রংপুর মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি সুমন গ্রেফতার
jugantor
রংপুর মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি সুমন গ্রেফতার

  রংপুর ব্যুরো  

০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২০:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুরে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের মহানগর কমিটির সভাপতি নুর হাসান সুমনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ের বিএনপি কার্যালয় এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

নুর হোসেন সুমন রংপুর শহরের শাপলা চত্বর হাজীপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী আফজাল হোসেনের ছেলে। তিনি রংপুর জেলা ছাত্রদলের সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সম্পাদকসহ তৎকালীন শহর ছাত্রদলের বিভিন্ন পদে ছিলেন। এর আগেও বিভিন্ন মামলায় কারাবরণ করেছেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ মুকুট ও সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান চৌধুরী রাজিব। তারা তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, বিনা কারণে বাকশালী কায়দায় দলের সভাপতিকে গ্রেফতার করেছে আওয়ামী পুলিশ লীগ। এভাবে ছাত্রনেতাদের গ্রেফতার করে আন্দোলন-সংগ্রাম বন্ধ করা যাবে না। দ্রুত দলের মহানগর সভাপতিকে মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করবে বলে তারা হুঁশিয়ারি দেন।

মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা জানান, সোমবার বিকালে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মামুন খানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা রংপুরে আসেন। এ সময় তারা নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ে বিএনপি কার্যালয়ে আসেন। পরে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

এ সময় মহানগর যুবদলের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহফুজ উন নবী ডন, সাংগঠনিক সম্পদক জহির আলম নয়ন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মনিরুজ্জামান হিজবুল, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহবুব হোসেন সুমন, সাধারণ সম্পাদক সম্পাদক শরীফ নেওয়াজ জোহা, মহানগর সভাপতি নুর হাসান সুমন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ মুকুট, সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া ইসলাম জিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান চৌধুরী রাজিবসহ মহানগর ছাত্রদলের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে সন্ধ্যায় মহানগর ছাত্রদল সভাপতি নুর হাসান সুমন সন্ধ্যায় বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে বের হয়ে গুপ্তপাড়া দিকে যাওয়ার পথে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় তার সঙ্গে আরও দুই-তিনজন নেতা থাকলেও তাদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। সুমনের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে নিয়ে সু-চিকিৎসার দাবিতে ছাত্রদল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। এ কর্মসূচি পালনের দিনে পুলিশের সাথে ছাত্রদল সভাপতি সুমনের বাগবিতণ্ডা হয় বলে দাবি সংগঠনটির নেতাকর্মীদের। তাদের অভিযোগ, হয়রানি করতেই তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরপিএমপি কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী জানান, নুর হাসান সুমনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। এ কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে দায়ের হওয়া আরও অন্তত ৭-৮টি মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

রংপুর মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি সুমন গ্রেফতার

 রংপুর ব্যুরো 
০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুরে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের মহানগর কমিটির সভাপতি নুর হাসান সুমনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ের বিএনপি কার্যালয় এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

নুর হোসেন সুমন রংপুর শহরের শাপলা চত্বর হাজীপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী আফজাল হোসেনের ছেলে। তিনি রংপুর জেলা ছাত্রদলের সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সম্পাদকসহ তৎকালীন শহর ছাত্রদলের বিভিন্ন পদে ছিলেন। এর আগেও বিভিন্ন মামলায় কারাবরণ করেছেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ মুকুট ও সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান চৌধুরী রাজিব। তারা তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, বিনা কারণে বাকশালী কায়দায় দলের সভাপতিকে গ্রেফতার করেছে আওয়ামী পুলিশ লীগ। এভাবে ছাত্রনেতাদের গ্রেফতার করে আন্দোলন-সংগ্রাম বন্ধ করা যাবে না। দ্রুত দলের মহানগর সভাপতিকে মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করবে বলে তারা হুঁশিয়ারি দেন।

মহানগর ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা জানান, সোমবার বিকালে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মামুন খানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা রংপুরে আসেন। এ সময় তারা নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ে বিএনপি কার্যালয়ে আসেন। পরে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

এ সময় মহানগর যুবদলের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহফুজ উন নবী ডন, সাংগঠনিক সম্পদক জহির আলম নয়ন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মনিরুজ্জামান হিজবুল, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহবুব হোসেন সুমন, সাধারণ সম্পাদক সম্পাদক শরীফ নেওয়াজ জোহা, মহানগর সভাপতি নুর হাসান সুমন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ মুকুট, সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া ইসলাম জিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান চৌধুরী রাজিবসহ মহানগর ছাত্রদলের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে সন্ধ্যায় মহানগর ছাত্রদল সভাপতি নুর হাসান সুমন সন্ধ্যায় বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে বের হয়ে গুপ্তপাড়া দিকে যাওয়ার পথে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় তার সঙ্গে আরও দুই-তিনজন নেতা থাকলেও তাদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। সুমনের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে নিয়ে সু-চিকিৎসার দাবিতে ছাত্রদল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। এ কর্মসূচি পালনের দিনে পুলিশের সাথে ছাত্রদল সভাপতি সুমনের বাগবিতণ্ডা হয় বলে দাবি সংগঠনটির নেতাকর্মীদের। তাদের অভিযোগ, হয়রানি করতেই তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরপিএমপি কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী জানান, নুর হাসান সুমনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। এ কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে দায়ের হওয়া আরও অন্তত ৭-৮টি মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন