শেখ রেহানার নামে ৫০০ শয্যার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হবে: শামীম ওসমান
jugantor
শেখ রেহানার নামে ৫০০ শয্যার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হবে: শামীম ওসমান

  ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

৩০ নভেম্বর ২০২১, ২২:৪৫:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুরের ৩০০ শয্যা হাসপাতাল ৫০০ শয্যা করে পূর্ণাঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তিত করা হবে। সেই মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাম হবে ‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ রেহানার নামে'।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আরিফা জহুরার বিদায় ও নবগত ইউএনওর সংর্বধনা অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার বিকালে উপজেলায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, বছর দুয়েক আগে আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একান্ত কথা বলেছিলাম। উনি বলেছেন, ‘তুমি কি চাও। অনেক রাজনীতিবিদ, অনেক কিছুই চায়’। আমি বলেছিলাম, ‘আমি কিছু চাই না। আমি জনগণের জন্য ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড চাই, বঙ্গবন্ধুর নামে নারায়ণগঞ্জে ইউনিভার্সিটি চাই, পঞ্চবটি ফ্লাইওভার চাই, ডিএনডি প্রকল্প চাই, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জন পুরাতন সড়কের উন্নয়ন চাই, মেডিকেল কলেজ-ইউনিভার্সিটি চাই’। আলহামদুলিল্লাহ, আমার সব প্রকল্পের কাজই চলছে। শুধু একটি বাকি ছিল, সেটি হলো মেডিকেল কলেজ।

শামীম ওসমান আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর পরিবারের নামে কিছু হলে অনুমতি নিতে হয়। শেখ রেহানা অনুমতি দেয় না বলে সারা বাংলাদেশের কোথাও কিছু করা হয়নি। উনি হিমালয় পবর্তের মতোই শোক ও কষ্ট বুকে চাপা দিয়ে বসে আছেন। কোনো কিছু করার অনুমতি দেন না।

প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘তুমি শেখ রেহানার কাছ থেকে অনুমতি নিতে পারলে আমি করে দিব’। কিছুক্ষণ পূর্বে একটি মেসেজ আসছে- আলহামদুলিল্লাহ সেটিও হয়ে গেছে। খানপুরের ৩০০ শয্যা হাসপাতাল ৫০০ শয্যা করে পূর্ণাঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তিত করা হবে। মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাম হবে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ রেহানার নামেই।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান সালমা ওসমান লিপি, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফা জহুরা, উপজেলার নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রিফাত ফেরদৌস, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির, গোগনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজর আলী প্রমুখ।

শেখ রেহানার নামে ৫০০ শয্যার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হবে: শামীম ওসমান

 ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
৩০ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুরের ৩০০ শয্যা হাসপাতাল ৫০০ শয্যা করে পূর্ণাঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তিত করা হবে। সেই মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাম হবে ‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ রেহানার নামে'। 

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আরিফা জহুরার বিদায় ও নবগত ইউএনওর সংর্বধনা অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার বিকালে উপজেলায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, বছর দুয়েক আগে আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একান্ত কথা বলেছিলাম। উনি বলেছেন, ‘তুমি কি চাও। অনেক রাজনীতিবিদ, অনেক কিছুই চায়’। আমি বলেছিলাম, ‘আমি কিছু চাই না। আমি জনগণের জন্য ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড চাই, বঙ্গবন্ধুর নামে নারায়ণগঞ্জে ইউনিভার্সিটি চাই, পঞ্চবটি ফ্লাইওভার চাই, ডিএনডি প্রকল্প চাই, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জন পুরাতন সড়কের উন্নয়ন চাই, মেডিকেল কলেজ-ইউনিভার্সিটি চাই’। আলহামদুলিল্লাহ, আমার সব প্রকল্পের কাজই চলছে। শুধু একটি বাকি ছিল, সেটি হলো মেডিকেল কলেজ।

শামীম ওসমান আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর পরিবারের নামে কিছু হলে অনুমতি নিতে হয়। শেখ রেহানা অনুমতি দেয় না বলে সারা বাংলাদেশের কোথাও কিছু করা হয়নি। উনি হিমালয় পবর্তের মতোই শোক ও কষ্ট বুকে চাপা দিয়ে বসে আছেন। কোনো কিছু করার অনুমতি দেন না। 

প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘তুমি শেখ রেহানার কাছ থেকে অনুমতি নিতে পারলে আমি করে দিব’। কিছুক্ষণ পূর্বে একটি মেসেজ আসছে- আলহামদুলিল্লাহ সেটিও হয়ে গেছে। খানপুরের ৩০০ শয্যা হাসপাতাল ৫০০ শয্যা করে পূর্ণাঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তিত করা হবে। মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাম হবে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ রেহানার নামেই।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান সালমা ওসমান লিপি, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা বিদায়ী নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফা জহুরা, উপজেলার নবাগত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রিফাত ফেরদৌস, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির, গোগনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজর আলী প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন