নির্বাচনী সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় টানটান উত্তেজনা
jugantor
নির্বাচনী সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় টানটান উত্তেজনা

  ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ২০:০৮:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ২৮ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে মো. বাবলু নামে একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ২ জন।

এ ঘটনায় শত শত লোকজন বুধবার সকালে ফুলবাড়ী নাগেশ্বরী সড়কের বটতলায় অবরোধ সৃষ্টি করে হত্যাকারীর শাস্তি দাবি জানিয়েছেন।

অন্যদিকে কাশিপুরে নৌকা প্রতীককে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সব মিলিয়ে উপজেলায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে টহল অব্যাহত রেখেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ভাঙ্গামোর ইউনিয়নের ৩নং উত্তর রাবাইতারী মৌজার প্রতিদ্বন্দ্বী সদস্য প্রার্থী চাচা সাইফুল (টিউবওয়েল) ও ভাতিজা শাহজামাল আলী (তালা) নির্বাচনী প্রচারণা শেষে স্থানীয় বটতলা বাজারে আসেন। এ মৌজায় এ সময় কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে দুই সদস্য প্রার্থী চাচা সাইফুল ইসলাম ও ভাতিজা শাহজামালসহ তাদের সমর্থকেরা অপর সদস্য প্রার্থী মুকুলের (বৈদ্যুতিক পাখা) সমর্থক মো. বাবলুকে মারপিট করেন। তিনি মারাত্মক আহত হয়ে মঙ্গলবার সকালে নাগেশ্বরী শাফলা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। বিকালে তিনি বাড়িতে আসলে সন্ধ্যায় মৃত্যু বরণ করেন।

বিষয়টি জানাজানি হলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমল চাকমা, সহকারী পুলিশ সুপার (নাগেশ্বরী সার্কেল) সুমন রেজা, ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সারওয়ার পারভেজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নিহতের পরিবারের সঙ্গে আলাপ আলোচনা শেষে লাশ দাফনের অনুমতি দিলে বুধবার সকালে স্থানীয় শত শত নারী পুরুষ বাবলু হত্যার বিচার দাবি করে ফুলবাড়ী নাগেশ্বরী সড়ক দুই ঘণ্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। এ সময় যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমল চাকমা, সহকারী পুলিশ সুপার (নাগেশ্বরী সার্কেল) সুমন রেজা, ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সারওয়ার পারভেজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সড়ক আবরোধকারী ও নিহতের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠায়।

নিহতের স্ত্রী মমতা ও স্কুলপড়ুয়া ছেলে ১০ শ্রেণির ছাত্র মাসুম বিল্যাহ কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, আমরা প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়েছি। সুষ্ঠু তদন্তসাপেক্ষে বিচারের দাবি জানাই।

বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীকের সদস্য প্রার্থী মুকুল মিয়া মঙ্গলবার সকালে ফুলবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি বলেন, আমি এ হত্যাকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাই এবং দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

অন্যদিকে কাশিপুর ইউনিয়নের মধ্য-কাশিপুর ও চিলাখানা টেলিটারী এলাকায় নৌকা প্রতীক মঙ্গলবার গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা পুড়িয়ে দিয়েছে। বর্তমানে ওই এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। নৌকা মার্কার প্রার্থী রেয়াজুল আলম ফুলবাড়ী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার (নাগেশ্বরী সার্কেল) সুমন রেজা, আমরা সব বিষয়ে খোঁজখবর রাখছি। তাৎক্ষণিকভাবেও ব্যবস্থা নিচ্ছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

ফুলবাড়ীর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমল চাকমা যুগান্তরকে জানান, আমরা খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এলাকা পরিদর্শন করছি। অভিযোগ হয়েছে। পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নির্বাচনী সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় টানটান উত্তেজনা

 ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৮:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ২৮ নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে মো. বাবলু নামে একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ২ জন।

এ ঘটনায় শত শত লোকজন বুধবার সকালে ফুলবাড়ী নাগেশ্বরী সড়কের বটতলায় অবরোধ সৃষ্টি করে হত্যাকারীর শাস্তি দাবি জানিয়েছেন।

অন্যদিকে কাশিপুরে নৌকা প্রতীককে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সব মিলিয়ে উপজেলায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে টহল অব্যাহত রেখেছে।  

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ভাঙ্গামোর ইউনিয়নের ৩নং উত্তর রাবাইতারী মৌজার প্রতিদ্বন্দ্বী সদস্য প্রার্থী চাচা সাইফুল (টিউবওয়েল) ও ভাতিজা শাহজামাল আলী (তালা) নির্বাচনী প্রচারণা শেষে স্থানীয় বটতলা বাজারে আসেন। এ মৌজায় এ সময় কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে দুই সদস্য প্রার্থী চাচা সাইফুল ইসলাম ও ভাতিজা শাহজামালসহ তাদের সমর্থকেরা অপর সদস্য প্রার্থী মুকুলের (বৈদ্যুতিক পাখা) সমর্থক মো. বাবলুকে মারপিট করেন। তিনি মারাত্মক আহত হয়ে মঙ্গলবার সকালে নাগেশ্বরী শাফলা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। বিকালে তিনি বাড়িতে আসলে সন্ধ্যায় মৃত্যু বরণ করেন। 

বিষয়টি জানাজানি হলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমল চাকমা, সহকারী পুলিশ সুপার (নাগেশ্বরী সার্কেল) সুমন রেজা, ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সারওয়ার পারভেজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নিহতের পরিবারের সঙ্গে আলাপ আলোচনা শেষে লাশ দাফনের অনুমতি দিলে বুধবার সকালে স্থানীয় শত শত নারী পুরুষ বাবলু হত্যার বিচার দাবি করে ফুলবাড়ী নাগেশ্বরী সড়ক দুই ঘণ্টা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। এ সময় যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমল চাকমা, সহকারী পুলিশ সুপার (নাগেশ্বরী সার্কেল) সুমন রেজা, ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ সারওয়ার পারভেজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সড়ক আবরোধকারী ও নিহতের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠায়।

নিহতের স্ত্রী মমতা ও স্কুলপড়ুয়া ছেলে ১০ শ্রেণির ছাত্র মাসুম বিল্যাহ কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, আমরা প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়েছি। সুষ্ঠু তদন্তসাপেক্ষে বিচারের দাবি জানাই।

বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীকের সদস্য প্রার্থী মুকুল মিয়া মঙ্গলবার সকালে ফুলবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি বলেন, আমি এ হত্যাকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাই এবং দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

অন্যদিকে কাশিপুর ইউনিয়নের মধ্য-কাশিপুর ও চিলাখানা টেলিটারী এলাকায় নৌকা প্রতীক মঙ্গলবার গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা পুড়িয়ে দিয়েছে। বর্তমানে ওই এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। নৌকা মার্কার প্রার্থী রেয়াজুল আলম ফুলবাড়ী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার (নাগেশ্বরী সার্কেল) সুমন রেজা, আমরা সব বিষয়ে খোঁজখবর রাখছি। তাৎক্ষণিকভাবেও ব্যবস্থা নিচ্ছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

ফুলবাড়ীর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমল চাকমা যুগান্তরকে জানান, আমরা খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এলাকা পরিদর্শন করছি। অভিযোগ হয়েছে। পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন