ঘন কুয়াশায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে
jugantor
ঘন কুয়াশায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে

  বরগুনা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি  

২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১০:২০:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সড়ক দুর্ঘটনা

বরগুনায় সদর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে পড়ে ১৫ যাত্রী আহত হয়েছেন। এর মধ্যে গুরুতর আহত হয়েছেন ১২ জন।

রোববার সকাল ৬টায় সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের ঢাকা-বরগুনা আঞ্চলিক মহাসড়কে গলাচিপা বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে বরগুনার উদ্দেশে ছেড়ে আসে সোনারতরী পরিবহণের একটি যাত্রীবাহী বাস। বাসটি ঢাকা-বরগুনা রুটের গলাচিপা নামক স্থানে পৌঁছলে ঘন কুয়াশার কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে উল্টে যায়। এতে বাসে থাকা ১৭ যাত্রীর মধ্যে ১৫ জনই আহত হন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ১২ জন।

আহতদের উদ্ধার করে বরগুনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। গুরুতর আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কবির হোসেন বলেন, দুর্ঘটনার পর পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। তবে তারা যথাসময়ে আসতে পরেনি। তাই স্থানীয়রাই দুর্ঘটনা কবলিত বাসটি থেকে আটকে পড়া আহত যাত্রীদের উদ্ধারে কাজ করে। সবাইকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

বরগুনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক জাহাঙ্গীর কবির বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা। বাসে থাকা ১২ যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুরুতরদের বরিশাল শেবাচিমে পাঠানো হয়েছে। বাসটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

ঘন কুয়াশায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে

 বরগুনা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি 
২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১০:২০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সড়ক দুর্ঘটনা
ছবি: যুগান্তর

বরগুনায় সদর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস উল্টে খাদে পড়ে ১৫ যাত্রী আহত হয়েছেন। এর মধ্যে গুরুতর আহত হয়েছেন ১২ জন।

রোববার সকাল ৬টায় সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের ঢাকা-বরগুনা আঞ্চলিক মহাসড়কে গলাচিপা বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে বরগুনার উদ্দেশে ছেড়ে আসে সোনারতরী পরিবহণের একটি যাত্রীবাহী বাস। বাসটি ঢাকা-বরগুনা রুটের গলাচিপা নামক স্থানে পৌঁছলে ঘন কুয়াশার কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে উল্টে যায়। এতে বাসে থাকা ১৭ যাত্রীর মধ্যে ১৫ জনই আহত হন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ১২ জন।

আহতদের উদ্ধার করে বরগুনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। গুরুতর আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কবির হোসেন বলেন, দুর্ঘটনার পর পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। তবে তারা যথাসময়ে আসতে পরেনি। তাই স্থানীয়রাই দুর্ঘটনা কবলিত বাসটি থেকে আটকে পড়া আহত যাত্রীদের উদ্ধারে কাজ করে। সবাইকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

বরগুনা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক জাহাঙ্গীর কবির বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা। বাসে থাকা ১২ যাত্রী আহত হয়েছেন। তাদের বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুরুতরদের বরিশাল শেবাচিমে পাঠানো হয়েছে। বাসটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন