শপথ শেষে চার ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার
jugantor
শপথ শেষে চার ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

  রাঙামাটি প্রতিনিধি  

২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০১:০৭:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

রাঙামাটির নবনির্বাচিত চার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে শপথ শেষে ফেরার পথে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

তারা হলেন- সদর উপজেলার কুতুকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান কানন চাকমা, নানিয়ারচর উপজেলার ঘিলাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান অমল কান্তি চাকমা, বুড়িঘাট ইউপি চেয়ারম্যান প্রমোদ খীসা ও সাবেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান সুপন চাকমা।

নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সংস্কারবাদী দলের নেতা অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা হত্যা মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জানা যায়, ২০১৮ সালের ৩ মে নিজ বাসভবন থেকে মোটরসাইকেলে করে অফিসে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের গুলিতে শক্তিমান চাকমা নিহত হন। মামলায় ওই চার ইউপি চেয়ারম্যানকে আসামি করা হয়। দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকার পর জামিনে থাকা অবস্থায় ২০২১ সালের ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে চারজনই স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছছের হোসেন বলেন, গ্রেফতার চার ইউপি চেয়ারম্যানকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তারা জামিন আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

শপথ শেষে চার ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

 রাঙামাটি প্রতিনিধি 
২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০১:০৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাঙামাটির নবনির্বাচিত চার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে শপথ শেষে ফেরার পথে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

তারা হলেন- সদর উপজেলার কুতুকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান কানন চাকমা, নানিয়ারচর উপজেলার ঘিলাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান অমল কান্তি চাকমা, বুড়িঘাট ইউপি চেয়ারম্যান প্রমোদ খীসা ও সাবেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যান সুপন চাকমা।

নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) সংস্কারবাদী দলের নেতা অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা হত্যা মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জানা যায়, ২০১৮ সালের ৩ মে নিজ বাসভবন থেকে মোটরসাইকেলে করে অফিসে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের গুলিতে শক্তিমান চাকমা নিহত হন। মামলায় ওই চার ইউপি চেয়ারম্যানকে আসামি করা হয়। দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকার পর জামিনে থাকা অবস্থায় ২০২১ সালের ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে চারজনই স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছছের হোসেন বলেন, গ্রেফতার চার ইউপি চেয়ারম্যানকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তারা জামিন আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন