যুবলীগ নেতা শুভ হত্যার প্রধান আসামি ৩ দিনের রিমান্ডে
jugantor
যুবলীগ নেতা শুভ হত্যার প্রধান আসামি ৩ দিনের রিমান্ডে

  পিরোজপুর প্রতিনিধি  

১৯ নভেম্বর ২০২১, ১৮:৫৬:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বর

পিরোজপুর পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মাহবুব শুভকে (৩৫) গুলি করে হত্যা ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত জেলা আওয়ামী লীগের সদ্য বহিষ্কৃত ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বরকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন পিরোজপুরের একটি আদালত। বৃহস্পতিবার রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করা হয়। আগামী রোববার থেকে মঙ্গলবার নাছির উদ্দিনকে পুলিশ হেফাজতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. আলী রেজা।

গত ৭ নভেম্বর ফয়সাল মাহবুব শুভ দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সদর উপজেলার শংকরপাশা ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনের নৌকা প্রতীকের প্রচারণায় যান। সেখান থেকে ফেরার পথে মল্লিক বাড়ি বাসস্ট্যান্ডে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বরের সমর্থকদের সঙ্গে নৌকার সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় নাছির উদ্দিন মাতুব্বরের সমর্থকদের ছোড়া গুলিতে গুলিবিদ্ধ হন শুভ। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরবর্তীতে তাকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখানেই শুভ গত সোমবার রাতে মারা যান ।

শুভ গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় ওই রাতেই পুলিশ বিদ্রোহী প্রার্থী নাছির উদ্দিন মাতুব্বরসহ ১০ জনকে আটক করে। ৮ নভেম্বর নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. তোফাজ্জেল হোসেন মল্লিক স্বপনের ভাই মো. মোজাম্মেল হোসেন মল্লিক তপন বাদী হয়ে নাছিরসহ ৩৬ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও ১২০-১৩০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে পিরোজপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয় জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক নাছির উদ্দিন মাতুব্বরকে। পরে তাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়।

যুবলীগ নেতা শুভ হত্যার প্রধান আসামি ৩ দিনের রিমান্ডে

 পিরোজপুর প্রতিনিধি 
১৯ নভেম্বর ২০২১, ০৬:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বর
মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বর

পিরোজপুর পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মাহবুব শুভকে (৩৫) গুলি করে হত্যা ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত জেলা আওয়ামী লীগের সদ্য বহিষ্কৃত ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বরকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন পিরোজপুরের একটি আদালত। বৃহস্পতিবার রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করা হয়। আগামী রোববার থেকে মঙ্গলবার নাছির উদ্দিনকে পুলিশ হেফাজতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. আলী রেজা। 

গত ৭ নভেম্বর ফয়সাল মাহবুব শুভ দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সদর উপজেলার শংকরপাশা ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনের নৌকা প্রতীকের প্রচারণায় যান। সেখান থেকে ফেরার পথে মল্লিক বাড়ি বাসস্ট্যান্ডে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. নাছির উদ্দিন মাতুব্বরের সমর্থকদের সঙ্গে নৌকার সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় নাছির উদ্দিন মাতুব্বরের সমর্থকদের ছোড়া গুলিতে গুলিবিদ্ধ হন শুভ। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরবর্তীতে তাকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখানেই শুভ গত সোমবার রাতে মারা যান । 

শুভ গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় ওই রাতেই পুলিশ বিদ্রোহী প্রার্থী নাছির উদ্দিন মাতুব্বরসহ ১০ জনকে আটক করে। ৮ নভেম্বর নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. তোফাজ্জেল হোসেন মল্লিক স্বপনের ভাই মো. মোজাম্মেল হোসেন মল্লিক তপন বাদী হয়ে নাছিরসহ ৩৬ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও ১২০-১৩০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে পিরোজপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয় জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক নাছির উদ্দিন মাতুব্বরকে। পরে তাকে জেলা আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন