অস্ত্র বিক্রি করতে এসে ধরা বিএনপি নেতা
jugantor
অস্ত্র বিক্রি করতে এসে ধরা বিএনপি নেতা

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩:৪৮:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থেকে নগরীতে অস্ত্র বিক্রি করতে এসে ধরা পড়েছেন এক বিএনপি নেতা। ক্রেতা সেজে অস্ত্র কেনার ফাঁদ পেতে কৌশলে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার রাতে নগরীর ডবলমুরিং থানার দেওয়ানহাট ডিটি রোডের একটি হোটেল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার পুলিশ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, গ্রেফতার লোকমান হোসেন (৪১) চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চন্দ্রঘোনা এলাকার বাসিন্দা। তিনি বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তার বিরুদ্ধে একাধিক নাশকতা মামলা রয়েছে।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের বন্দর জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নোবেল চাকমা জানান, লোকমানের কাছ থেকে একটি ভিজিটিং কার্ড পাওয়া গেছে। তাতে তিনি জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম দলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বলে উল্লেখ আছে। এছাড়া তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ছিলেন। তার বিরুদ্ধে আগে থেকে নাশকতার ৪টি মামলা আছে। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় নতুন করে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

তিনি বলেন, লোকমান অস্ত্র বেচাকেনার সঙ্গে জড়িত এমন গোপন খবর ছিল আমাদের কাছে। তাই তাকে ধরতে আমরা অস্ত্রের ক্রেতা সেজে যোগাযোগ করি। তিনি ফাঁদে পা দিয়ে নগরীতে এসে একটি হোটেলে অবস্থান নেন। এরপর সেখানে অভিযান চালিয়ে তাকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করা হয়। লোকমানের কাছ থেকে যে পিস্তলটি উদ্ধার করা হয়েছে সেটি বিদেশি। তবে কোথায় তৈরি সেটি পিস্তলে লেখা নেই। পিস্তলের সঙ্গে একটি খালি ম্যাগজিনও উদ্ধার করা হয়েছে। তার সঙ্গে অস্ত্র বেচাকেনায় আরও কেউ জড়িত আছে কিনা, তা তদন্ত করা হচ্ছে।

অস্ত্র বিক্রি করতে এসে ধরা বিএনপি নেতা

 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থেকে নগরীতে অস্ত্র বিক্রি করতে এসে ধরা পড়েছেন এক বিএনপি নেতা। ক্রেতা সেজে অস্ত্র কেনার ফাঁদ পেতে কৌশলে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার রাতে নগরীর ডবলমুরিং থানার দেওয়ানহাট ডিটি রোডের একটি হোটেল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার পুলিশ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, গ্রেফতার লোকমান হোসেন (৪১) চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চন্দ্রঘোনা এলাকার বাসিন্দা। তিনি বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তার বিরুদ্ধে একাধিক নাশকতা মামলা রয়েছে।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের বন্দর জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নোবেল চাকমা জানান, লোকমানের কাছ থেকে একটি ভিজিটিং কার্ড পাওয়া গেছে। তাতে তিনি জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম দলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বলে উল্লেখ আছে। এছাড়া তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ছিলেন। তার বিরুদ্ধে আগে থেকে নাশকতার ৪টি মামলা আছে। অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় নতুন করে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

তিনি বলেন, লোকমান অস্ত্র বেচাকেনার সঙ্গে জড়িত এমন গোপন খবর ছিল আমাদের কাছে। তাই তাকে ধরতে আমরা অস্ত্রের ক্রেতা সেজে যোগাযোগ করি। তিনি ফাঁদে পা দিয়ে নগরীতে এসে একটি হোটেলে অবস্থান নেন। এরপর সেখানে অভিযান চালিয়ে তাকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করা হয়। লোকমানের কাছ থেকে যে পিস্তলটি উদ্ধার করা হয়েছে সেটি বিদেশি। তবে কোথায় তৈরি সেটি পিস্তলে লেখা নেই। পিস্তলের সঙ্গে একটি খালি ম্যাগজিনও উদ্ধার করা হয়েছে। তার সঙ্গে অস্ত্র বেচাকেনায় আরও কেউ জড়িত আছে কিনা, তা তদন্ত করা হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন