ফাঁসির আসামির হাতে নৌকা, এক ঘণ্টা পর পরিবর্তন
jugantor
ফাঁসির আসামির হাতে নৌকা, এক ঘণ্টা পর পরিবর্তন

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:২৬:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার সাভার উপজেলার আমিনবাজার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। তিনি ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি। তবে ঘণ্টাখানেকের মাথায় সেটি সংশোধন করে মো. রকিব আহম্মেদ নামে একজনকে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী মনোনীত করা হয়।

তবে সেটি ভুলবশত হয়েছে বলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়। শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মনোনীত প্রার্থীর পরিবর্তে ভুল নাম লিপিবদ্ধ হওয়ায় তা সংশোধন করা হয়েছে।

ভুলবশত মনোনয়ন পাওয়া সেই বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন আমিনবাজারের বড়দেশী গ্রামে ডাকাত আখ্যা দিয়ে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি। ২ ডিসেম্বর আলোচিত এ হত্যা মামলার রায়ে আনোয়ার হোসেনসহ ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। আজীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয় ১৯ আসামিকে। ২০১১ সালে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছিল।

শনিবার রাত ১০টা ৫ মিনিটে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত ই–মেইলে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার বিকাল ৪টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চারটি পৌরসভা এবং পঞ্চম ধাপের ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের ইউপি নির্বাচনে মনোনীত প্রার্থীদের নামের তালিকা দেওয়া হয়। ওই তালিকায় সাভারের আমিনবাজার ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনের নাম দেখা যায়।

এক ঘণ্টা পর ১১টা ৬ মিনিটে অপর এক মেইলে আনোয়ার হোসেনের পরিবর্তে মো. রকিব আহম্মেদের নাম উল্লেখ করা হয়। রাত ১১টা ২৫ মিনিটে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী তালিকা (সংশোধিত) সংক্রান্ত অপর এক ই–মেইলে বলা হয়- মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মনোনীত প্রার্থীদের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকায় অসাবধানতাবশত একটি ইউপির চেয়ারম্যান পদে মনোনীত প্রার্থীর পরিবর্তে ভুল নাম লিপিবদ্ধ হয়। ওই ই–মেইলে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মো. রকিব আহম্মেদকে উল্লেখ করা হয়েছে।

ফাঁসির আসামির হাতে নৌকা, এক ঘণ্টা পর পরিবর্তন

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার সাভার উপজেলার আমিনবাজার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছিল আওয়ামী লীগ।  তিনি ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি। তবে ঘণ্টাখানেকের মাথায় সেটি সংশোধন করে মো. রকিব আহম্মেদ নামে একজনকে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী মনোনীত করা হয়।

তবে সেটি ভুলবশত হয়েছে বলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জানানো হয়। শনিবার রাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মনোনীত প্রার্থীর পরিবর্তে ভুল নাম লিপিবদ্ধ হওয়ায় তা সংশোধন করা হয়েছে।

ভুলবশত মনোনয়ন পাওয়া সেই বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন আমিনবাজারের বড়দেশী গ্রামে ডাকাত আখ্যা দিয়ে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি। ২ ডিসেম্বর আলোচিত এ হত্যা মামলার রায়ে আনোয়ার হোসেনসহ ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। আজীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয় ১৯ আসামিকে। ২০১১ সালে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছিল।

শনিবার রাত ১০টা ৫ মিনিটে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত ই–মেইলে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার বিকাল ৪টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চারটি পৌরসভা এবং পঞ্চম ধাপের ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের ইউপি নির্বাচনে মনোনীত প্রার্থীদের নামের তালিকা দেওয়া হয়। ওই তালিকায় সাভারের আমিনবাজার ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনের নাম দেখা যায়।

এক ঘণ্টা পর ১১টা ৬ মিনিটে অপর এক মেইলে আনোয়ার হোসেনের পরিবর্তে মো. রকিব আহম্মেদের নাম উল্লেখ করা হয়। রাত ১১টা ২৫ মিনিটে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী তালিকা (সংশোধিত) সংক্রান্ত অপর এক ই–মেইলে বলা হয়- মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মনোনীত প্রার্থীদের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকায় অসাবধানতাবশত একটি ইউপির চেয়ারম্যান পদে মনোনীত প্রার্থীর পরিবর্তে ভুল নাম লিপিবদ্ধ হয়। ওই ই–মেইলে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মো. রকিব আহম্মেদকে উল্লেখ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন