ঘাটাইলে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ২
jugantor
ঘাটাইলে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ২

  ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৪:১০:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

হামলা ভাংচুর

টাঙ্গাইল ঘাটাইল পৌরসভা নির্বাচনে ভোট দেওয়া কেন্দ্র করে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দুজন আহত হয়েছেন।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পৌরসভার বানিয়াপাড়া এলাকায় দারুস সুন্নাহ হাফেজিয়া ও নুরানি মাদ্রাসা এবং এতিমখানাকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, পৌরসভার বানিয়াপাড়া এলাকার ৪নং ওয়ার্ডের কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী আবু হায়দার লিটন সরকারের বোতল প্রতীকের এজেন্ট ও অপর প্রার্থী আশরাফুল জামান মামুনের উটপাখি সমর্থকের সঙ্গে ভোট দেওয়া কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় আবু হায়দার লিটনের ছোট ভাই টিটু সরকারসহ দুজন আহত হন। এতে কিছু সময়ের জন্য ওই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকে।

বোতল প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী আবু হায়দার লিটন সরকার যুগান্তরকে বলেন, প্রতিপক্ষের লোকজন ভোটারদের ভোট তারা নিজেরাই দিয়ে দিচ্ছিল। পরে প্রতিবাদ করলে তারা অতর্কিতভাবে হামলা করে। এ ঘটনায় আমার এজেন্ট ও ছোট ভাই মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ হোসেন বলেন, কেন্দ্রে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। এই কেন্দ্রে বিপুল ভোটার উপস্থিতি রয়েছেন। এটা কেন্দ্র করে ছোটখাটো উত্তেজনা ছিল। পরে সেটি নিরসন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো জায়গায় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

উল্লেখ্য, রোববার ঘাটাইলে এই প্রথম ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের ( ইভিএম) মাধ্যমে ভোটাররা ভোট দেন। সকাল ৮টা থেকেই ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ লক্ষ্য করা গেছে।

এ পৌরসভায় নারী ও পুরুষ ভোটারসহ মোট ২২ হাজার ২৪১ ভোটার ৯টি কেন্দ্রে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এতে মেয়র পদে চার এবং সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৩১ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ঘাটাইলে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ২

 ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হামলা ভাংচুর
ছবি: যুগান্তর

টাঙ্গাইল ঘাটাইল পৌরসভা নির্বাচনে ভোট দেওয়া কেন্দ্র করে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দুজন আহত হয়েছেন।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পৌরসভার বানিয়াপাড়া এলাকায় দারুস সুন্নাহ হাফেজিয়া ও নুরানি মাদ্রাসা এবং এতিমখানাকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, পৌরসভার বানিয়াপাড়া এলাকার ৪নং ওয়ার্ডের কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী আবু হায়দার লিটন সরকারের বোতল প্রতীকের এজেন্ট ও অপর প্রার্থী আশরাফুল জামান মামুনের উটপাখি সমর্থকের সঙ্গে ভোট দেওয়া কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় আবু হায়দার লিটনের ছোট ভাই টিটু সরকারসহ দুজন আহত হন। এতে কিছু সময়ের জন্য ওই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকে।

বোতল প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী আবু হায়দার লিটন সরকার যুগান্তরকে বলেন, প্রতিপক্ষের লোকজন ভোটারদের ভোট তারা নিজেরাই দিয়ে দিচ্ছিল। পরে প্রতিবাদ করলে তারা অতর্কিতভাবে হামলা করে। এ ঘটনায় আমার এজেন্ট ও ছোট ভাই মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ হোসেন বলেন, কেন্দ্রে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। এই কেন্দ্রে বিপুল ভোটার উপস্থিতি রয়েছেন। এটা কেন্দ্র করে ছোটখাটো উত্তেজনা ছিল। পরে সেটি নিরসন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো জায়গায় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

উল্লেখ্য, রোববার ঘাটাইলে এই প্রথম ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের ( ইভিএম) মাধ্যমে ভোটাররা ভোট দেন। সকাল ৮টা থেকেই ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ লক্ষ্য করা গেছে।  

এ পৌরসভায় নারী ও পুরুষ ভোটারসহ মোট ২২ হাজার ২৪১ ভোটার ৯টি কেন্দ্রে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এতে মেয়র পদে চার এবং সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৩১ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন