দারাজের দুই কর্মকর্তাকে খুঁজছে পুলিশ
jugantor
দারাজের দুই কর্মকর্তাকে খুঁজছে পুলিশ

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি  

২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৮:৫৬:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতারণা

অনলাইনভিত্তিক পণ্য বিক্রয় ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেডের নেত্রকোনা হাব অফিসের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলা হয়েছে। ওই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ২ কোটি ৭৯ লাখ ৯৬ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযুক্তরা হলেন, নেত্রকোনা হাব অফিসের ইনচার্জ আবু নাঈম মোহাম্মদ তানীম এবং স্টোর এজেন্ট আ ক ম আজিম উস-শান।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) মো. রাশেদুজ্জামান বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে তাদের বিরুদ্ধে নেত্রকোনা মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, অভিযুক্ত তানীম ও আজিম প্রায় দুই বছর ধরে দারাজের নেত্রকোনা হাব অফিসে চাকরি করছেন। বিভিন্ন সময়ে তারা নিজেরাই ক্রেতা সেজে দারাজ অ্যাপসের মাধ্যমে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ১ হাজার ৫শ দামি মোবাইল সেটসহ বেশকিছু দামি পণ্যের অর্ডার করেন। পরে আবার ওই পণ্যগুলো নিজেরাই গ্রহণ করে ডেলিভারি দেখান। কিন্তু কোম্পানিতে কোনো টাকা পাঠাননি। বারবার তাগাদা করেও টাকা না পাওয়ায় এবং তাদের টালবাহানায় প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সন্দেহ হয়।

এরপর অনুসন্ধান চালিয়ে জানতে পারেন, হাব অফিসের ইনচার্জ তানীম এবং স্টোর এজেন্ট আজিম এসব পণ্য বিক্রি বাবদ প্রতারণার মাধ্যমে ২ কোটি ১৫ লাখ ১৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন। এছাড়া হাব অফিসে মজুদ থাকা আরও ৬৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকাও গায়েব করেছেন তারা।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মো. রাশেদুজ্জামান বলেন, অভিযুক্তরা গত ১ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারির মধ্যে এসব টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা নেত্রকোনা মডেল থানার এসআই নাজমুল হুদা বলেন, আমরা মামলাটির তদন্ত করছি। পাশাপাশি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছি। তারা দুইজনই পলাতক রয়েছেন।

নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ মামলার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

দারাজের দুই কর্মকর্তাকে খুঁজছে পুলিশ

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি 
২৩ জানুয়ারি ২০২২, ০৬:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রতারণা
প্রতীকী ছবি

অনলাইনভিত্তিক পণ্য বিক্রয় ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেডের নেত্রকোনা হাব অফিসের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলা হয়েছে। ওই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ২ কোটি ৭৯ লাখ ৯৬ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযুক্তরা হলেন, নেত্রকোনা হাব অফিসের ইনচার্জ আবু নাঈম মোহাম্মদ তানীম এবং স্টোর এজেন্ট আ ক ম আজিম উস-শান।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) মো. রাশেদুজ্জামান বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে তাদের বিরুদ্ধে নেত্রকোনা মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, অভিযুক্ত তানীম ও আজিম প্রায় দুই বছর ধরে দারাজের নেত্রকোনা হাব অফিসে চাকরি করছেন। বিভিন্ন সময়ে তারা নিজেরাই ক্রেতা সেজে দারাজ অ্যাপসের মাধ্যমে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ১ হাজার ৫শ দামি মোবাইল সেটসহ বেশকিছু দামি পণ্যের অর্ডার করেন। পরে আবার ওই পণ্যগুলো নিজেরাই গ্রহণ করে ডেলিভারি দেখান। কিন্তু কোম্পানিতে কোনো টাকা পাঠাননি। বারবার তাগাদা করেও টাকা না পাওয়ায় এবং তাদের টালবাহানায় প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সন্দেহ হয়।

এরপর অনুসন্ধান চালিয়ে জানতে পারেন, হাব অফিসের ইনচার্জ তানীম এবং স্টোর এজেন্ট আজিম এসব পণ্য বিক্রি বাবদ প্রতারণার মাধ্যমে ২ কোটি ১৫ লাখ ১৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন। এছাড়া হাব অফিসে মজুদ থাকা আরও ৬৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকাও গায়েব করেছেন তারা।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মো. রাশেদুজ্জামান বলেন, অভিযুক্তরা গত ১ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারির মধ্যে এসব টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা নেত্রকোনা মডেল থানার এসআই নাজমুল হুদা বলেন, আমরা মামলাটির তদন্ত করছি। পাশাপাশি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছি। তারা দুইজনই পলাতক রয়েছেন।

নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ মামলার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন