কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন
jugantor
কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

  কুমিল্লা ব্যুরো  

২৫ নভেম্বর ২০২১, ১৫:০২:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মানববন্ধন

কুমিল্লায় প্রকাশ্য দিবালোকে কাউন্সিলর সোহেলসহ জোড়া খুনের আসামিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

কুমিল্লার মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কুর নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে মেয়র সাক্কু বলেন, কুমিল্লার ইতিহাসে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা আগে কখনও ঘটেনি। আমরা সিটি করপোরেশনের সব কাউন্সিলরসহ নগরবাসী এক হয়েছি। আমরা খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

মানববন্ধনে মেয়র সাক্কু আরও বলেন, যদি দ্রুত আসামিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা না করা হয়, তা হলে আমরা আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করব।

এ সময় বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি, মঞ্জুর কাদের মনি, মাসুদুর রহমান মাসুদ প্রমুখ।

পরে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২২ নভেম্বর সোমবার বিকালে কার্যালয়ে গুলি করে হত্যা করা হয় ১৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল ও তার সহযোগী হরিপদ সাহাকে। এ সময় আরও চারজন গুলিবিদ্ধ হন।

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

 কুমিল্লা ব্যুরো 
২৫ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মানববন্ধন
ছবি: যুগান্তর

কুমিল্লায় প্রকাশ্য দিবালোকে কাউন্সিলর সোহেলসহ জোড়া খুনের আসামিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

কুমিল্লার মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কুর নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে মেয়র সাক্কু বলেন, কুমিল্লার ইতিহাসে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা আগে কখনও ঘটেনি। আমরা সিটি করপোরেশনের সব কাউন্সিলরসহ নগরবাসী এক হয়েছি। আমরা খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।

মানববন্ধনে মেয়র সাক্কু আরও বলেন, যদি দ্রুত আসামিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা না করা হয়, তা হলে আমরা আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করব।

এ সময় বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি, মঞ্জুর কাদের মনি, মাসুদুর রহমান মাসুদ প্রমুখ।

পরে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২২ নভেম্বর সোমবার বিকালে কার্যালয়ে গুলি করে হত্যা করা হয় ১৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল ও তার সহযোগী হরিপদ সাহাকে। এ সময় আরও চারজন গুলিবিদ্ধ হন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন