রায়পুরে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ১০
jugantor
রায়পুরে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ১০

  রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি  

২৭ নভেম্বর ২০২১, ১০:৩৬:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে দক্ষিণ চরবংশী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে দুই পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আখনবাজার এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- তোতা আখন, নোমান বহদ্দার, হাসেম আলী, মো. হারুন, শরিফ হোসেন, খালেক মাজিসহ আহত ১০ জন। আহতদের রায়পুরসহ স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ঘটনাস্থলের কয়েক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সদস্য পদে আলমগীর হোসেন মোহাম্মাদ আলী (পানির কল) এবং ফজলুল করিম বহদ্দার (আপেল) নির্বাচন করছেন।

রাত সাড়ে ৯টার দিকে আখনবাজার এলাকায় আলমগীর হোসেনের কয়েকজন কর্মী ভোটারদের মধ্যে স্লিপ বিতরণ করার সময় করিম বহাদ্দরের এক কর্মীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে প্রার্থীদের কর্মীদের মধ্যে হাতাহাতি ও সংঘর্ষ লেগে যায়। এতে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন মারাত্মক আহত হয়ে বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন।
ঘটনার সংবাদ শুনেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ, বিজিবি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার পর এলাকা থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত রাখা হয়েছে। এই বিষয়ে এখন পর্যন্ত দুপক্ষের কেউ কোনো অভিযোগ কিংবা কোনো ধরনের মামলা করেননি। যদি কেউ কোনো অভিযোগ অথবা মামলা করেন আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।

এ বিষয়ে করিম বহদ্দার মোবাইল ফোনে বলেন, মোহাম্মদ আলীর কর্মীরা তুচ্ছ ঘটনায় আমার সমর্থকদের ওপর হামলা করেছেন। নির্বাচনে তিনি আমার সমর্থকদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। আমার কয়েকজন লোক মারাত্মক আহত হয়েছেন।

জানতে চাইলে মোহাম্মদ আলী বলেন, নির্বাচন প্রচারণার সময় আমার সমর্থকদের মারধর করেছে করিম বহাদ্দরের কর্মীরা। তাই জনসাধারণ ক্ষুব্ধ হয়ে জড়ো হয়েছিল। তারা সেখানেও হামলা করেছে। আহতরা রায়পুর হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

রায়পুরে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ১০

 রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি 
২৭ নভেম্বর ২০২১, ১০:৩৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সংঘর্ষ
ফাইল ছবি

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে দক্ষিণ চরবংশী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে দুই পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আখনবাজার এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- তোতা আখন, নোমান বহদ্দার, হাসেম আলী, মো. হারুন, শরিফ হোসেন, খালেক মাজিসহ আহত ১০ জন। আহতদের রায়পুরসহ স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ঘটনাস্থলের কয়েক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সদস্য পদে আলমগীর হোসেন মোহাম্মাদ আলী (পানির কল) এবং ফজলুল করিম বহদ্দার (আপেল) নির্বাচন করছেন।

রাত সাড়ে ৯টার দিকে আখনবাজার এলাকায় আলমগীর হোসেনের কয়েকজন কর্মী ভোটারদের মধ্যে স্লিপ বিতরণ করার সময় করিম বহাদ্দরের এক কর্মীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে প্রার্থীদের কর্মীদের মধ্যে হাতাহাতি ও সংঘর্ষ লেগে যায়। এতে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন মারাত্মক আহত হয়ে বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন।
ঘটনার সংবাদ শুনেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ, বিজিবি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনার পর এলাকা থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত রাখা হয়েছে। এই বিষয়ে এখন পর্যন্ত দুপক্ষের কেউ কোনো অভিযোগ কিংবা কোনো ধরনের মামলা করেননি। যদি কেউ কোনো অভিযোগ অথবা মামলা করেন আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।

এ বিষয়ে করিম বহদ্দার মোবাইল ফোনে বলেন, মোহাম্মদ আলীর কর্মীরা তুচ্ছ ঘটনায় আমার সমর্থকদের ওপর হামলা করেছেন। নির্বাচনে তিনি আমার সমর্থকদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। আমার কয়েকজন লোক মারাত্মক আহত হয়েছেন।

জানতে চাইলে মোহাম্মদ আলী বলেন, নির্বাচন প্রচারণার সময় আমার সমর্থকদের মারধর করেছে করিম বহাদ্দরের কর্মীরা। তাই জনসাধারণ ক্ষুব্ধ হয়ে জড়ো হয়েছিল। তারা সেখানেও হামলা করেছে। আহতরা রায়পুর হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন