নিজ বাড়িতে নৌকা প্রার্থী অবরুদ্ধ, ভোট বয়কট
jugantor
নিজ বাড়িতে নৌকা প্রার্থী অবরুদ্ধ, ভোট বয়কট

  বেনাপোল প্রতিনিধি  

২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৫:০৫:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

আওয়ামী লীগ

যশোরের শার্শার ১০ ইউনিয়নে সংঘর্ষ-ভাঙচুর আর ভোট বয়কটের মধ্য দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলছে।

শার্শার ৮নং বাগাআঁচড়া ইউনিয়নে নৌকা মার্কার প্রার্থী ইলিয়াস কবির বকুল রোববার সকাল থেকে নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ রয়েছেন। বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল খালেকের সমর্থকরা অবরুদ্ধ করে রাখায় নিজের ভোটটিও দিতে পারিনি বলে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই প্রার্থী।

রোববার দুপুরে নিজ বাড়িতে সাংবাদিকদের কাছে ভোট বয়কটের ঘোষণা দেন।

তিনি জানান, উপজেলার ডিহি ইউনিয়নে শালকুনা দুগ্রুপের সংঘর্ষে তিনজন, পুটখালী ইউনিয়নের শিকড়ী মাদ্রাসা কেন্দ্রে চারজন, বাগাআঁচড়ার কলোনি কেন্দ্রে তিনজন আহত হন। এ সময় প্রতিপক্ষ বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল খালেকের লোকজন তার ঘরবাড়ি ভাঙচুর করেন।

এ ছাড়া বাহদুর ইউনিয়নের ঘিবা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুজন আহত হন।

এদিকে গোগা ইউনিয়নের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে নৌকার পোলিং এজেন্ট পাওয়া যায়নি। প্রশাসন তাদের সহযোগিতা করছেন বলে অভিযোগ করেছেন নৌকার প্রার্থী আব্দুর রশিদ।

যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. সায়েমুজ্জামান জানান, সকাল থেকে শার্শার ১০টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এখনপর্যন্ত কোথাওকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

নিজ বাড়িতে নৌকা প্রার্থী অবরুদ্ধ, ভোট বয়কট

 বেনাপোল প্রতিনিধি 
২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আওয়ামী লীগ
ফাইল ছবি

যশোরের শার্শার ১০ ইউনিয়নে সংঘর্ষ-ভাঙচুর আর ভোট বয়কটের মধ্য দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলছে।

শার্শার ৮নং বাগাআঁচড়া  ইউনিয়নে নৌকা মার্কার প্রার্থী ইলিয়াস কবির বকুল রোববার সকাল থেকে নিজ বাড়িতে অবরুদ্ধ রয়েছেন। বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল খালেকের সমর্থকরা অবরুদ্ধ করে রাখায় নিজের ভোটটিও দিতে পারিনি বলে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই প্রার্থী।

রোববার দুপুরে নিজ বাড়িতে সাংবাদিকদের কাছে ভোট বয়কটের ঘোষণা দেন।

তিনি জানান, উপজেলার ডিহি ইউনিয়নে শালকুনা দুগ্রুপের সংঘর্ষে তিনজন, পুটখালী ইউনিয়নের শিকড়ী মাদ্রাসা কেন্দ্রে চারজন, বাগাআঁচড়ার কলোনি কেন্দ্রে তিনজন আহত হন। এ সময় প্রতিপক্ষ বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল খালেকের লোকজন তার ঘরবাড়ি ভাঙচুর করেন।

এ ছাড়া বাহদুর ইউনিয়নের ঘিবা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুজন আহত হন।

এদিকে গোগা ইউনিয়নের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে নৌকার পোলিং এজেন্ট পাওয়া যায়নি। প্রশাসন তাদের সহযোগিতা করছেন বলে অভিযোগ করেছেন নৌকার প্রার্থী আব্দুর রশিদ।

যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. সায়েমুজ্জামান জানান, সকাল থেকে শার্শার ১০টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন