আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর
jugantor
আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর

  বরিশাল ব্যুরো  

২৭ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৩৫:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবারর দুপুরে উলানিয়ার কালীগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী সেন্টু মাঝি বলেন, তারেক সরদারের ২শ লোক রামদা ও লাঠিসোটাসহ কালীগঞ্জ বাজারে প্রবেশ করলে লোকজন ভয়ে দৌড়াদৌড়ি শুরু করেন। তারা মিলন চৌধুরীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেছে। আমার দোকানের ফল লুটসহ আমাকে মারধর করা হয়েছে।

দক্ষিণ উলানিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মিলন চৌধুরী জানান, দুটি জোড়া হত্যা মামলার আসামি তারেক সরদারের নেতৃত্বে তার অনুসারীরা বৃহস্পতিবার সকালে ভোলা থেকে ট্রলারে উলানিয়ায় প্রবেশ করে। ফেরার পথে কালীগঞ্জ বাজারে আমার নির্বাচনী কার্যালয় এবং সমর্থক মানিক মাঝির বসতঘর ও সেন্টু মাঝির ফলের দোকান ভাংচুর করেছে তারা।

অভিযুক্ত তারেক সর্দারের মামা হাবিবুর রহমান লিটন বলেন, তারেক সরদার হামলা করেনি, তারেকের ওপর হামলা করেছে মিলন চৌধুরীর লোকজন। এখন মিথ্যা রটাচ্ছে সাংবাদিকদের কাছে। তারেক অনেক দিন পর এলাকায় এসেছে, তাই প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়েছে তার লোকজন।

মেহেন্দিগঞ্জ থানার এসআই গোলাম মোস্তফা বলেন, দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। কারো নির্বাচনী কার্যালয় বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুরের খবর আমার কাছে নেই। অভিযোগ পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, উত্তর ও দক্ষিণ উলানিয়ার নির্বাচনের দিন নির্ধারিত ছিল ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর। দক্ষিণ উলানিয়ায় নৌকার প্রার্থী মিলন চৌধুরী ও বিদ্রোহী প্রার্থী তারেক সরদারের মা রুমা সরদার। অপরদিকে উত্তর উলানিয়ায় নৌকার প্রার্থী জামাল হোসেন মোল্লা ও বিদ্রোহী প্রার্থী মিল্টন চৌধুরী। দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বে একাধিক সংঘর্ষের কারণে ৬ ডিসেম্বর নির্বাচন স্থগিত করা হয়।

২০২১ সালের ১০ এপ্রিল দক্ষিণ উলানিয়ায় সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়, আবার উত্তর উলানিয়ায় ২০ মে বিয়েবাড়িতে সংঘর্ষে নিহত হয় আরও দুইজন। দক্ষিণ ও উত্তর উলানিয়ার দুই বিদ্রোহী প্রার্থী বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনাথের অনুসারী।

আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর

 বরিশাল ব্যুরো 
২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবারর দুপুরে উলানিয়ার কালীগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী সেন্টু মাঝি বলেন, তারেক সরদারের ২শ লোক রামদা ও লাঠিসোটাসহ কালীগঞ্জ বাজারে প্রবেশ করলে লোকজন ভয়ে দৌড়াদৌড়ি শুরু করেন। তারা মিলন চৌধুরীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেছে। আমার দোকানের ফল লুটসহ আমাকে মারধর করা হয়েছে।

দক্ষিণ উলানিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মিলন চৌধুরী জানান, দুটি জোড়া হত্যা মামলার আসামি তারেক সরদারের নেতৃত্বে তার অনুসারীরা বৃহস্পতিবার সকালে ভোলা থেকে ট্রলারে উলানিয়ায় প্রবেশ করে। ফেরার পথে কালীগঞ্জ বাজারে আমার নির্বাচনী কার্যালয় এবং সমর্থক মানিক মাঝির বসতঘর ও সেন্টু মাঝির ফলের দোকান ভাংচুর করেছে তারা।

অভিযুক্ত তারেক সর্দারের মামা হাবিবুর রহমান লিটন বলেন, তারেক সরদার হামলা করেনি, তারেকের ওপর হামলা করেছে মিলন চৌধুরীর লোকজন। এখন মিথ্যা রটাচ্ছে সাংবাদিকদের কাছে। তারেক অনেক দিন পর এলাকায় এসেছে, তাই প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়েছে তার লোকজন।

মেহেন্দিগঞ্জ থানার এসআই গোলাম মোস্তফা বলেন, দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। কারো নির্বাচনী কার্যালয় বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুরের খবর আমার কাছে নেই। অভিযোগ পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, উত্তর ও দক্ষিণ উলানিয়ার নির্বাচনের দিন নির্ধারিত ছিল ২০২০ সালের ১০ ডিসেম্বর। দক্ষিণ উলানিয়ায় নৌকার প্রার্থী মিলন চৌধুরী ও বিদ্রোহী প্রার্থী তারেক সরদারের মা রুমা সরদার। অপরদিকে উত্তর উলানিয়ায় নৌকার প্রার্থী জামাল হোসেন মোল্লা ও বিদ্রোহী প্রার্থী মিল্টন চৌধুরী। দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বে একাধিক সংঘর্ষের কারণে ৬ ডিসেম্বর নির্বাচন স্থগিত করা হয়।

২০২১ সালের ১০ এপ্রিল দক্ষিণ উলানিয়ায় সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়, আবার উত্তর উলানিয়ায় ২০ মে বিয়েবাড়িতে সংঘর্ষে নিহত হয় আরও দুইজন। দক্ষিণ ও উত্তর উলানিয়ার দুই বিদ্রোহী প্রার্থী বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনাথের অনুসারী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন