শাবিতে সরকারের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল খোঁজখবর নিচ্ছে: পরিকল্পনামন্ত্রী
jugantor
শাবিতে সরকারের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল খোঁজখবর নিচ্ছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

  সিলেট ব্যুরো  

২০ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৫০:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলন প্রসঙ্গে বলেছেন, ইতোমধ্যে আমাদের সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে সমাধানের জন্য প্রতিনিধি দল পাঠানো হয়েছে। তারা খোঁজখবর নিচ্ছে। তাছাড়া ওই আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীও বিষয়টি সমাধানে খুবই আন্তরিক। সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সবার সঙ্গে আলোচনা করে একটা সময় দিয়ে সমাধান করতে পারবেন বলে আমার মনে হয়।

বৃহস্পতিবার সিলেট নগরীর পাঠানটুলা এলাকায় একটি মাদ্রাসার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের এমন তথ্য দেন।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ বয়সে তাদের একটু উত্তেজনা থাকতেই পারে। একটু সময় দিয়ে, বুঝিয়ে, তাদের সঙ্গে কাজ করে সব সমাধান করতে হবে। কোনো হঠকারী বিষয় যেন তাদের ওপর চাপিয়ে না দেওয়া হয়। ধৈর্যের মাধ্যমে মোকাবিলা করতে হবে। শাবির ঘটনায় যেন আগুনে ঘি না ঢালা হয়।

তিনি বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) যে ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য আমি খুবই দুঃখিত। শিক্ষার্থীরা আমাদের সন্তান। তাদের ছেড়ে যেতে আমরা পারি না। তাদের মঙ্গল আমরা চাই। সুতরাং এ ব্যাপারে মুখোমুখি না হয়ে বসে আলোচনা করে সমাধান করা উচিত।

মন্ত্রী জানান, প্রতিক্রিয়াশীল দল সব সময় আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কিছু হলে আঙুল দেবে। তারা তো বাংলাদেশকে নিজের দেশ মনে করে না। তাদের ধারণা, বাংলাদেশ থেকে অন্য দেশ আরও উত্তম। কেউ কেউ অন্য দেশকে স্বর্গ মনে করে। প্রতিক্রিয়াশীল ও আধা প্রতিক্রিয়াশীল সুবিধাবাদী কিছু চক্র আছে, যারা নানাভাবে ঘোলাটে পরিবেশ সৃষ্টি করে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজতেছে। তারা সুযোগ নেবে, এটাই রাজনীতির নিয়ম। তবে আমি উন্নয়নে বিশ্বাসী। উন্নয়ন আমার শখ ও অভিলাষ। প্রতিক্রিয়াশীলদের মোকাবিলা করার ক্ষমতা আওয়ামী লীগের রয়েছে।

শাবিতে সরকারের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধি দল খোঁজখবর নিচ্ছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

 সিলেট ব্যুরো 
২০ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলন প্রসঙ্গে বলেছেন, ইতোমধ্যে আমাদের সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে সমাধানের জন্য প্রতিনিধি দল পাঠানো হয়েছে। তারা খোঁজখবর নিচ্ছে। তাছাড়া ওই আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীও বিষয়টি সমাধানে খুবই আন্তরিক। সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সবার সঙ্গে আলোচনা করে একটা সময় দিয়ে সমাধান করতে পারবেন বলে আমার মনে হয়।

বৃহস্পতিবার সিলেট নগরীর পাঠানটুলা এলাকায় একটি মাদ্রাসার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের এমন তথ্য দেন।  

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ বয়সে তাদের একটু উত্তেজনা থাকতেই পারে। একটু সময় দিয়ে, বুঝিয়ে, তাদের সঙ্গে কাজ করে সব সমাধান করতে হবে। কোনো হঠকারী বিষয় যেন তাদের ওপর চাপিয়ে না দেওয়া হয়। ধৈর্যের মাধ্যমে মোকাবিলা করতে হবে। শাবির ঘটনায় যেন আগুনে ঘি না ঢালা হয়।

তিনি বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) যে ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য আমি খুবই দুঃখিত। শিক্ষার্থীরা আমাদের সন্তান। তাদের ছেড়ে যেতে আমরা পারি না। তাদের মঙ্গল আমরা চাই। সুতরাং এ ব্যাপারে মুখোমুখি না হয়ে বসে আলোচনা করে সমাধান করা উচিত।

মন্ত্রী জানান, প্রতিক্রিয়াশীল দল সব সময় আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কিছু হলে আঙুল দেবে। তারা তো বাংলাদেশকে নিজের দেশ মনে করে না। তাদের ধারণা, বাংলাদেশ থেকে অন্য দেশ আরও উত্তম। কেউ কেউ অন্য দেশকে স্বর্গ মনে করে। প্রতিক্রিয়াশীল ও আধা প্রতিক্রিয়াশীল সুবিধাবাদী কিছু চক্র আছে, যারা নানাভাবে ঘোলাটে পরিবেশ সৃষ্টি করে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজতেছে। তারা সুযোগ নেবে, এটাই রাজনীতির নিয়ম। তবে আমি উন্নয়নে বিশ্বাসী। উন্নয়ন আমার শখ ও অভিলাষ। প্রতিক্রিয়াশীলদের মোকাবিলা করার ক্ষমতা আওয়ামী লীগের রয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন