ফেসবুকে প্রেম, প্রেমিকার বাড়ি এসে ধরা খেল যুবক
jugantor
ফেসবুকে প্রেম, প্রেমিকার বাড়ি এসে ধরা খেল যুবক

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৯:৪০:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিচয়ের পর প্রেম। আর প্রেমের টানে বরিশাল থেকে ছুটে এসে ঢাকার ধামরাইয়ে আটক হয়েছেন এক যুবক। শুক্রবার বাদ জুমা ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সুয়াপুর ইউনিয়নের ঈশানগর এলাকায়।

বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে কিশোরীর সঙ্গে যুবকের বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে যুবকের পিতামাতাকে খবর পাঠানো হয়েছে। বিয়েতে রাজি হলেই ওই যুবককে মুক্তি দেওয়া হবে; না হলে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হবে বলে নিশ্চিত করেছে কিশোরীর পরিবার।

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, ওই কিশোরীর সঙ্গে ফেসবুকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে বরিশাল সদরের টেম্পোর মোড় এলাকার আরমান আলী হাওলাদারের কিশোর ছেলে মো. আলী আজম হাওলাদারের। এরই সূত্র ধরে সে লঞ্চে চেপে সদরঘাটে আসে। এরপর সোজা ওই কিশোরী প্রেমিকার পিত্রালয়ে এসে হাজির হয় বাদ জুমা। বিষয়টি জানতে পেরে এলাকাবাসী আটক করে উত্তম-মধ্যম দেয়। এরপর আটক ওই যুবকের পিতা-মাতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে খবর পাঠানো হয়েছে।

আটক যুবক আলী আজম হাওলাদার জানান, ফেসবুকে তার সঙ্গে আমার পরিচয়। এরপর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাই তার সঙ্গে দেখা করতে এসেছি।

কিশোরী জানায়, ফেসবুকের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে আলী আজম হাওলাদারের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক। আমিই তাকে আসতে বলেছি। গ্রামবাসী ও আমার পরিবারের লোকজন আমার মতামত উপেক্ষা করে তাকে আটক করেছে।

কিশোরীর বাবা বলেন, চেনা নেই জানা নেই মেয়ে একজনকে ভালোবাসবে তা হতে পারে না। তাছাড়া আমার মেয়ে এখনো নাবালিকা। ওর সিদ্ধান্ত নেওয়ার বয়স হয়নি। তাই যুবককে আটক করা হয়েছে। তার বাবা-মাকে আসতে বলা হয়েছে।

ইউপি মেম্বার মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ছেলে-মেয়ে রাজি আছে। গ্রামবাসী ও পরিবারের লোকজন রাজি না হওয়ায় ওই ছেলেকে আটক করা হয়েছে। তার মা-বাবাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে খবর পাঠানো হয়েছে। তারা এলেই বিষয়টি সমাধান হয়ে যাবে।

ফেসবুকে প্রেম, প্রেমিকার বাড়ি এসে ধরা খেল যুবক

 ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
২৬ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিচয়ের পর প্রেম। আর প্রেমের টানে বরিশাল থেকে ছুটে এসে ঢাকার ধামরাইয়ে আটক হয়েছেন এক যুবক। শুক্রবার বাদ জুমা ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সুয়াপুর ইউনিয়নের ঈশানগর এলাকায়। 

বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে কিশোরীর সঙ্গে যুবকের বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে যুবকের পিতামাতাকে খবর পাঠানো হয়েছে। বিয়েতে রাজি হলেই ওই যুবককে মুক্তি দেওয়া হবে; না হলে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হবে বলে নিশ্চিত করেছে কিশোরীর পরিবার।

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, ওই কিশোরীর সঙ্গে ফেসবুকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে বরিশাল সদরের টেম্পোর মোড় এলাকার আরমান আলী হাওলাদারের কিশোর ছেলে মো. আলী আজম হাওলাদারের। এরই সূত্র ধরে সে লঞ্চে চেপে সদরঘাটে আসে। এরপর সোজা ওই কিশোরী প্রেমিকার পিত্রালয়ে এসে হাজির হয় বাদ জুমা। বিষয়টি জানতে পেরে এলাকাবাসী আটক করে উত্তম-মধ্যম দেয়। এরপর আটক ওই যুবকের পিতা-মাতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে খবর পাঠানো হয়েছে।

আটক যুবক আলী আজম হাওলাদার জানান, ফেসবুকে তার সঙ্গে আমার পরিচয়। এরপর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাই তার সঙ্গে দেখা করতে এসেছি। 

কিশোরী জানায়, ফেসবুকের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে আলী আজম হাওলাদারের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক। আমিই তাকে আসতে বলেছি। গ্রামবাসী ও আমার পরিবারের লোকজন আমার মতামত উপেক্ষা করে তাকে আটক করেছে।

কিশোরীর বাবা বলেন, চেনা নেই জানা নেই মেয়ে একজনকে ভালোবাসবে তা হতে পারে না। তাছাড়া আমার মেয়ে এখনো নাবালিকা। ওর সিদ্ধান্ত নেওয়ার বয়স হয়নি। তাই যুবককে আটক করা হয়েছে। তার বাবা-মাকে আসতে বলা হয়েছে।

ইউপি মেম্বার মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ছেলে-মেয়ে রাজি আছে। গ্রামবাসী ও পরিবারের লোকজন রাজি না হওয়ায় ওই ছেলেকে আটক করা হয়েছে। তার মা-বাবাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে খবর পাঠানো হয়েছে। তারা এলেই বিষয়টি সমাধান হয়ে যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন