নৌকা পাওয়ার পর প্রার্থীর বিরুদ্ধে গৃহকর্মীর ধর্ষণ মামলা
jugantor
নৌকা পাওয়ার পর প্রার্থীর বিরুদ্ধে গৃহকর্মীর ধর্ষণ মামলা

  বগুড়া ব্যুরো  

২৫ নভেম্বর ২০২১, ২১:০৬:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বগুড়া সদরের শাখারিয়া ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী (নৌকা) এনামুল হক রুমির (৫২) বিরুদ্ধে এক গৃহকর্মীকে (৩৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

ওই নারী বুধবার বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এ মামলা করেন। আদালতের স্পেশাল পিপি নরেশ মুখার্জী মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বিচারক একেএম ফজলুল হক এ ব্যাপারে তদন্ত করে ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে— ওই গৃহবধূ ২০২০ সালে শাখারিয়া ইউনিয়নে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী জঙ্গলপাড়া গ্রামের নজিবুর রহমান প্রামাণিকের ছেলে এনামুল হক রুমির বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ নেন। পরবর্তীতে দরিদ্রতার সুযোগ নিয়ে ও বিয়ের প্রলোভন দিয়ে রুমি তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর থেকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে ওই গৃহকর্মী তাদের অনৈতিক সম্পর্ক থেকে সরে আসতে চাইলে তাকে হুমকি দেওয়া হয়।

আবারো প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ চালিয়ে যেতে থাকেন। দীর্ঘদিন এভাবে চলার পর এনামুল হক রুমি বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান। বাধ্য হয়ে তিনি গত বুধবার বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষণের মামলা করেন। আদালত শুনানি শেষে এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে পিপিআই বগুড়াকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে চেয়ারম্যান প্রার্থী এনামুল হক রুমি জানান, তিনি এ মামলার ব্যাপারে কিছুই জানেন না। তার বাড়িতে কোনো গৃহকর্মীও নেই। তিনি সাংবাদিকদের এলাকায় গিয়ে তদন্ত করে সত্যতা যাচাই করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

তৃতীয় ধাপে বগুড়া সদরের শাখারিয়া ইউনিয়নে আগামী ২৮ নভেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের চার দিন আগে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা জনগণ নানাভাবে দেখছেন। কেউ বলছেন, এটা প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্র। আবার কেউ বলছেন, সঠিক সময়ে সঠিক অভিযোগ উঠেছে।

নৌকা পাওয়ার পর প্রার্থীর বিরুদ্ধে গৃহকর্মীর ধর্ষণ মামলা

 বগুড়া ব্যুরো 
২৫ নভেম্বর ২০২১, ০৯:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বগুড়া সদরের শাখারিয়া ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী (নৌকা) এনামুল হক রুমির (৫২) বিরুদ্ধে এক গৃহকর্মীকে (৩৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। 

ওই নারী বুধবার বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এ মামলা করেন। আদালতের স্পেশাল পিপি নরেশ মুখার্জী মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বিচারক একেএম ফজলুল হক এ ব্যাপারে তদন্ত করে ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে— ওই গৃহবধূ ২০২০ সালে শাখারিয়া ইউনিয়নে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী জঙ্গলপাড়া গ্রামের নজিবুর রহমান প্রামাণিকের ছেলে এনামুল হক রুমির বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ নেন। পরবর্তীতে দরিদ্রতার সুযোগ নিয়ে ও বিয়ের প্রলোভন দিয়ে রুমি তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর থেকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে ওই গৃহকর্মী তাদের অনৈতিক সম্পর্ক থেকে সরে আসতে চাইলে তাকে হুমকি দেওয়া হয়। 

আবারো প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ চালিয়ে যেতে থাকেন। দীর্ঘদিন এভাবে চলার পর এনামুল হক রুমি বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান। বাধ্য হয়ে তিনি গত বুধবার বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষণের মামলা করেন। আদালত শুনানি শেষে এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে পিপিআই বগুড়াকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে চেয়ারম্যান প্রার্থী এনামুল হক রুমি জানান, তিনি এ মামলার ব্যাপারে কিছুই জানেন না। তার বাড়িতে কোনো গৃহকর্মীও নেই। তিনি সাংবাদিকদের এলাকায় গিয়ে তদন্ত করে সত্যতা যাচাই করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

তৃতীয় ধাপে বগুড়া সদরের শাখারিয়া ইউনিয়নে আগামী ২৮ নভেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের চার দিন আগে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা জনগণ নানাভাবে দেখছেন। কেউ বলছেন, এটা প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্র। আবার কেউ বলছেন, সঠিক সময়ে সঠিক অভিযোগ উঠেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন