বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের ছাদে গাঁজার গাছ!

  গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি ২৮ মে ২০১৮, ২২:০২ | অনলাইন সংস্করণ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় দিবস হলের ছাদে গাঁজা গাছ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় দিবস হলের ছাদে গাঁজা গাছ। ছবি: যুগান্তর

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় দিবস হলের ছাদে গাঁজা গাছের সন্ধান পাওয়া গেছে।

সোমবার সকালে ওই হলের কয়েকজন আবাসিক ছাত্র হলের ছাদে গিয়ে এ গাঁজা গাছ দেখতে পেয়ে কর্তৃপক্ষকে জানান।

পরে বিজয় দিবস হলের প্রভোস্ট জুবাইদুর রহমানের নির্দেশে ছাদ থেকে গাঁজা গাছগুলোকে অপসারণ করা হয়।

এদিকে হলের ছাদে গাঁজা গাছের সন্ধান পাওয়ার খবরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে জানান, সরকার দেশকে যখন মাদকমুক্ত করতে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে-ঠিক তখন জাতির জনকের নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসের ছাদে গাঁজার চাষ করা হচ্ছে খবরটি দুর্ভাগ্যজনক। হলের মাদকাসক্ত শিক্ষার্থীরা কাজটি করতে পারে বলে তিনি ধারণা করছেন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আরও সক্রিয় হওয়ার পাশাপাশি অনুসন্ধান করে মাদকসেবীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

বিজয় দিবস হলের প্রভোস্ট জুবাইদুর রহমান বলেন, আগে এ হলের কতিপয় শিক্ষার্থী মাদকসেবনের সঙ্গে জড়িত ছিল। বর্তমানে হলটি মাদকমুক্ত। গাঁজার পড়ে থাকা বীজ থেকে বৃষ্টির পানি পেয়ে গাছটি অঙ্কুরিত হয়েছে বলে তিনি মনে করেন।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোহাম্মাদ আশিকুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, গাঁজা গাছের বিষয়ে হলের প্রভোস্টকে অবগত করে দেয়া হবে এবং সবাইকে সচেতনতার জায়গা থেকে গাছগুলো উপড়ে ফেলতে বলেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের চেষ্টায়ই ক্যাম্পাসকে মাদকমুক্ত করা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

প্রসঙ্গত, এরআগে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে মাদকমুক্ত হিসেবে ঘোষণা করে প্রশাসন। কিন্তু ছাত্রাবাসের ছাদে গাঁজা চাষের খবর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ওই ঘোষণাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter