, রুবেল মৃধা প্রকৃত পক্ষে একজন প্রতারক।‘ডাক্তার সাদিয়া আক্তার’ ও ‘হঠাত দেখা,হঠাত দেখা’ নামে দুইটি ভুয়া ফেসবুক আইডি সুন্দরী তরুণীদের দিয়ে পরিচালনা করত রুবেল মৃধা। ওইসব ভুয়া ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে আনে সে।

টাকা উদ্ধারের জন্য গত ২৭ অক্টোবর পৌর শহরের চাঁদনী মোড় পুরাতন হাসপাতাল কক্ষে সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশে রুবেল মৃধা প্রতারণা করে টাকা আত্মসাতের ঘটনাটি উপস্থিত সবার কাছে প্রমাণিত হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে প্রতারণার বিষয়টি অস্বীকার করেন রুবেল মৃধা। তবে কামাল উদ্দিন লিটনের সঙ্গে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন