ভোটযুদ্ধে স্বামী-স্ত্রী, একইসঙ্গে প্রচারণা
jugantor
ভোটযুদ্ধে স্বামী-স্ত্রী, একইসঙ্গে প্রচারণা

  হারিছ আলী, গোলাপগঞ্জ (সিলেট)  

০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৩৩:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটের গোলাপগঞ্জে চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে উপজেলার সদর ইউনিয়নে স্বামী-স্ত্রী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। স্বামী সাধারণ সদস্য ও স্ত্রী সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে লড়ছেন। তারা প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন একইসঙ্গে। ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। তারা ভোট প্রার্থনার পাশাপাশি দিচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি।

জানা যায়, এ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন এমএ কাদির। তিনি ওয়ার্ডকে পরিচ্ছন্ন ওয়ার্ড গড়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন ভোটারদের। তার স্ত্রী দিলারা আক্তার মাইক প্রতীক নিয়ে লড়ছেন ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডে। এর আগে দুইবার ছিলেন তিনি মহিলা মেম্বার। নিজেকে সৎ, যোগ্য, নির্ভীক ও সমাজকর্মী স্লোগান নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা।

স্বামী-স্ত্রী দুইজনই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঘুরছেন ভোটারদের কাছে। চাচ্ছেন ভোট। দিচ্ছেন ওয়ার্ডের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। স্বামী-স্ত্রী নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ফলে ওয়ার্ডে সৃষ্টি হয়েছে দারুণ কৌতূহল।

মেম্বার প্রার্থী এমএ কাদির যুগান্তরকে জানান, আমার স্ত্রী এর আগে দুইবার মহিলা মেম্বার ছিলেন। এবারো এলাকার জনগণ তাকে নির্বাচিত করবে। আমি দীর্ঘদিন থেকে এলাকার লোকজনদের সুখে-দুঃখে ছিলাম। ইনশাআল্লাহ ওযার্ডবাসী আমাকেও নির্বাচিত করবেন।

ভোটযুদ্ধে স্বামী-স্ত্রী, একইসঙ্গে প্রচারণা

 হারিছ আলী, গোলাপগঞ্জ (সিলেট) 
০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিলেটের গোলাপগঞ্জে চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে উপজেলার সদর ইউনিয়নে স্বামী-স্ত্রী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। স্বামী সাধারণ সদস্য ও স্ত্রী সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে লড়ছেন। তারা প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন একইসঙ্গে। ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। তারা ভোট প্রার্থনার পাশাপাশি দিচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি।

জানা যায়, এ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন এমএ কাদির। তিনি ওয়ার্ডকে পরিচ্ছন্ন ওয়ার্ড গড়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন ভোটারদের। তার স্ত্রী দিলারা আক্তার মাইক প্রতীক নিয়ে লড়ছেন ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডে। এর আগে দুইবার ছিলেন তিনি মহিলা মেম্বার। নিজেকে সৎ, যোগ্য, নির্ভীক ও সমাজকর্মী স্লোগান নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা।

স্বামী-স্ত্রী দুইজনই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঘুরছেন ভোটারদের কাছে। চাচ্ছেন ভোট। দিচ্ছেন ওয়ার্ডের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। স্বামী-স্ত্রী নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ফলে ওয়ার্ডে সৃষ্টি হয়েছে দারুণ কৌতূহল।

মেম্বার প্রার্থী এমএ কাদির যুগান্তরকে জানান, আমার স্ত্রী এর আগে দুইবার মহিলা মেম্বার ছিলেন। এবারো এলাকার জনগণ তাকে নির্বাচিত করবে। আমি দীর্ঘদিন থেকে এলাকার লোকজনদের সুখে-দুঃখে ছিলাম। ইনশাআল্লাহ ওযার্ডবাসী আমাকেও নির্বাচিত করবেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন