এইচএসসির হলে ১৬ পরীক্ষার্থীর কাছে বই!
jugantor
এইচএসসির হলে ১৬ পরীক্ষার্থীর কাছে বই!

  যুগান্তর প্রতিবেদন ও বাউফল প্রতিনিধি  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:৪৩:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

এইচএসসি পরীক্ষা চলাকালে ১৬ জনকে বইসহ হাতেনাতে আটক করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। কিন্তু কেন্দ্র সচিব ১০ জনকে বহিষ্কার করেছেন। অনৈতিক সুবিধা নিয়ে ৬ জনকে ছেড়ে দেওয়ায় সাধারণ পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়াও পরীক্ষা কেন্দ্রে স্মার্টফোন ব্যবহার করায় এক শিক্ষককে ৫ হাজার জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কাছিপাড়া আবদুর রশিদ (চুন্নু) মিয়া ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রোববার ওই কেন্দ্রে বিএম (বিজনেস ম্যানেজমেন্ট) শাখার পরীক্ষা চলাকালে ১৬ জন পরীক্ষার্থীকে হাতেনাতে ধরেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও বাউফলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. বায়েজিদুর রহমান। এ সময় তিনি ১৬ জন পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব ও কাছিপাড়া আবদুর রশিদ (চুন্নু) মিয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ারের কাছে হস্তাস্তর করেন।

একই সময় একটি কক্ষের পরিদর্শক পাকডাল সফদার আলী মিয়াজী বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের প্রভাষক মো. মহসীন আকনের কাছে স্মার্টফোন পাওয়ায় তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেন্দ্র থেকে ফিরে আসার পর ওই ১৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১০ জনকে বহিষ্কার করেন কেন্দ্র সচিব। আর ৬ জনকে তিনি অনৈতিক সুবিধা নিয়ে ছেড়ে দেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন পরীক্ষার্থী ও অভিভাবক বলেন, যারা পরীক্ষা কেন্দ্রে বই নিয়ে এসেছে তাদের সবাইকে শাস্তি না দিয়ে সচিব ছেড়ে দিয়েছেন। এটা মেনে নেওয়া যায় না।

কেন্দ্র সচিব ও অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার ১০ জনকে বহিষ্কার করার বিষয়টি স্বীকার করলেও ৬ জনের প্রশ্নে তিনি কোনো কথা বলেননি।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. বায়েজিদুর রহমান বলেন, ১৬ জন পরীক্ষার্থীর কাছে বই পেয়েছি। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দায়িত্ব সচিবের। কিন্তু ৬ জনের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হলো না সেটার খোঁজখবর নিচ্ছি।

এইচএসসির হলে ১৬ পরীক্ষার্থীর কাছে বই!

 যুগান্তর প্রতিবেদন ও বাউফল প্রতিনিধি 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

এইচএসসি পরীক্ষা চলাকালে ১৬ জনকে বইসহ হাতেনাতে আটক করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। কিন্তু কেন্দ্র সচিব ১০ জনকে বহিষ্কার করেছেন। অনৈতিক সুবিধা নিয়ে ৬ জনকে ছেড়ে দেওয়ায় সাধারণ পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়াও পরীক্ষা কেন্দ্রে স্মার্টফোন ব্যবহার করায় এক শিক্ষককে ৫ হাজার জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কাছিপাড়া আবদুর রশিদ (চুন্নু) মিয়া ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রোববার ওই কেন্দ্রে বিএম (বিজনেস ম্যানেজমেন্ট) শাখার পরীক্ষা চলাকালে ১৬ জন পরীক্ষার্থীকে হাতেনাতে ধরেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও বাউফলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. বায়েজিদুর রহমান। এ সময় তিনি ১৬ জন পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব ও কাছিপাড়া আবদুর রশিদ (চুন্নু) মিয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ারের কাছে হস্তাস্তর করেন।

একই সময় একটি কক্ষের পরিদর্শক পাকডাল সফদার আলী মিয়াজী বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের প্রভাষক মো. মহসীন আকনের কাছে স্মার্টফোন পাওয়ায় তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেন্দ্র থেকে ফিরে আসার পর ওই ১৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১০ জনকে বহিষ্কার করেন কেন্দ্র সচিব। আর ৬ জনকে তিনি অনৈতিক সুবিধা নিয়ে ছেড়ে দেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন পরীক্ষার্থী ও অভিভাবক বলেন, যারা পরীক্ষা কেন্দ্রে বই নিয়ে এসেছে তাদের সবাইকে শাস্তি না দিয়ে সচিব ছেড়ে দিয়েছেন। এটা মেনে নেওয়া যায় না।

কেন্দ্র সচিব ও অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার ১০ জনকে বহিষ্কার করার বিষয়টি স্বীকার করলেও ৬ জনের প্রশ্নে তিনি কোনো কথা বলেননি।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি)  মো. বায়েজিদুর রহমান বলেন, ১৬ জন পরীক্ষার্থীর কাছে বই পেয়েছি। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দায়িত্ব সচিবের। কিন্তু ৬ জনের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হলো না সেটার খোঁজখবর নিচ্ছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন