মেয়র আব্বাসের কুশপুত্তলিকা দাহ, ১২ কাউন্সিলরের অনাস্থা 
jugantor
মেয়র আব্বাসের কুশপুত্তলিকা দাহ, ১২ কাউন্সিলরের অনাস্থা 

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৮:৫৭:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে পৌরসভার মেয়র আব্বাসের আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে তার কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীরা। এছাড়া মেয়রের শাস্তির দাবিতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ‘উন্নয়নের অভিযাত্রায় রাজশাহী’ ব্যানারে মহানগরীর আলুপট্টি মোড় থেকে এই বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি মহানগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সাহেববাজার জিরোপয়েটে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে মেয়র আব্বাসের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

কর্মসূচিতে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রকি কুমার ঘোষ, বর্তমান সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম, সাধারণ সম্পাদক ডা. সিরাজুল মবিন সবুজ, যুগ্মসম্পাদক হাসান রেজা, সাংগঠনিক সম্পাদক রাসিক দত্ত, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্মসম্পাদক মারুফ হোসেনসহ ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


এদিকে মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন কাটাখালি পৌরসভার কাউন্সিলররা। শুক্রবার সকালে পৌর ভবনে সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন তারা। এছাড়া বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তি করায় শুক্রবার পৌরভবনে প্রতিবাদ সভা করেন কাউন্সিলররা। এরপর তারা সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। কাউন্সিলররা বলেন, বছরে সাড়ে তিন কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়। এখন তহবিলে এক কাপ চা খাওয়ার টাকা নেই। মেয়র সব লুটেপুটে খেয়েছেন।

তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মঞ্জুর রহমান বলেন, কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রায়ইমেয়র আব্বাস আলী অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। জোরপূর্বক সভা ও অন্যান্য কাগজে স্বাক্ষর করতে বাধ্য করতেন। গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পসহ অন্যান্য যাবতীয় কাজ মেয়র তার আত্মীয়-স্বজন ও পছন্দের লোকজনকে দিতেন। তার আত্মীয়-স্বজনের মধ্যে চারজনের নামে লাইসেন্স আছে এই পৌরসভায়। মেয়র তাদের নামে কাজ নিয়ে নিজেই করতেন। অন্য ঠিকাদারদের লাইসেন্স করতে দিতেন না।

কাউন্সিলরদেরপ্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন- ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার সাদাত, সিরাজুল ইসলাম, মঞ্জুর রহমান, ইয়াছিন মোল্লা, বোরহান উদ্দীন রাব্বানী, মনিরুজ্জামান মনির, আব্দুল মজিদ, এনামুল হক, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হোসনে আরা বেগম প্রমুখ। তারা মেয়রের অপসারণ দাবি করেন।

এর আগে মেয়র আব্বাস আলীর ওপর অনাস্থা প্রকাশ করেন কাউন্সিলররা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পৌরসভা ভবনের সভা কক্ষে কাউন্সিলরদের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আব্বাস আলীকে মেয়র পদ থেকে অপসারণের জন্য অনাস্থা প্রস্তাব আনের নারী কাউন্সিলর হোসনে আরা। পরে সর্বসম্মতিক্রমে অনাস্থা প্রস্তাব পাস হয়।

৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মজিদ জানান, তার সভাপতিত্বে কাউন্সিলরদের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মেয়র আব্বাসকে অপসারণে অনাস্থা প্রস্তাব গৃহীত হয়। মেয়রকে অপসারণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর লেখা অনাস্থা প্রস্তাবের আবেদনে ১২ জন কাউন্সিলর স্বাক্ষর করেন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে তারা জেলা প্রশাসকের বাসভবনে গিয়ে আবেদন জমা দেন।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার রাজশাহীতে দুটি অডিও ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ে। এতে মেয়র আব্বাস বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি নির্মাণ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন।এ নিয়ে রাজশাহীতে তোলপাড় চলছে।ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আব্বাসের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আর উপজেলা আওয়ামী লীগ আব্বাসকে পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে।

মেয়র আব্বাসের কুশপুত্তলিকা দাহ, ১২ কাউন্সিলরের অনাস্থা 

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৬ নভেম্বর ২০২১, ০৬:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে পৌরসভার মেয়র আব্বাসের আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে তার কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীরা। এছাড়া মেয়রের শাস্তির দাবিতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। 

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ‘উন্নয়নের অভিযাত্রায় রাজশাহী’ ব্যানারে মহানগরীর আলুপট্টি মোড় থেকে এই বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি মহানগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সাহেববাজার জিরোপয়েটে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে মেয়র আব্বাসের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

কর্মসূচিতে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রকি কুমার ঘোষ, বর্তমান সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম, সাধারণ সম্পাদক ডা. সিরাজুল মবিন সবুজ, যুগ্মসম্পাদক হাসান রেজা, সাংগঠনিক সম্পাদক রাসিক দত্ত, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্মসম্পাদক মারুফ হোসেনসহ ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 
এদিকে মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন কাটাখালি পৌরসভার কাউন্সিলররা। শুক্রবার সকালে পৌর ভবনে সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন তারা। এছাড়া বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তি করায় শুক্রবার পৌরভবনে প্রতিবাদ সভা করেন কাউন্সিলররা। এরপর তারা সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। কাউন্সিলররা বলেন, বছরে সাড়ে তিন কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়। এখন তহবিলে এক কাপ চা খাওয়ার টাকা নেই। মেয়র সব লুটেপুটে খেয়েছেন।

তিন নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মঞ্জুর রহমান বলেন, কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রায়ই মেয়র আব্বাস আলী অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। জোরপূর্বক সভা ও অন্যান্য কাগজে স্বাক্ষর করতে বাধ্য করতেন। গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পসহ অন্যান্য যাবতীয় কাজ মেয়র তার আত্মীয়-স্বজন ও পছন্দের লোকজনকে দিতেন। তার আত্মীয়-স্বজনের মধ্যে চারজনের নামে লাইসেন্স আছে এই পৌরসভায়। মেয়র তাদের নামে কাজ নিয়ে নিজেই করতেন। অন্য ঠিকাদারদের লাইসেন্স করতে দিতেন না।

কাউন্সিলরদের প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন- ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার সাদাত, সিরাজুল ইসলাম, মঞ্জুর রহমান, ইয়াছিন মোল্লা, বোরহান উদ্দীন রাব্বানী, মনিরুজ্জামান মনির, আব্দুল মজিদ, এনামুল হক, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হোসনে আরা বেগম প্রমুখ। তারা মেয়রের অপসারণ দাবি করেন। 

এর আগে মেয়র আব্বাস আলীর ওপর অনাস্থা প্রকাশ করেন কাউন্সিলররা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পৌরসভা ভবনের সভা কক্ষে কাউন্সিলরদের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আব্বাস আলীকে মেয়র পদ থেকে অপসারণের জন্য অনাস্থা প্রস্তাব আনের নারী কাউন্সিলর হোসনে আরা। পরে সর্বসম্মতিক্রমে অনাস্থা প্রস্তাব পাস হয়।

৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মজিদ জানান, তার সভাপতিত্বে কাউন্সিলরদের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মেয়র আব্বাসকে অপসারণে অনাস্থা প্রস্তাব গৃহীত হয়। মেয়রকে অপসারণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর লেখা অনাস্থা প্রস্তাবের আবেদনে ১২ জন কাউন্সিলর স্বাক্ষর করেন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে তারা জেলা প্রশাসকের বাসভবনে গিয়ে আবেদন জমা দেন। 

প্রসঙ্গত, গত সোমবার রাজশাহীতে দুটি অডিও ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ে। এতে মেয়র আব্বাস বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি নির্মাণ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন।  এ নিয়ে রাজশাহীতে তোলপাড় চলছে।ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আব্বাসের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আর উপজেলা আওয়ামী লীগ আব্বাসকে পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন