পিরু খুনের প্রধান আসামি জয় গ্রেফতার
jugantor
পিরু খুনের প্রধান আসামি জয় গ্রেফতার

  রাজশাহী ব্যুরো  

২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৮:৫২:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী মহানগরীতে ওয়ার্কার্স পার্টির কর্মী পিয়ারুল ইসলাম পিরু (৩৪) হত্যা মামলার প্রধান আসামি হাসান আলী ওরফে জয়কে (২৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার গভীর রাতে মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার রাণীনগর দক্ষিণ সাধুর মোড় এলাকার একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওই এলাকাতেই তার বাড়ি। বাবার নাম আমিরুল ইসলাম।

নিহত পিয়ারুল ইসলাম ওয়ার্কার্স পার্টির ২৫ নম্বর ওয়ার্ড কমিটির সদস্য ছিলেন। গত ৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় মহানগরীর রাণীনগর সিটি হাসপাতাল এলাকায় বাড়িতে ঢুকে পিয়ারুলকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ নিয়ে ছয়জনের নামে থানায় মামলা করেন নিহতের ভাই।

বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ জানান, গ্রেফতার হাসান আলী জয় এলাকায় কুখ্যাত ছিনতাইকারী হিসেবে পরিচিত। শুধু বোয়ালিয়া থানায় তার বিরুদ্ধে দশটি মামলা রয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে রাণীনগর দক্ষিণ সাধুর মোড় এলাকার একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছে পিয়ারুলকে হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো চাকুটিও পাওয়া গেছে। সেটি জব্দ করা হয়েছে।

ওসি জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহত পিয়ারুল ইসলামের সঙ্গে আসামি হাসান আলী জয়ের কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরেই কয়েকজন মিলে পিয়ারুলের বাড়িতে ঢুকে তাকে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর মো. শিমুল ও সোহানুর রহমান সোহান নামে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। প্রধান আসামি জয়কেও গ্রেফতার করা হলো। রোববার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পলাতক অন্যদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

পিরু খুনের প্রধান আসামি জয় গ্রেফতার

 রাজশাহী ব্যুরো 
২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৬:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহী মহানগরীতে ওয়ার্কার্স পার্টির কর্মী পিয়ারুল ইসলাম পিরু (৩৪) হত্যা মামলার প্রধান আসামি হাসান আলী ওরফে জয়কে (২৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

শনিবার গভীর রাতে মহানগরীর বোয়ালিয়া থানার রাণীনগর দক্ষিণ সাধুর মোড় এলাকার একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওই এলাকাতেই তার বাড়ি। বাবার নাম আমিরুল ইসলাম।

নিহত পিয়ারুল ইসলাম ওয়ার্কার্স পার্টির ২৫ নম্বর ওয়ার্ড কমিটির সদস্য ছিলেন। গত ৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় মহানগরীর রাণীনগর সিটি হাসপাতাল এলাকায় বাড়িতে ঢুকে পিয়ারুলকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ নিয়ে ছয়জনের নামে থানায় মামলা করেন নিহতের ভাই।

বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ জানান, গ্রেফতার হাসান আলী জয় এলাকায় কুখ্যাত ছিনতাইকারী হিসেবে পরিচিত। শুধু বোয়ালিয়া থানায় তার বিরুদ্ধে দশটি মামলা রয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে রাণীনগর দক্ষিণ সাধুর মোড় এলাকার একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছে পিয়ারুলকে হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো চাকুটিও পাওয়া গেছে। সেটি জব্দ করা হয়েছে।

ওসি জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহত পিয়ারুল ইসলামের সঙ্গে আসামি হাসান আলী জয়ের কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরেই কয়েকজন মিলে পিয়ারুলের বাড়িতে ঢুকে তাকে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর মো. শিমুল ও সোহানুর রহমান সোহান নামে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। প্রধান আসামি জয়কেও গ্রেফতার করা হলো। রোববার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পলাতক অন্যদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন