আগে সমান সমান, এবার ৭ ভোটে জয়ী তিনি
jugantor
আগে সমান সমান, এবার ৭ ভোটে জয়ী তিনি

  নগরকান্দা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ২২:৩১:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

দুই প্রার্থী সমান সমান ভোট পাওয়ায় ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার ফুলসুতি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে পুনরায় ভোটগ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভোট গ্রহণ করা হয়।

ভোট গণনা শেষে সদস্য পদপ্রার্থী আনোয়ার হোসেন লাবলু (ফুটবল প্রতীক) মোট ৩৫৪ ভোট পেয়ে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী ফজলুল হক হারুন (মোরগ প্রতীক) পেয়েছেন মোট ৩৪৭ ভোট। এ ফলাফলের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রিটার্নিং অফিসার উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার।

উল্লেখ্য, দ্বিতীয় ধাপে গত ১১ নভেম্বর নগরকান্দা উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ফুলসুতি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের কাওয়াখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে সাধারণ সদস্য পদের ২ জন প্রার্থী সমান ভোট পান।

ফুলসুতি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে ফজলুল হক হারুন (মোরগ প্রতীক) এবং আনোয়ার হোসেন লাবলু (ফুটবল প্রতীক) সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ভোট গণনা শেষে তারা ২ জনই পান ৩২৪ ভোট। ২ জন প্রার্থী সমান ভোট পাওয়ায় ফলাফল স্থগিত করা হয়। নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা অনুসারে, বুধবার (২৪ নভেম্বর) পুনরায় ভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার।

আগে সমান সমান, এবার ৭ ভোটে জয়ী তিনি

 নগরকান্দা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ১০:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দুই প্রার্থী সমান সমান ভোট পাওয়ায় ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার ফুলসুতি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে পুনরায় ভোটগ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভোট গ্রহণ করা হয়।

ভোট গণনা শেষে সদস্য পদপ্রার্থী আনোয়ার হোসেন লাবলু (ফুটবল প্রতীক) মোট ৩৫৪ ভোট পেয়ে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী ফজলুল হক হারুন (মোরগ প্রতীক) পেয়েছেন মোট ৩৪৭ ভোট। এ ফলাফলের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রিটার্নিং অফিসার উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার। 

উল্লেখ্য, দ্বিতীয় ধাপে গত ১১ নভেম্বর নগরকান্দা উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ফুলসুতি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের কাওয়াখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে সাধারণ সদস্য পদের ২ জন প্রার্থী সমান ভোট পান।

ফুলসুতি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে ফজলুল হক হারুন (মোরগ প্রতীক) এবং আনোয়ার হোসেন লাবলু (ফুটবল প্রতীক) সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ভোট গণনা শেষে তারা ২ জনই পান ৩২৪ ভোট। ২ জন প্রার্থী সমান ভোট পাওয়ায় ফলাফল স্থগিত করা হয়। নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা অনুসারে, বুধবার (২৪ নভেম্বর) পুনরায় ভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শেখ তানভীর আখতার।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন