মহাসড়কে পড়ে ছিলেন সংজ্ঞাহীন বৃদ্ধা, হাসপাতালে ভর্তি করল পুলিশ
jugantor
মহাসড়কে পড়ে ছিলেন সংজ্ঞাহীন বৃদ্ধা, হাসপাতালে ভর্তি করল পুলিশ

  নাটোর প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:৫২:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত সন্দেহে বাকপ্রতিবন্ধী অসুস্থ বৃদ্ধা নারীকে কেউ ছুঁয়ে দেখেনি। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নাটোর শহরের হরিশপুরে ঢাকা-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়েছিলেন তিনি।

অসহায় বৃদ্ধাকে দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমালেও বিবেক জাগ্রত হয়নি কারও। কেউ তাকে হাসপাতালে নেওয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি। তবে এ ঘটনা জানতে পেরে ঘটনাস্থলে যান নাটোর সদর থানা পুলিশের সদস্যরা।

পরে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর রহমান ও পুলিশ সদস্যদের সহায়তায় বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নাটোর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওই বৃদ্ধা করোনায় আক্রান্ত মনে করে ভয়ে তার সহায়তায় কেউই এগিয়ে যাননি।

ওসি মনসুর রহমান জানান, সংজ্ঞাহীন অবস্থায় এক বৃদ্ধা (৬৫) শহরের হরিশপুরে রাস্তার পাশে পড়েছিলেন। তিনি অনেকক্ষণ সেখানে পড়ে থাকলেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে কেউই তার কাছে ঘেঁষেননি। একপর‌্যায়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে তিনি পুলিশের উদ্ধারকারী দল নিয়ে তৎক্ষণাৎ বৃদ্ধা নারীকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এখন পর্যন্ত বৃদ্ধার নাম-ঠিকানা জানা সম্ভব হয়নি। তার পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। ওই নারীকে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

ওসি মনসুর রহমান বলেন, করোনা মোকাবেলায় মানুষের বিবেক জাগ্রত হওয়া দরকার। মানবিকতা বিবর্জিত হলে মহামারি সংকট আরও ঘনীভূত হবে। বৃদ্ধার নাম ও ঠিকানা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, ওই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে বৃদ্ধার করোনার উপসর্গ নেই বলে মনে হলেও চিকিৎসার প্রয়োজনে তার করোনা পরীক্ষা করা হবে।

মহাসড়কে পড়ে ছিলেন সংজ্ঞাহীন বৃদ্ধা, হাসপাতালে ভর্তি করল পুলিশ

 নাটোর প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৫২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত সন্দেহে বাকপ্রতিবন্ধী অসুস্থ বৃদ্ধা নারীকে কেউ ছুঁয়ে দেখেনি। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নাটোর শহরের হরিশপুরে ঢাকা-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়েছিলেন তিনি।

অসহায় বৃদ্ধাকে দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমালেও বিবেক জাগ্রত হয়নি কারও। কেউ তাকে হাসপাতালে নেওয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি। তবে এ ঘটনা জানতে পেরে ঘটনাস্থলে যান নাটোর সদর থানা পুলিশের সদস্যরা।

পরে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর রহমান ও পুলিশ সদস্যদের সহায়তায় বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নাটোর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওই বৃদ্ধা করোনায় আক্রান্ত মনে করে ভয়ে তার সহায়তায় কেউই এগিয়ে যাননি।

ওসি মনসুর রহমান জানান, সংজ্ঞাহীন অবস্থায় এক বৃদ্ধা (৬৫) শহরের হরিশপুরে রাস্তার পাশে পড়েছিলেন। তিনি অনেকক্ষণ সেখানে পড়ে থাকলেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে কেউই তার কাছে ঘেঁষেননি। একপর‌্যায়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে তিনি পুলিশের উদ্ধারকারী দল নিয়ে তৎক্ষণাৎ বৃদ্ধা নারীকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এখন পর্যন্ত  বৃদ্ধার নাম-ঠিকানা জানা সম্ভব হয়নি। তার পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। ওই নারীকে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

ওসি মনসুর রহমান বলেন, করোনা মোকাবেলায় মানুষের বিবেক জাগ্রত হওয়া দরকার। মানবিকতা বিবর্জিত হলে মহামারি সংকট আরও ঘনীভূত হবে। বৃদ্ধার নাম ও ঠিকানা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। 

নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, ওই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে বৃদ্ধার করোনার উপসর্গ নেই বলে মনে হলেও চিকিৎসার প্রয়োজনে তার করোনা পরীক্ষা করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন