ভোটকেন্দ্রে শাজাহান খানের ছেলের আসা-যাওয়া নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০
jugantor
ভোটকেন্দ্রে শাজাহান খানের ছেলের আসা-যাওয়া নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:১১:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সংঘর্ষ

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে সাবেক নৌমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শাজাহান খানের ছেলে আসিফ খানের একটি ভোটকেন্দ্রের ভেতরে যাওয়া আসাকে কেন্দ্র করে বাগবিতণ্ডার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সেখানে দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এতে ১০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ১০৪নং নয়াকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে ।

এদিকে এ ঘটনায় প্রিসাইডিং অফিসারের নির্দেশে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে র‌্যাব, দাঙ্গা পুলিশ, ডিবিসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি সামাল দেন।

জানা যায়, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে ১০৪নং নয়াকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এমপি শাজাহান খানের ছেলে আসিফ খান তার লোকজন নিয়ে নৌকা প্রতীক রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরীর পক্ষে ভোটকেন্দ্রে যাওয়া আসা করেন।

এটিকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ আনারস প্রতীক মো. মহাসিন মিয়ার সমর্থক মিজানুর রহমানের সঙ্গে বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। পরে প্রিসাইডিং অফিসার আ. হাকিমের নির্দেশে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হন। মারাত্মক আহত সুমন শেখ ও এনামুল হককে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং হারুন চৌধুরী, রিপন শেখ ও সাগর হোসেন উজির স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেন।

এ ব্যাপারে আসিফ খান জানান, আমি পর্যবেক্ষক কার্ড নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করেছিলাম।

আনারস প্রতীক মো. মহাসিন মিয়ার সমর্থক মিজানুর রহমান জানান, আসিফ খান তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ভোটকেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করে জালভোট দেওয়ার পাঁয়তারা করছিলেন। আমি বাধা দিলে বাগবিতণ্ডা হয়।

রাজৈর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আনিসুজ্জামান জানান, জেলা প্রশাসকসহ আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ছাড়া পরিস্থিতি সামাল দিতে একজন ম্যাজিস্ট্রেটসহ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ভোটকেন্দ্রে শাজাহান খানের ছেলের আসা-যাওয়া নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
২৭ জানুয়ারি ২০২২, ০১:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সংঘর্ষ
ছবি: যুগান্তর

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে সাবেক নৌমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শাজাহান খানের ছেলে আসিফ খানের একটি ভোটকেন্দ্রের ভেতরে যাওয়া আসাকে কেন্দ্র করে বাগবিতণ্ডার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সেখানে দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এতে ১০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ১০৪নং নয়াকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে ।

এদিকে এ ঘটনায় প্রিসাইডিং অফিসারের নির্দেশে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে র‌্যাব, দাঙ্গা পুলিশ, ডিবিসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি সামাল দেন।

জানা যায়, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে ১০৪নং নয়াকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এমপি শাজাহান খানের ছেলে আসিফ খান তার লোকজন নিয়ে নৌকা প্রতীক রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরীর পক্ষে ভোটকেন্দ্রে যাওয়া আসা করেন।

এটিকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ আনারস প্রতীক মো. মহাসিন মিয়ার সমর্থক মিজানুর রহমানের সঙ্গে বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে দুপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। পরে প্রিসাইডিং অফিসার আ. হাকিমের নির্দেশে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হন। মারাত্মক আহত সুমন শেখ ও এনামুল হককে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং হারুন চৌধুরী, রিপন শেখ ও সাগর হোসেন উজির স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেন।

এ ব্যাপারে আসিফ খান জানান, আমি পর্যবেক্ষক কার্ড নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করেছিলাম।

আনারস প্রতীক মো. মহাসিন মিয়ার সমর্থক মিজানুর রহমান জানান, আসিফ খান তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ভোটকেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করে জালভোট দেওয়ার পাঁয়তারা করছিলেন। আমি বাধা দিলে বাগবিতণ্ডা হয়।
 
রাজৈর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আনিসুজ্জামান জানান, জেলা প্রশাসকসহ আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ছাড়া পরিস্থিতি সামাল দিতে একজন ম্যাজিস্ট্রেটসহ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন