সিল মারতে বাধা দেওয়ায় হামলা, মেম্বার প্রার্থী গ্রেফতার
jugantor
সিল মারতে বাধা দেওয়ায় হামলা, মেম্বার প্রার্থী গ্রেফতার

  কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি  

০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২৮:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোট কেন্দ্রে সিল মারতে বাধা দেওয়ার জের ধরে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় মেম্বার প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

তোফাজ্জল হোসেন কোন্ডা ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

রোববার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের বাক্তারচর স্কুল কেন্দ্রে ইউপি নির্বাচন চলাকালে ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন অর্ধশতাধিক সন্ত্রাসী নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে নিজ প্রতীক মোরগ মার্কায় সিল মারার চেষ্টা করেন। সিল মারতে বাধা দেন অপর মেম্বার প্রার্থী দুদু মিয়ার পোলিং এজেন্ট হাবিবুর রহমান।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বেলা ৩টার দিকে তোফাজ্জলসহ অন্যরা হাবিবুর রহমান, তার দুই ছেলে ফাহিম রহমান ও তায়িন রহমানকে কেন্দ্র থেকে টেনেহিঁচড়ে বাইরে নিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় হাবিবকে রক্ষা করতে এগিয়ে যান হাবিবের ভাগিনা হৃদয় হোসেন ও ভাতিজা রনি। তাদের রাম দা দিয়ে মাথায় কুপিয়ে জখম করা হয়।

খবর পেয়ে হাবিবের স্ত্রী ও দুই ভাতিজা সেখানে পৌঁছলে তোফাজ্জলের লোকজন তাদেরও কুলি-ঘুষি মেরে আহত করে। আহতদের মধ্যে হৃদয় হোসেন ও রনির অবস্থা গুরুতর। হৃদয়ের মাথায় রামদার আঘাতে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। হৃদয়কে নিউরোসায়েন্স ইন্সটিটিউট হাসপাতাল ও রনিকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় হাবিবুর রহমান হাবিব দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় তোফাজ্জলসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে সোমবার রাতে বক্তারচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তোফাজ্জলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কোন্ডা ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ফারুক চৌধুরী বলেন, সিল মারতে বাধা দেওয়ায় তোফাজ্জল সহযোগীদের নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনকে কুপিয়েছে। এ ঘটনার কিছু সময় আগে আমি ওই কেন্দ্রে গিয়ে তোফাজ্জলের অনিয়মের প্রতিবাদ করি। এতে সে শত শত লোকের সামনে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় আমি একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি।

দক্ষিণ থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনায় অভিযোগ পাওয়ার পর মেম্বার প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিল মারতে বাধা দেওয়ায় হামলা, মেম্বার প্রার্থী গ্রেফতার

 কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি 
০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোট কেন্দ্রে সিল মারতে বাধা দেওয়ার জের ধরে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় মেম্বার প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

তোফাজ্জল হোসেন কোন্ডা ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

রোববার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের বাক্তারচর স্কুল কেন্দ্রে ইউপি নির্বাচন চলাকালে ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেন অর্ধশতাধিক সন্ত্রাসী নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে নিজ প্রতীক মোরগ মার্কায় সিল মারার চেষ্টা করেন। সিল মারতে বাধা দেন অপর মেম্বার প্রার্থী দুদু মিয়ার পোলিং এজেন্ট হাবিবুর রহমান।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বেলা ৩টার দিকে তোফাজ্জলসহ অন্যরা হাবিবুর রহমান, তার দুই ছেলে ফাহিম রহমান ও তায়িন রহমানকে কেন্দ্র থেকে টেনেহিঁচড়ে বাইরে নিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় হাবিবকে রক্ষা করতে এগিয়ে যান হাবিবের ভাগিনা হৃদয় হোসেন ও ভাতিজা রনি। তাদের রাম দা দিয়ে মাথায় কুপিয়ে জখম করা হয়।

খবর পেয়ে হাবিবের স্ত্রী ও দুই ভাতিজা সেখানে পৌঁছলে তোফাজ্জলের লোকজন তাদেরও কুলি-ঘুষি মেরে আহত করে। আহতদের মধ্যে হৃদয় হোসেন ও রনির অবস্থা গুরুতর। হৃদয়ের মাথায় রামদার আঘাতে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। হৃদয়কে নিউরোসায়েন্স ইন্সটিটিউট হাসপাতাল ও রনিকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় হাবিবুর রহমান হাবিব দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় তোফাজ্জলসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে সোমবার রাতে বক্তারচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তোফাজ্জলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কোন্ডা ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ফারুক চৌধুরী বলেন, সিল মারতে বাধা দেওয়ায় তোফাজ্জল সহযোগীদের নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনকে কুপিয়েছে। এ ঘটনার কিছু সময় আগে আমি ওই কেন্দ্রে গিয়ে তোফাজ্জলের অনিয়মের প্রতিবাদ করি। এতে সে শত শত লোকের সামনে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় আমি একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি।

দক্ষিণ থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনায় অভিযোগ পাওয়ার পর মেম্বার প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন