মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের ছদ্মবেশ!

প্রকাশ : ২৫ মে ২০১৮, ২২:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি

মাদকবিরোধী অভিযানে ছদ্মবেশে পাবনার চাটমোহর থানার এসআই সইবুর রহমান ও এএসআই মোস্তাফিজুর রহমান। ছবি: যুগান্তর

মাদকবিরোধী চলমান অভিযানে ছদ্মবেশ ধারণ করেছে পুলিশ। কখনও ভ্যানচালক, কখনও মাদকের ক্রেতা আবার কখনও বা মাদকসেবী- এমন ছদ্মবেশে গত এক সপ্তাহ ধরে পাবনার চাটমোহরে নারীসহ বেশকিছু মাদক ব্যবসায়ী ও সেবী পুলিশের বিশেষ অভিযানে আটক হয়েছে।

ভেঙে দেয়া হয়েছে বেশকিছু মাদকের আস্তানা। উদ্ধার করা হয়েছে ইয়াবা ট্যাবলেট ও গাঁজা। পুলিশের এমন সাঁড়াশি অভিযানে মাদকসেবীদের চলছে দুর্দিন।

এছাড়া উপজেলার মাদকপল্লী হিসেবে খ্যাত কুবিরদিয়াড় এলাকাকে মাদকমুক্ত করা হয়েছে। স্বস্তি ফিরেছে কুবিরদিয়ার গ্রামে। কোণঠাসা হয়ে পড়েছে মাদক ব্যবসায়ী ও সেবীরা।

মোড়ে মোড়ে বসেছে পুলিশের চেকপোস্ট। চলছে তল্লাশি। পুলিশের এমন অভিযান অব্যাহত থাকুক এমনই দাবি উপজেলাবাসীর। 

থানা সূত্রে জানা গেছে, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চাটমোহর সার্কেল) তাপস কুমার পাল ও পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে থানা পুলিশের অভিযানে গত এক সপ্তাহে মোট ২৮ জন মাদক ব্যবসায়ী ও সেবীকে আটক করা হয়েছে। মামলা হয়েছে ১১টি।

এর মধ্যে গত ১৫ মে রাতে পুলিশ ভ্যানচালকের ছদ্মবেশ ধরে উপজেলার ছাইকোলা বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে মজিবর নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে।

তার কাছ থেকে ২৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এরপর কুবিরদিয়ার এলাকা থেকে বেশকিছু ইয়াবা ট্যাবলেটসহ কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী খোদেজা বেগম, রিনা খাতুন, পৌর শহর থেকে বরখাস্তকৃত ভূমি কর্মকর্তা মাদক সম্রাট ইবাদুর রশীদ এবং হান্ডিয়াল এলাকার রাশেদুলকে আটক করে পুলিশ। 

এছাড়া চলমান অভিযানের কারণে বেশকিছু মাদক ব্যবসায়ী ও সেবী গাঢাকা দিয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সকালে বেশকিছু মোটরসাইকেল নিয়ে পৌর শহরসহ উপজেলা প্রত্যন্ত অঞ্চলে মহড়া দেয় পুলিশ। শুধু তাই নয়, মাদক স্পটগুলো ধ্বংস করে দিয়েছে। পুলিশের এমন অভিযানে স্থানীয়রা দারুণ খুশি।  

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মাদকপল্লী হিসেবে খ্যাত কুবিরদিয়ার গ্রামের স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি যুগান্তরকে জানান, কুবিরদিয়ার গ্রামে বাড়ি পরিচয় দিতে লজ্জা লাগত। ছেলে বা মেয়ের বিয়ে দিতে গিয়েও গ্রামের নাম শুনে বিয়ে ভেঙে যেত। কিন্তু কয়েক দিনের পুলিশের অভিযানে আর কোনো মাদক ব্যবসায়ী নেই। এমন অভিযান সারা বছর থাকুক এমনটাই আশা তাদের।

জানতে চাইলে এএসপি (চাটমোহর সার্কেল) তাপস কুমার পাল যুগান্তরকে বলেন, ‘সারা দেশের মতো চাটমোহরেও পুলিশ মাদকের বিরুদ্ধে তৎপর রয়েছে। মাদকসংশ্লিষ্টতা যার বিরুদ্ধেই পাওয়া যাবে সে যত বড় মাপের মানুষ হোক তাকে ছাড় দেয়া হবে না।’

মাদকের বিরুদ্ধে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।