বরগুনায় জাওয়াদের প্রভাবে বৃষ্টি, আতঙ্কে জেলে পরিবার
jugantor
বরগুনায় জাওয়াদের প্রভাবে বৃষ্টি, আতঙ্কে জেলে পরিবার

  যুগান্তর প্রতিবেদন ও বরগুনা জেলা প্রতিনিধি  

০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:০৫:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে রোববার হতে বরগুনায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হলেও সোমবার সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। বৃষ্টিতে বেশি ক্ষতি হয়েছে কৃষক ও ইটভাটার মালিকদের।

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতি জানিয়েছে, জাওয়াদের কারণে সাগর উত্তাল থাকায় বঙ্গোপসাগরের জেলেরা কয়েকশ মাছ ধরার ট্রলার নিরাপদে থাকলেও কিছু ট্রলার সাগরে থাকায় দুশ্চিন্তায় রয়েছে জেলে পরিবার।

জানা গেছে, সোমবার সকাল থেকে আবহাওয়া খারাপ হতে থাকে। বঙ্গোপসাগর কিছুটা উত্তাল থাকায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বরগুনা জেলা প্রশাসন।

স্থানীয় ট্রলারের অনেক জেলে গভীর সাগরে থাকায় উপকূলে জেলেপল্লীর পরিবারগুলোর মাঝে দুশ্চিন্তা বাড়ছে। তবে ইতোমধ্যে শত শত মাছ ধরার ট্রলার সুন্দরবনের খালসহ শরণখোলা, রায়েন্দা, মোংলা ও বরগুনার পাথরঘাটা প্রধান মৎস্য অবতরণকেন্দ্রে ফিরে এসেছে। কিছু ট্রলারের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। আবহাওয়া অধিদপ্তর ৩ নম্বর সতর্কসংকেত ঘোষণা করেছে।

নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বসতবাড়ি তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। জাওয়াদের প্রভাবে নদনদীতে পানির উচ্চতা বেড়েছে। বেড়িবাঁধের বাইরে অবস্থানরত পরিবারগুলো আতঙ্কে আছেন।

বাংলাদেশ মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, আমরা যাদের মোবাইলে পেয়েছি, তাদের নিরাপদে আসতে বলেছি। জেলে পরিবারগুলোর মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ বলেন, আমাদের সব রকমের প্রস্তুতি নেওয়া আছে। আবহাওয়া পরিস্থিতির ওপর সতর্ক দৃষ্টি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজন হলে দ্রুত ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রগুলো খুলে দিতে প্রস্তুত থাকতেও বলা হয়েছে। সরকারের যথাযথ নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করব আমরা।

বরগুনায় জাওয়াদের প্রভাবে বৃষ্টি, আতঙ্কে জেলে পরিবার

 যুগান্তর প্রতিবেদন ও বরগুনা জেলা প্রতিনিধি 
০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:০৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে রোববার হতে বরগুনায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হলেও সোমবার সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। বৃষ্টিতে বেশি ক্ষতি হয়েছে কৃষক ও ইটভাটার মালিকদের। 

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতি জানিয়েছে, জাওয়াদের কারণে সাগর উত্তাল থাকায় বঙ্গোপসাগরের জেলেরা কয়েকশ মাছ ধরার ট্রলার নিরাপদে থাকলেও কিছু ট্রলার সাগরে থাকায় দুশ্চিন্তায় রয়েছে জেলে পরিবার।

জানা গেছে, সোমবার সকাল থেকে আবহাওয়া খারাপ হতে থাকে। বঙ্গোপসাগর কিছুটা উত্তাল থাকায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বরগুনা জেলা প্রশাসন।

স্থানীয় ট্রলারের অনেক জেলে গভীর সাগরে থাকায় উপকূলে জেলেপল্লীর পরিবারগুলোর মাঝে দুশ্চিন্তা বাড়ছে। তবে ইতোমধ্যে শত শত মাছ ধরার ট্রলার সুন্দরবনের খালসহ শরণখোলা, রায়েন্দা, মোংলা ও বরগুনার পাথরঘাটা প্রধান মৎস্য অবতরণকেন্দ্রে ফিরে এসেছে। কিছু ট্রলারের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। আবহাওয়া অধিদপ্তর ৩ নম্বর সতর্কসংকেত ঘোষণা করেছে।

নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বসতবাড়ি তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। জাওয়াদের প্রভাবে নদনদীতে পানির উচ্চতা বেড়েছে। বেড়িবাঁধের বাইরে অবস্থানরত পরিবারগুলো আতঙ্কে আছেন। 

বাংলাদেশ মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, আমরা যাদের মোবাইলে পেয়েছি, তাদের নিরাপদে আসতে বলেছি। জেলে পরিবারগুলোর মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) হোসাইন মুহাম্মদ আল মুজাহিদ বলেন, আমাদের সব রকমের প্রস্তুতি নেওয়া আছে। আবহাওয়া পরিস্থিতির ওপর সতর্ক দৃষ্টি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজন হলে দ্রুত ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রগুলো খুলে দিতে প্রস্তুত থাকতেও বলা হয়েছে। সরকারের যথাযথ নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করব আমরা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন