দুর্বৃত্তের আগুনে ব্যবসায়ীর মালামাল পুড়ে ছাই
jugantor
দুর্বৃত্তের আগুনে ব্যবসায়ীর মালামাল পুড়ে ছাই

  যুগান্তর প্রতিবেদক, নবাবগঞ্জ  

৩০ নভেম্বর ২০২১, ২২:২৩:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার নবাবগঞ্জের বান্দুরা ইউনিয়নের হযরতপুর গ্রামে দুর্বৃত্তের দেওয়া আগুনে ব্যবসায়ীর মালামাল পুড়ে গেছে।

সোমবার রাত ২টার সময় মো. হোসেন নামে এক পাদুকা ব্যবসায়ীর তিনটি ভ্যানে দুর্বৃত্তরা আগুন দিলে তিন লাখ টাকার অধিক মূল্যের বিভিন্ন কোম্পানির তৈরি জুতা, তিনটি ভ্যানসহ অন্যান্য মালামাল পুড়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হোসেন ওই গ্রামের মো. মিন্টু মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া।

প্রতিবেশীরা জানান, হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যদের চিৎকারে আমরা এগিয়ে আসি। সবার চেষ্টায় আগুন নেভানো গেলেও অল্প সময়ের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ার কারণে হোসেনের সব মালামাল আগুনে পুড়ে ভস্মীভূত হয়।

তারা আরও বলেন, দুর্বৃত্তরা হোসেনের ঘরের দরজার বাহিরের অংশে শিকল দিয়ে আটকে রাখে। যাতে হোসেন ও তার পরিবারে সদস্যরা ঘর থেকে বের হতে না পারেন। আগুন ছড়িয়ে পড়লে ঘরের জানালা ভেঙে বাহির হয়ে চিৎকার করলে আমরা সবাই এগিয়ে আসি।

নবাবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মিন্টু লস্কর বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মো. হোসেন এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচএম সালাউদ্দীন মনজু বলেন, বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা হবে। তিনি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ে যোগাযোগ করার কথা বলেন।

দুর্বৃত্তের আগুনে ব্যবসায়ীর মালামাল পুড়ে ছাই

 যুগান্তর প্রতিবেদক, নবাবগঞ্জ 
৩০ নভেম্বর ২০২১, ১০:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার নবাবগঞ্জের বান্দুরা ইউনিয়নের হযরতপুর গ্রামে দুর্বৃত্তের দেওয়া আগুনে ব্যবসায়ীর মালামাল পুড়ে গেছে।

সোমবার রাত ২টার সময় মো. হোসেন নামে এক পাদুকা ব্যবসায়ীর তিনটি ভ্যানে দুর্বৃত্তরা আগুন দিলে তিন লাখ টাকার অধিক মূল্যের বিভিন্ন কোম্পানির তৈরি জুতা, তিনটি ভ্যানসহ অন্যান্য মালামাল পুড়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হোসেন ওই গ্রামের  মো. মিন্টু মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া। 

প্রতিবেশীরা জানান, হোসেন ও তার পরিবারের সদস্যদের চিৎকারে আমরা এগিয়ে আসি। সবার চেষ্টায় আগুন নেভানো গেলেও অল্প সময়ের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ার কারণে হোসেনের সব মালামাল আগুনে পুড়ে ভস্মীভূত হয়। 

তারা আরও বলেন, দুর্বৃত্তরা হোসেনের ঘরের দরজার বাহিরের অংশে শিকল দিয়ে আটকে রাখে। যাতে হোসেন ও তার পরিবারে সদস্যরা ঘর থেকে বের হতে না পারেন। আগুন ছড়িয়ে পড়লে ঘরের জানালা ভেঙে বাহির হয়ে চিৎকার করলে আমরা সবাই এগিয়ে আসি। 

নবাবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মিন্টু লস্কর বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত  ব্যবসায়ী মো. হোসেন এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচএম সালাউদ্দীন মনজু  বলেন, বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা হবে। তিনি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ে যোগাযোগ করার কথা বলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন