ঘুরতে বের হয়ে লাশ হলেন স্কুলছাত্রী
jugantor
ঘুরতে বের হয়ে লাশ হলেন স্কুলছাত্রী

  যুগান্তর প্রতিবেদন, টাঙ্গাইল  

৩০ নভেম্বর ২০২১, ২১:১১:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ঘুরতে বের হয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে স্কুলশিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-উত্তরবঙ্গ রেললাইনের উপজেলার ধলাটেংগর এলাকার ৭নং ব্রিজের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে ওই শিক্ষার্থী জয় নামে এক যুবকের সঙ্গে ফেসবুকের ম্যাসেঞ্জারে যোগাযোগ করে স্কুলে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়।

নিহত নুসরাত জাহান তোয়া এলেঙ্গা পৌরসভার বাসিন্দা নাসির উদ্দিনের মেয়ে। সে এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

জানা যায়, ফেসবুকে সোহাগ আল হাসান জয় নামের এক যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ হয় তোয়ার। পরে তার সঙ্গে মঙ্গলবার দেখা করা নিয়ে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে কথোপকথন হয়। পরে সকালে তারা দুইজন রিকশাযোগে বের হয়। এরপর ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের পাশে ধলাটেংগর রেললাইনে নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে স্কুলশিক্ষার্থী তোয়া নিহত হয়। এ সময় তার কাছে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ও পরীক্ষার সামগ্রী পাওয়া যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে তার প্রেমিক জয় পালিয়ে যায়।

নিহত স্কুলশিক্ষার্থীর মা শায়লা বেগম বলেন, ছোট মেয়েসহ তোয়াকে নিয়ে স্কুলে যাই। তোয়া তার বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার কথা বলে আগেই চলে যায়। পরে বিদ্যালয়ের শিক্ষকের মাধ্যমে মেয়ে নিহত হওয়ার খবর পাই।

তিনি আরও বলেন, মেয়ের সকাল ১০টা থেকে বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মেয়ের আর পরীক্ষা দেয়া হলো না। এ ঘটনায় জয় নামের ওই যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলে পরিবার জানায়।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেলস্টেশন মাস্টার (ইনচার্জ) মাছুম আলী খান জানান, ট্রেনে কাটা পড়ে স্কুলছাত্রী নিহতের বিষয়টি রেল পুলিশকে জানানো হয়েছে। তারা এসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ঘুরতে বের হয়ে লাশ হলেন স্কুলছাত্রী

 যুগান্তর প্রতিবেদন, টাঙ্গাইল 
৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৯:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ঘুরতে বের হয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে স্কুলশিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-উত্তরবঙ্গ রেললাইনের উপজেলার ধলাটেংগর এলাকার ৭নং ব্রিজের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে ওই শিক্ষার্থী জয় নামে এক যুবকের সঙ্গে ফেসবুকের ম্যাসেঞ্জারে যোগাযোগ করে স্কুলে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়।

নিহত নুসরাত জাহান তোয়া এলেঙ্গা পৌরসভার বাসিন্দা নাসির উদ্দিনের মেয়ে। সে এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

জানা যায়, ফেসবুকে সোহাগ আল হাসান জয় নামের এক যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ হয় তোয়ার। পরে তার সঙ্গে মঙ্গলবার দেখা করা নিয়ে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে কথোপকথন হয়। পরে সকালে তারা দুইজন রিকশাযোগে বের হয়। এরপর ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের পাশে ধলাটেংগর রেললাইনে নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে স্কুলশিক্ষার্থী তোয়া নিহত হয়। এ সময় তার কাছে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ও পরীক্ষার সামগ্রী পাওয়া যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে তার প্রেমিক জয় পালিয়ে যায়।

নিহত স্কুলশিক্ষার্থীর মা শায়লা বেগম বলেন, ছোট মেয়েসহ তোয়াকে নিয়ে স্কুলে যাই। তোয়া তার বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার কথা বলে আগেই চলে যায়। পরে বিদ্যালয়ের শিক্ষকের মাধ্যমে মেয়ে নিহত হওয়ার খবর পাই।

তিনি আরও বলেন, মেয়ের সকাল ১০টা থেকে বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মেয়ের আর পরীক্ষা দেয়া হলো না। এ ঘটনায় জয় নামের ওই যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলে পরিবার জানায়।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেলস্টেশন মাস্টার (ইনচার্জ) মাছুম আলী খান জানান, ট্রেনে কাটা পড়ে স্কুলছাত্রী নিহতের বিষয়টি রেল পুলিশকে জানানো হয়েছে। তারা এসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন