আমাকে পরাজিত করতে সব বিপক্ষগুলো এক হয়ে গেছে: আইভী
jugantor
আমাকে পরাজিত করতে সব বিপক্ষগুলো এক হয়ে গেছে: আইভী

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:৪৮:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

সেলিনা হায়াৎ আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, আমাকে পরাজিত করতে সব বিপক্ষ এক হয়ে গেছে। এখন সেই পক্ষটা ঘরের হতে পারে, বাইরেরও হতে পারে। তারা সব মিলে গিয়েছে, কীভাবে আমাকে পরাজিত করা যায়। কীভাবে একটা বিশৃংখলা তৈরি করে ভোটটাকে ঝামেলায় ফেলা যায়। কারণ সবাই জানে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।

শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর ফতুল্লার দেওভোগে নিজ বাসায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আইভী বলেন, এখানে নির্বাচনটা হচ্ছে আইভী ভার্সেস অনেক কিছু। সহিংসতা ঘটাতে অনেকপক্ষই এক হতে পারে।

তিনি বলেন, আমার প্রতিটি নির্বাচনই চ্যালেঞ্জিং ছিল। বিগত কোনো নির্বাচনই চ্যালেঞ্জবিহীন ছিল না। এই নির্বাচনও চ্যালেঞ্জিং বিভিন্ন কারণে।

তৈমুর আলম খন্দকার ভোটে সহিংসতা-সংঘাতের আশঙ্কার কথা বলেছেন, আপনিও সেই শঙ্কা করছেন কিনা এমন প্রশ্নে আইভী বলেন, 'আমি সবসময় শান্তির পক্ষে। আমি মনে করি না যে, সে রকম কিছু হবে আমার তরফ থেকে। আমার ওই ধরনের কোনো বাহিনী নাই। আমি কোনো দিন সহিংসতা করিও নাই।'

আইভীর দাবি, ভোটে সহিংসতা হলে তারই ক্ষতি হবে। ‘আমার ভোটাররা আসতে পারবে না। আমি যদি বলি— আমার প্রতিপক্ষরা তাই চাচ্ছে (সহিংসতা)। আমার যেসব জায়গায় ভোট ব্যাংক আছে, বেশি জমজমাট হয়তো কেউ শত্রুতা করে বাধা দিতে আসতে পারে। আমি প্রশাসনের কাছে বরাবরই বলে আসছি— ভোটের পরিবেশ যেন পরিচ্ছন্ন থাকে। আমার নারী ভোটাররা যেন আসতে পারে। আমি জানি এ ভোটগুলো আমার। ’

আমাকে পরাজিত করতে সব বিপক্ষগুলো এক হয়ে গেছে: আইভী

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৪ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সেলিনা হায়াৎ আইভী
সেলিনা হায়াৎ আইভী। ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, আমাকে পরাজিত করতে সব বিপক্ষ এক হয়ে গেছে। এখন সেই পক্ষটা ঘরের হতে পারে, বাইরেরও হতে পারে। তারা সব মিলে গিয়েছে, কীভাবে আমাকে পরাজিত করা যায়। কীভাবে একটা বিশৃংখলা তৈরি করে ভোটটাকে ঝামেলায় ফেলা যায়। কারণ সবাই জানে আমার বিজয় সুনিশ্চিত।

শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর ফতুল্লার দেওভোগে নিজ বাসায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আইভী বলেন, এখানে নির্বাচনটা হচ্ছে আইভী ভার্সেস অনেক কিছু। সহিংসতা ঘটাতে অনেকপক্ষই এক হতে পারে। 

তিনি বলেন, আমার প্রতিটি নির্বাচনই চ্যালেঞ্জিং ছিল। বিগত কোনো নির্বাচনই চ্যালেঞ্জবিহীন ছিল না।  এই নির্বাচনও চ্যালেঞ্জিং বিভিন্ন কারণে।

তৈমুর আলম খন্দকার ভোটে সহিংসতা-সংঘাতের আশঙ্কার কথা বলেছেন, আপনিও সেই শঙ্কা করছেন কিনা এমন প্রশ্নে আইভী বলেন, 'আমি সবসময় শান্তির পক্ষে। আমি মনে করি না যে, সে রকম কিছু হবে আমার তরফ থেকে। আমার ওই ধরনের কোনো বাহিনী নাই। আমি কোনো দিন সহিংসতা করিও নাই।' 
 
আইভীর দাবি, ভোটে সহিংসতা হলে তারই ক্ষতি হবে।  ‘আমার ভোটাররা আসতে পারবে না। আমি যদি বলি— আমার প্রতিপক্ষরা তাই চাচ্ছে (সহিংসতা)।  আমার যেসব জায়গায় ভোট ব্যাংক আছে, বেশি জমজমাট হয়তো কেউ শত্রুতা করে বাধা দিতে আসতে পারে। আমি প্রশাসনের কাছে বরাবরই বলে আসছি— ভোটের পরিবেশ যেন পরিচ্ছন্ন থাকে। আমার নারী ভোটাররা যেন আসতে পারে। আমি জানি এ ভোটগুলো আমার। ’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : নাসিক নির্বাচন ২০২২

১৭ জানুয়ারি, ২০২২
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন