নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় সেই ট্রাকচালক গ্রেফতার
jugantor
নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় সেই ট্রাকচালক গ্রেফতার

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৫৪:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

গ্রেফতার

নোয়াখালীর সদর উপজেলার সোনাপুর বাসস্ট্যান্ডে ট্রাকচাপায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) শিক্ষার্থী অজয় মজুমদার (২২) নিহতের ঘটনায় অভিযুক্ত চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় দুর্ঘটনাকবলিত ওই ট্রাকটি জব্দ করা হয়।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে বেগমগঞ্জ উপজেলার সেতুভাঙা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গ্রেফতার ট্রাকচালকের নাম মো. মামুন হোসেন (৫০)। তিনি চুয়াডাঙ্গার পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাতগাড়ী এলাকার মৃত জাবেদ আলীর ছেলে।

এর আগে দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে সহপাঠীর মৃত্যুর ঘটনায় সোনাপুর জিরো পয়েন্টে বিক্ষোভ করেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা সহপাঠী মো. মামুন হোসেনের মৃত্যুর প্রতিবাদ এবং জড়িতদের দ্রুত বিচার দাবি করে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’সহ বিভিন্ন স্লোগান দেন।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় সড়ক আইনে মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে সোনাপুর বাসস্ট্যান্ডে বাস থেকে নামার সঙ্গে সঙ্গে ট্রাকচাপায় নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী অজয়ের মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাইজদী শহরের গুডহিল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অজয় মজুমদার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ ব্যাচের ইনফরমেশন সায়েন্স ও লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র এবং সুবর্ণচর উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের বাদল চন্দ্র মজুমদারের ছেলে।

নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় সেই ট্রাকচালক গ্রেফতার

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৫৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গ্রেফতার
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর সদর উপজেলার সোনাপুর বাসস্ট্যান্ডে ট্রাকচাপায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) শিক্ষার্থী অজয় মজুমদার (২২) নিহতের ঘটনায় অভিযুক্ত চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় দুর্ঘটনাকবলিত ওই ট্রাকটি জব্দ করা হয়।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে বেগমগঞ্জ উপজেলার সেতুভাঙা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গ্রেফতার ট্রাকচালকের নাম মো. মামুন হোসেন (৫০)। তিনি চুয়াডাঙ্গার পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাতগাড়ী এলাকার মৃত জাবেদ আলীর ছেলে।

এর আগে দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে সহপাঠীর মৃত্যুর ঘটনায় সোনাপুর জিরো পয়েন্টে বিক্ষোভ করেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা সহপাঠী মো. মামুন হোসেনের মৃত্যুর প্রতিবাদ এবং জড়িতদের দ্রুত বিচার দাবি করে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’সহ বিভিন্ন স্লোগান দেন।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় সড়ক আইনে মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে সোনাপুর বাসস্ট্যান্ডে বাস থেকে নামার সঙ্গে সঙ্গে ট্রাকচাপায় নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী অজয়ের মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাইজদী শহরের গুডহিল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অজয় মজুমদার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ ব্যাচের ইনফরমেশন সায়েন্স ও লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র এবং সুবর্ণচর উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের বাদল চন্দ্র মজুমদারের ছেলে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন