অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে অব্যাহতি চান ওসি প্রদীপ
jugantor
অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে অব্যাহতি চান ওসি প্রদীপ

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

১৭ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৫৩:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে অব্যাহতি চান ওসি প্রদীপ

দুর্নীতি ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থকে অব্যাহতি চেয়ে উচ্চ আদালতে আবেদন করেছেন এ মামলার আসামি টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া প্রদীপ কুমার দাশ। আর এ কারণে তার বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে বিচারাধীন এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়নি।

সোমবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতে এ মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ শুরুর কথা ছিল। আসামিপক্ষে উচ্চ আদালতে আবেদনের সার্টিফিকেট জমা দেওয়ায় বিচারিক আদালত আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি এ মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ পুনর্নির্ধারণ করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট মাহমুদুল হক। তিনি যুগান্তরকে বলেন, সোমবার ছিল অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার বিচার শুরু তথা সাক্ষ্য গ্রহণের ধার্য তারিখ।

কিন্তু আসামিপক্ষের আইনজীবী আদালতকে জানিয়েছেন- অভিযোগ গঠনের বিরুদ্ধে মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়ে আসামি উচ্চ আদালতে আবেদন করেছেন। এ সংক্রান্ত একটি ল' ইয়ার সনদ জমা দিয়েছেন। হাইকোর্টে এটা শুনানির জন্য অপেক্ষমাণ আছে। এজন্য সাক্ষ্যগ্রহণ পেছানোর আবেদন করেন আসামিপক্ষ। আদালত হাইকোর্টের আদেশ আনার জন্য ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় দিয়েছেন। এর মধ্যে হাইকোর্টের আদেশ আনতে না পারলে ওইদিন থেকেই সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়ে যাবে। এতে আর বাধা থাকবে না।

২০২০ সালের ২৩ আগস্ট দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২ এর তৎকালীন সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন বাদী হয়ে প্রদীপের অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেন। মামলায় প্রদীপের সঙ্গে তার স্ত্রী চুমকিকেও আসামি করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার জ্ঞাত-আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, সম্পদের তথ্য গোপন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত ২০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিনের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত প্রদীপ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের করা অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলাটির এজাহারে উল্লেখিত সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দেন।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এরপর টেকনাফ থানার তৎকালীন ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় ওই বছরের ৬ আগস্ট থেকে কারাগারে আছেন প্রদীপ কুমার দাশ। কক্সবাজারের আদালতে ওই মামলার বিচার কার্যক্রম শেষে ৩১ জানুয়ারি রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারিত রয়েছে।

অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে অব্যাহতি চান ওসি প্রদীপ

 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে অব্যাহতি চান ওসি প্রদীপ
ফাইল ছবি

দুর্নীতি ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থকে অব্যাহতি চেয়ে উচ্চ আদালতে আবেদন করেছেন এ মামলার আসামি টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া প্রদীপ কুমার দাশ। আর এ কারণে তার বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে বিচারাধীন এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়নি।

সোমবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতে এ মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ শুরুর কথা ছিল। আসামিপক্ষে উচ্চ আদালতে আবেদনের সার্টিফিকেট জমা দেওয়ায় বিচারিক আদালত আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি এ মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণের তারিখ পুনর্নির্ধারণ করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট  মাহমুদুল হক। তিনি যুগান্তরকে বলেন, সোমবার ছিল অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার বিচার শুরু তথা সাক্ষ্য গ্রহণের ধার্য তারিখ।

কিন্তু আসামিপক্ষের আইনজীবী আদালতকে জানিয়েছেন- অভিযোগ গঠনের বিরুদ্ধে মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়ে আসামি উচ্চ আদালতে আবেদন করেছেন। এ সংক্রান্ত একটি ল' ইয়ার সনদ জমা দিয়েছেন। হাইকোর্টে এটা শুনানির জন্য অপেক্ষমাণ আছে। এজন্য সাক্ষ্যগ্রহণ পেছানোর আবেদন করেন আসামিপক্ষ। আদালত হাইকোর্টের আদেশ আনার জন্য ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় দিয়েছেন। এর মধ্যে হাইকোর্টের আদেশ আনতে না পারলে ওইদিন থেকেই সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়ে যাবে। এতে আর বাধা থাকবে না।

২০২০ সালের ২৩ আগস্ট দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২ এর তৎকালীন সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন বাদী হয়ে প্রদীপের অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেন। মামলায় প্রদীপের সঙ্গে তার স্ত্রী চুমকিকেও আসামি করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার জ্ঞাত-আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, সম্পদের তথ্য গোপন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত ২০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিনের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত  প্রদীপ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের করা অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলাটির এজাহারে উল্লেখিত সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দেন।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এরপর টেকনাফ থানার তৎকালীন ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় ওই বছরের ৬ আগস্ট থেকে কারাগারে আছেন প্রদীপ কুমার দাশ। কক্সবাজারের আদালতে ওই মামলার বিচার কার্যক্রম শেষে ৩১ জানুয়ারি রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারিত রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন