ফেল করা এক প্রতিষ্ঠানের ৪১ শিক্ষার্থীর সবাই পাশ
jugantor
ফেল করা এক প্রতিষ্ঠানের ৪১ শিক্ষার্থীর সবাই পাশ

  কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  

২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০১:১৮:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার আলাউদ্দিন আহমেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখার বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের ৪১ জন শিক্ষার্থীর এসএসসির পুনঃনিরীক্ষণ ফল প্রকাশে শতভাগ উত্তীর্ণ হয়েছে।

পুনঃনিরীক্ষণ ফল প্রকাশের পর অভিভাবকমহল ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক যুগান্তরের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসাদ উদ্দিন জানান, ভোকেশনাল শাখার বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের প্রাকটিক্যাল নাম্বার মেইল করে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাঠানো হলেও যে কোনো জটিলতায় হয়তো তাদের কাছে পৌঁছেনি। তবে তারা প্রাকটিক্যালের হার্ড কপি জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু ৩০ ডিসেম্বর এসএসসির ফল প্রকাশে তাদের বিদ্যালয়ের তিনটি ট্রেডের মধ্যে দুটি ট্রেডের রেজাল্ট আসলেও, বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের ৪১ জন শিক্ষার্থীর কারোর রেজাল্ট না আসায় ভোকেশনালের শিক্ষক হারুন অর রশিদকে বোর্ডে পাঠান এবং সেখান থেকে আশ্বাস দেয়া হয় বিবেচনা করার।

উল্লেখ্য, ৩০ ডিসেম্বর এসএসসির ফল প্রকাশের পর অভিভাবক আজিমুল বাকী, আব্দুস ছাত্তার, আজাদ মৃধাসহ একাধিক ব্যক্তি জানতে পারেন আলাউদ্দিন আহমেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের মোট ৪১ জন শিক্ষার্থীর সবার অকৃতকার্য হওয়ার বিষয়টি। প্রথমে তারা বিষয়টি বুঝে উঠতে না পারলেও পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখার অন্য দুটি ট্রেডের রেজাল্ট ভালো শুধু একটি ট্রেডের সব শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।

ফেল করা এক প্রতিষ্ঠানের ৪১ শিক্ষার্থীর সবাই পাশ

 কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 
২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০১:১৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার আলাউদ্দিন আহমেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখার বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের ৪১ জন শিক্ষার্থীর এসএসসির পুনঃনিরীক্ষণ ফল প্রকাশে শতভাগ উত্তীর্ণ হয়েছে।

পুনঃনিরীক্ষণ ফল প্রকাশের পর অভিভাবকমহল ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক যুগান্তরের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসাদ উদ্দিন জানান, ভোকেশনাল শাখার বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের প্রাকটিক্যাল নাম্বার মেইল করে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে পাঠানো হলেও যে কোনো জটিলতায় হয়তো তাদের কাছে পৌঁছেনি। তবে তারা প্রাকটিক্যালের হার্ড কপি জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু ৩০ ডিসেম্বর এসএসসির ফল প্রকাশে তাদের বিদ্যালয়ের তিনটি ট্রেডের মধ্যে দুটি ট্রেডের রেজাল্ট আসলেও, বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের ৪১ জন শিক্ষার্থীর কারোর রেজাল্ট না আসায় ভোকেশনালের শিক্ষক হারুন অর রশিদকে বোর্ডে পাঠান এবং সেখান থেকে আশ্বাস দেয়া হয় বিবেচনা করার।

উল্লেখ্য, ৩০ ডিসেম্বর এসএসসির ফল প্রকাশের পর অভিভাবক আজিমুল বাকী, আব্দুস ছাত্তার, আজাদ মৃধাসহ একাধিক ব্যক্তি জানতে পারেন আলাউদ্দিন আহমেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের মোট ৪১ জন শিক্ষার্থীর সবার অকৃতকার্য হওয়ার বিষয়টি। প্রথমে তারা বিষয়টি বুঝে উঠতে না পারলেও পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখার অন্য দুটি ট্রেডের রেজাল্ট ভালো শুধু একটি ট্রেডের সব শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন