দিনভর বৈঠক শেষে শাবি শিক্ষকদের চার দফা দাবি
jugantor
দিনভর বৈঠক শেষে শাবি শিক্ষকদের চার দফা দাবি

  সিলেট ব্যুরো  

২৩ জানুয়ারি ২০২২, ২২:০০:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ভিসির পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের অচলাবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বৈঠক করছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকরা। রোববার বেলা আড়াইটা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম ভবনে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

দীর্ঘ বৈঠক শেষে রাত সোয়া ৮টায় শিক্ষকদের পক্ষে ৪ দফা দাবি তুলে ধরেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক তুলসী কুমার দাস।

চার দফা দাবির মধ্যে রয়েছে— প্রথমত: শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ওপর বর্বরোচিত পুলিশি হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। অবিলম্বে সরকার কর্তৃক নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে দায়ীদের চিহ্নিত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

দ্বিতীয়ত: অনশনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর জন্য যা যা করা দরকার তা অনতিবিলম্বে করতে হবে। এ ব্যাপারে সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন তারা।

তৃতীয়ত: উপাচার্যের পদত্যাগের বিষয়টি সরকারের এখতিয়ারভুক্ত। এক্ষেত্রে অতিদ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

চতুর্থত: শিক্ষার্থীদের প্রতি কোনোরকম সহিংসতায় সম্পৃক্ত না হওয়ার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানানো।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সভাপতি অধ্যাপক তুলসী কুমার দাস বলেন, শিক্ষার্থীরা মনে করছেন তাদের দাবি যৌক্তিক, তাই তারা আন্দোলন করছেন।

দিনভর বৈঠক শেষে শাবি শিক্ষকদের চার দফা দাবি

 সিলেট ব্যুরো 
২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১০:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভিসির পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের অচলাবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বৈঠক করছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকরা। রোববার বেলা আড়াইটা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম ভবনে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
 
দীর্ঘ বৈঠক শেষে রাত সোয়া ৮টায় শিক্ষকদের পক্ষে ৪ দফা দাবি তুলে ধরেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক তুলসী কুমার দাস।

চার দফা দাবির মধ্যে রয়েছে— প্রথমত: শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ওপর বর্বরোচিত পুলিশি হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। অবিলম্বে সরকার কর্তৃক নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে দায়ীদের চিহ্নিত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

দ্বিতীয়ত: অনশনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর জন্য যা যা করা দরকার তা অনতিবিলম্বে করতে হবে। এ ব্যাপারে সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন তারা।

তৃতীয়ত: উপাচার্যের পদত্যাগের বিষয়টি সরকারের এখতিয়ারভুক্ত। এক্ষেত্রে অতিদ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

চতুর্থত: শিক্ষার্থীদের প্রতি কোনোরকম সহিংসতায় সম্পৃক্ত না হওয়ার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানানো।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সভাপতি অধ্যাপক তুলসী কুমার দাস বলেন, শিক্ষার্থীরা মনে করছেন তাদের দাবি যৌক্তিক, তাই তারা আন্দোলন করছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন