নেত্রকোনায় বাকবিতণ্ডার পর ভাইয়ের ঘুষিতে ভাই খুন
jugantor
নেত্রকোনায় বাকবিতণ্ডার পর ভাইয়ের ঘুষিতে ভাই খুন

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৪:০৭:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

লাশ উদ্ধার

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় মাঠে ধান শুকানো কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডার পর চাচাতো ভাইয়ের ঘুষিতে মো. আবুল কাশেম খান (৬৮) নামে এক কৃষক খুনের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে কেন্দুয়া উপজেলার চিরাং ইউনিয়নের ছিলিমপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবুল কাশেম ছিলিমপুর গ্রামের বাসিন্দা। আর অভিযুক্ত চাচাতো ভাই হলেন ছাদেক মিয়া (৬২)। তিনি ছিলিমপুর গ্রামের মৃত আবদুর রহিমের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সকালে আবুল কাশেম খান তাদের বাড়ির সামনে চাচাতো ভাই ছাদেক মিয়ার খলায় আমন ধান রোদে শুকাতে দেন। এ সময় ছাদেক মিয়া তাকে বাধা দেন। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ছাদেক মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে বড় ভাই আবুল কাশেমকে বুকে, মুখে ও মাথায় বেশ কয়েকটি ঘুষি ও লাথি দেন। এ সময় আবুল কাশেম মাটিতে ঢলে পড়েন।

স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে আবুল কাশেমের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে উভয় পরিবারের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এলাকাবাসীর সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ জুবায়ের গালিব বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই আবুল কাশেম খান নামে ওই ব্যক্তি মারা যান।

এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার ওসি কাজী শাহনেওয়াজ মোবাইল ফোনে বলেন, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে আছে। ঘটনায় জড়িতদের আটক করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

নেত্রকোনায় বাকবিতণ্ডার পর ভাইয়ের ঘুষিতে ভাই খুন

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লাশ উদ্ধার
ফাইল ছবি

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় মাঠে ধান শুকানো কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডার পর চাচাতো ভাইয়ের ঘুষিতে মো. আবুল কাশেম খান (৬৮) নামে এক কৃষক খুনের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে কেন্দুয়া উপজেলার চিরাং ইউনিয়নের ছিলিমপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবুল কাশেম ছিলিমপুর গ্রামের বাসিন্দা। আর অভিযুক্ত চাচাতো ভাই হলেন ছাদেক মিয়া (৬২)। তিনি ছিলিমপুর গ্রামের মৃত আবদুর রহিমের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সকালে আবুল কাশেম খান তাদের বাড়ির সামনে চাচাতো ভাই ছাদেক মিয়ার খলায় আমন ধান রোদে শুকাতে দেন। এ সময় ছাদেক মিয়া তাকে বাধা দেন। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ছাদেক মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে বড় ভাই আবুল কাশেমকে বুকে, মুখে ও মাথায় বেশ কয়েকটি ঘুষি ও লাথি দেন। এ সময় আবুল কাশেম মাটিতে ঢলে পড়েন।

স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে আবুল কাশেমের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে উভয় পরিবারের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে এলাকাবাসীর সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ জুবায়ের গালিব বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই আবুল কাশেম খান নামে ওই ব্যক্তি মারা যান।

এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার ওসি কাজী শাহনেওয়াজ মোবাইল ফোনে বলেন, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে আছে। ঘটনায় জড়িতদের আটক করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন