যৌতুকের এক লাখ টাকার জন্য স্ত্রীর কব্জি কাটলেন স্বামী
jugantor
যৌতুকের এক লাখ টাকার জন্য স্ত্রীর কব্জি কাটলেন স্বামী

  ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২০ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৫১:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় যৌতুকের এক লাখ টাকা না পেয়ে রোকেয়া বেগম নামে এক গৃহবধূর হাতের কব্জি কেটে দিয়েছে তার পাষণ্ড স্বামী রফিক।

গত ১৫ জানুয়ারি রাত ৭টায় ফতুল্লার ভূঁইসড় এলাকায় রিয়াজ উদ্দিন বাজারের রুবেল মিয়ার বাড়ীর তৃতীয় তলার ফ্ল্যাটে এমন ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসায় ব্যস্ত থাকায় ৫দিন পর আহত গৃহবধূর ভাই রুবেল বৃহস্পতিবার রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারী রুবেল জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম থানার দেবীদ্বার এলাকায়। দেড় বছর পূর্বে একই জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানার উত্তর তোতাভূমি এলাকার মনতাজ মিয়ার ছেলে মো. রফিকের (৩১) সঙ্গে তার বড় বোন রোকেয়ার (২৭) বিয়ে হয়।

বিয়ের পর রফিক ব্যবসা করার জন্য রোকেয়ার কাছে ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। এতে বাবার বাড়ি থেকে এক লাখ টাকা রফিককে এনে দেয় রোকেয়া। আরো এক লাখ টাকার জন্য প্রায়ই রোকেয়াকে মানুষিক ও শারীরিক নির্যাতন করতো রফিক। পাঁচ মাস পূর্বে মারধর করে রোকেয়াকে গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

এরপর যৌতুকের টাকা দেওয়ার আশ্বাস দিলেও রোকেয়াকে এক মাস আগে বাড়ি থেকে ফতুল্লায় নিয়ে আসে রফিক। পরে যৌতুকের সেই টাকা দিতে না পারায় ১৫ জানুয়ারি রাত ৭টার দিকে রফিক বাসায় এসে রোকেয়াকে মারধর করতে থাকে। একপর্যায়ে হাত-পা বেঁধে ছুরি দিয়ে ডান হাতের কব্জি কেটে দেয়।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম জানান, আহত গৃহবধূর ছোট ভাইয়ের অভিযোগে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। পাষণ্ড স্বামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যৌতুকের এক লাখ টাকার জন্য স্ত্রীর কব্জি কাটলেন স্বামী

 ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২০ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় যৌতুকের এক লাখ টাকা না পেয়ে রোকেয়া বেগম নামে এক গৃহবধূর হাতের কব্জি কেটে দিয়েছে তার পাষণ্ড স্বামী রফিক। 

গত ১৫ জানুয়ারি রাত ৭টায় ফতুল্লার ভূঁইসড় এলাকায় রিয়াজ উদ্দিন বাজারের রুবেল মিয়ার বাড়ীর তৃতীয় তলার ফ্ল্যাটে এমন ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসায় ব্যস্ত থাকায় ৫দিন পর আহত গৃহবধূর ভাই রুবেল বৃহস্পতিবার রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারী রুবেল জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম থানার দেবীদ্বার এলাকায়। দেড় বছর পূর্বে একই জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানার উত্তর তোতাভূমি এলাকার মনতাজ মিয়ার ছেলে মো. রফিকের (৩১) সঙ্গে তার বড় বোন রোকেয়ার (২৭) বিয়ে হয়।
 
বিয়ের পর রফিক ব্যবসা করার জন্য রোকেয়ার কাছে ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। এতে বাবার বাড়ি থেকে এক লাখ টাকা রফিককে এনে দেয় রোকেয়া। আরো এক লাখ টাকার জন্য প্রায়ই রোকেয়াকে মানুষিক ও শারীরিক নির্যাতন করতো রফিক। পাঁচ মাস পূর্বে মারধর করে রোকেয়াকে গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। 

এরপর যৌতুকের টাকা দেওয়ার আশ্বাস দিলেও রোকেয়াকে এক মাস আগে বাড়ি থেকে ফতুল্লায় নিয়ে আসে রফিক। পরে যৌতুকের সেই টাকা দিতে না পারায় ১৫ জানুয়ারি রাত ৭টার দিকে রফিক বাসায় এসে রোকেয়াকে মারধর করতে থাকে। একপর্যায়ে হাত-পা বেঁধে ছুরি দিয়ে ডান হাতের কব্জি কেটে দেয়।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তরিকুল ইসলাম জানান, আহত গৃহবধূর ছোট ভাইয়ের অভিযোগে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। পাষণ্ড স্বামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন