চড় মারার পর জোর করে কলা খাইয়ে দিল আ.লীগ নেতা
jugantor
চড় মারার পর জোর করে কলা খাইয়ে দিল আ.লীগ নেতা

  নাটোর প্রতিনিধি   

২৭ নভেম্বর ২০২১, ২২:৩০:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় জামনগর ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেনের চড় মারার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

শনিবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সিসিটিভির একটি ফুটেজ ছড়িয়ে পড়ে। তবে ওই ঘটনাটি বৃহস্পতিবার বিকালের। ভিডিওতে চড় মারার পর ওই কর্মীকে জোর করে কলা খাইয়ে দেওয়ায় নির্বাচনী মাঠে একদিকে যেমন ভীতির সৃষ্টি হয়েছে, অন্যদিকে সাধারণ মানুষের মাঝে হাস্যরসেরও সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে জামনগর ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী আব্দুল কুদ্দুসের নির্বাচনী প্রচারে যান বাগাতিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেনসহ কয়েকজন। এ সময় জামনগর বাজারে আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা স্বতন্ত্র প্রার্থী কলেজ শিক্ষক শাহ আলমের প্রচার শেষে বাড়ি ফেরার সময় তার কর্মীকে চড়-থাপ্পড় মারেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন। এ ঘটনাটি ধরা পড়ে ওই বাজারের একটি দোকানে বসানো সিসিটিভি ক্যামেরায়।

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে বাগাতিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক আবুল হোসেন বলেন, নিজের দলের কর্মী হওয়ায় তাকে একটি কলা খাওয়ানো হয়েছে মাত্র। এর বেশি কিছু না।

এ বিষয়ে নাটোরের জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ বলেন, বাগাতিপাড়ায় স্বতন্ত্র কোনো প্রার্থীর কর্মীকে নির্যাতনের ঘটনার কথা তিনি জানতেন না। বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে শুনেছেন। ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান।

প্রসঙ্গত, রোববার তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে নাটোরের বাগাতিপাড়ার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

চড় মারার পর জোর করে কলা খাইয়ে দিল আ.লীগ নেতা

 নাটোর প্রতিনিধি  
২৭ নভেম্বর ২০২১, ১০:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় জামনগর ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেনের চড় মারার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। 

শনিবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সিসিটিভির একটি ফুটেজ ছড়িয়ে পড়ে। তবে ওই ঘটনাটি বৃহস্পতিবার বিকালের। ভিডিওতে চড় মারার পর ওই কর্মীকে জোর করে কলা খাইয়ে দেওয়ায় নির্বাচনী মাঠে একদিকে যেমন ভীতির সৃষ্টি হয়েছে, অন্যদিকে সাধারণ মানুষের মাঝে হাস্যরসেরও সৃষ্টি হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে জামনগর ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী আব্দুল কুদ্দুসের নির্বাচনী প্রচারে যান বাগাতিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেনসহ কয়েকজন। এ সময় জামনগর বাজারে আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা স্বতন্ত্র প্রার্থী কলেজ শিক্ষক শাহ আলমের প্রচার শেষে বাড়ি ফেরার সময় তার কর্মীকে চড়-থাপ্পড় মারেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন। এ ঘটনাটি ধরা পড়ে ওই বাজারের একটি দোকানে বসানো সিসিটিভি ক্যামেরায়।

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে বাগাতিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক আবুল হোসেন বলেন, নিজের দলের কর্মী হওয়ায় তাকে একটি কলা খাওয়ানো হয়েছে মাত্র। এর বেশি কিছু না। 

এ বিষয়ে নাটোরের জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ বলেন, বাগাতিপাড়ায় স্বতন্ত্র কোনো প্রার্থীর কর্মীকে নির্যাতনের ঘটনার কথা তিনি জানতেন না। বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে শুনেছেন। ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান। 

প্রসঙ্গত, রোববার তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে নাটোরের বাগাতিপাড়ার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন