জুতার মালা পরিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল
jugantor
জুতার মালা পরিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল

  বাগেরহাট প্রতিনিধি  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:২৯:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

গৃহবধূকে নির্যাতন

অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগ তুলে প্রবাসীর স্ত্রীর গলায় জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার চুনখোলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার কাওছার চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হলে সবার নজরে আসে। ঘটনার পর থেকে লোকলজ্জায় গা ঢাকা দিয়েছেন ওই নারী ও তার পরিবারের সদস্যরা।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে উপজেলার চুনখোলা ইউনিয়নের সিংগাতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর বুধবার দুপুরে মোল্লাহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওয়াহিদ হোসেন বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেন। ওই দিনই সহকারী কমিশনার (ভূমি) আনিন্দ্য মণ্ডল ও উপজেলা নারীবিষয়ক কর্মকর্তা রুনিয়া আক্তার ঘটনাস্থলে যান। তবে তারা গিয়ে ওই নারীকে এলাকায় পাননি।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার সকালে চুনখোলা ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য কাওছার চৌধুরীসহ বেশ কিছু লোকজন ওই প্রবাসীর স্ত্রীর বাসায় যায়। তারা জুতার মালা পরিয়ে তাকে মারধর করতে থাকে। ওই সময়ে কিছু লোক এ ঘটনার ভিডিও ধারণ করে।

তবে চুনখোলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার কাওছার চৌধুরী ওই নারীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন ও হেনস্তার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ওই প্রবাসীর স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় অনৈতিক ও অসামাজিক কার্যক্রম করে আসছিল। সোমবার রাতে স্থানীয়রা এক লোকের সঙ্গে অসামাজিক অবস্থায় তাকে ধরে ফেলে। লোকজন পরে তাকে বিষয়টি জানালে ওই মেম্বার সেখানে যান। এলাকাবাসীই ওই নারীকে মারধর করেছে বলে তিনি দাবি করেন।

মোল্লাহাট থানার ওসি সোমেন দাশ বলেন, বিষয়টি শোনার পর থেকেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলা প্রশাসন থেকে ও দুজন কর্মকর্তা সেখানে গিয়েছিল। তবে ওই নারীকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

জুতার মালা পরিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল

 বাগেরহাট প্রতিনিধি 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:২৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গৃহবধূকে নির্যাতন
ছবি: যুগান্তর

অনৈতিক কার্যকলাপের অভিযোগ তুলে প্রবাসীর স্ত্রীর গলায় জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার চুনখোলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার কাওছার চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হলে সবার নজরে আসে। ঘটনার পর থেকে লোকলজ্জায় গা ঢাকা দিয়েছেন ওই নারী ও তার পরিবারের সদস্যরা।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে উপজেলার চুনখোলা ইউনিয়নের সিংগাতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর বুধবার দুপুরে মোল্লাহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওয়াহিদ হোসেন বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেন। ওই দিনই সহকারী কমিশনার (ভূমি) আনিন্দ্য মণ্ডল ও উপজেলা নারীবিষয়ক কর্মকর্তা রুনিয়া আক্তার ঘটনাস্থলে যান। তবে তারা গিয়ে ওই নারীকে এলাকায় পাননি।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার সকালে চুনখোলা ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য কাওছার চৌধুরীসহ বেশ কিছু লোকজন ওই প্রবাসীর স্ত্রীর বাসায় যায়। তারা জুতার মালা পরিয়ে তাকে মারধর করতে থাকে। ওই সময়ে কিছু লোক এ ঘটনার ভিডিও ধারণ করে।

তবে চুনখোলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার কাওছার চৌধুরী ওই নারীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন ও হেনস্তার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।  
 
এ বিষয়ে তিনি বলেন, ওই প্রবাসীর স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় অনৈতিক ও অসামাজিক কার্যক্রম করে আসছিল। সোমবার রাতে স্থানীয়রা এক লোকের সঙ্গে অসামাজিক অবস্থায় তাকে ধরে ফেলে। লোকজন পরে তাকে বিষয়টি জানালে ওই মেম্বার সেখানে যান। এলাকাবাসীই ওই নারীকে মারধর করেছে বলে তিনি দাবি করেন।

মোল্লাহাট থানার ওসি সোমেন দাশ বলেন, বিষয়টি শোনার পর থেকেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলা প্রশাসন থেকে ও দুজন কর্মকর্তা সেখানে গিয়েছিল। তবে ওই নারীকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন