মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে মারধর, লাশ উদ্ধার 
jugantor
মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে মারধর, লাশ উদ্ধার 

  বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি  

২৫ নভেম্বর ২০২১, ১৮:০৫:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহীর বাঘায় স্বামীকে মাদক সেবন করতে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। পরে অভিমান করে স্ত্রী উজালা আক্তার (২২) বিষপান করেন। পরে ১০ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর তার মৃত্যু হয়।

বুধবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। উজালা আক্তার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের পানিকামড়া গ্রামের মিঠুন আলীর স্ত্রী ও বাজুবাঘা গ্রামের কালাচান আলীর মেয়ে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৪ নভেম্বর সকালে স্বামী মিঠুন আলীকে মাদক সেবন করতে নিষেধ করে তার স্ত্রী উজালা আক্তার। এ নিয়ে স্ত্রীকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। ওই দিনই বিষপান করে উজালা। পরিবারের লোকজন জানতে পেরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান।

সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ দিন পর বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়। মেয়ের বাবা কালাচান আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে মারধর, লাশ উদ্ধার 

 বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি 
২৫ নভেম্বর ২০২১, ০৬:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহীর বাঘায় স্বামীকে মাদক সেবন করতে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। পরে অভিমান করে স্ত্রী উজালা আক্তার (২২) বিষপান করেন। পরে ১০ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর তার মৃত্যু হয়।

বুধবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। উজালা আক্তার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের পানিকামড়া গ্রামের মিঠুন আলীর স্ত্রী ও বাজুবাঘা গ্রামের কালাচান আলীর মেয়ে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৪ নভেম্বর সকালে স্বামী মিঠুন আলীকে মাদক সেবন করতে নিষেধ করে তার স্ত্রী উজালা আক্তার। এ নিয়ে স্ত্রীকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। ওই দিনই বিষপান করে উজালা। পরিবারের লোকজন জানতে পেরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান।

সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ দিন পর বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়। মেয়ের বাবা কালাচান আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন