লঞ্চ-বাসে হাফ ভাড়ার দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান ধর্মঘট
jugantor
লঞ্চ-বাসে হাফ ভাড়ার দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান ধর্মঘট

  বরিশাল ব্যুরো  

০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৩১:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নৌপথসহ সব গণপরিবহণে শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক হাফ ভাড়া নিশ্চিত ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে বরিশালে তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার বেলা ১১টায় বরিশাল জেলা প্রশাসক কার্যালয় ঘেরাও করে এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে তারা। এর আগে নগরীর অশ্বিনী কুমার হলের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে জড় হন শিক্ষার্থীরা।

বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বিক্ষোভ করে তারা। এরপর জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয় এবং জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে আজকের মতো কর্মসূচি সমাপ্ত করেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী আলিসা মুনতাজ বলেন, বাস ও লঞ্চে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বরিশালে জোর করে ফুল ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। এটা বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি বরিশালে যে থ্রি হুইলারগুলো চলে সেগুলোতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১০ টাকার মধ্যে ভাড়া রাখতে হবে। তা না হলে আমাদের আন্দোলন চলবে। জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছি, তিনি ব্যতবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা হয়নি।

লঞ্চ-বাসে হাফ ভাড়ার দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান ধর্মঘট

 বরিশাল ব্যুরো 
০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নৌপথসহ সব গণপরিবহণে শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক হাফ ভাড়া নিশ্চিত ও নিরাপদ সড়কের  দাবিতে বরিশালে তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার বেলা ১১টায় বরিশাল জেলা প্রশাসক কার্যালয় ঘেরাও করে এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে তারা। এর আগে নগরীর অশ্বিনী কুমার হলের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে জড় হন শিক্ষার্থীরা।

বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বিক্ষোভ করে তারা। এরপর জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয় এবং জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে আজকের মতো কর্মসূচি সমাপ্ত করেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী আলিসা মুনতাজ বলেন, বাস ও লঞ্চে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বরিশালে জোর করে ফুল ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। এটা বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি বরিশালে যে থ্রি হুইলারগুলো চলে সেগুলোতে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১০ টাকার মধ্যে ভাড়া রাখতে হবে। তা না হলে আমাদের আন্দোলন চলবে। জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছি, তিনি ব্যতবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা হয়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন