রাজৈর উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন শাহিন চৌধুরী
jugantor
রাজৈর উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন শাহিন চৌধুরী

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

২৮ জানুয়ারি ২০২২, ০০:৪২:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে ৩২ হাজার ৭৬৪ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের মো. মহাসিন মিয়াকে পরাজিত করেন।

মোট ৬৪ কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী পেয়েছেন ৬০ হাজার ৫৭৯ ভোট এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের মো. মহাসিন মিয়া পেয়েছেন ২৭ হাজার ৮১৫ ভোট।

মাদারীপুরের নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান জানান, উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়নের ৬৪টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৮৪ হাজার ২১০ ভোট।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ১৩ জুলাই উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ মোতালেব মিয়া মৃত্যুবরণ করলে পদটি শূন্য হয়।

রাজৈর উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন শাহিন চৌধুরী

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৪২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে ৩২ হাজার ৭৬৪ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের মো. মহাসিন মিয়াকে পরাজিত করেন।

মোট ৬৪ কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের রেজাউল করিম শাহিন চৌধুরী পেয়েছেন ৬০ হাজার ৫৭৯ ভোট এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের মো. মহাসিন মিয়া পেয়েছেন ২৭ হাজার ৮১৫ ভোট।

মাদারীপুরের নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান জানান, উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়নের ৬৪টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৮৪ হাজার ২১০ ভোট।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ১৩ জুলাই উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ মোতালেব মিয়া মৃত্যুবরণ করলে পদটি শূন্য হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন