গোপালগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতিকে মাদক ব্যবসায়ীদের হুমকি

  গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি ২৯ মে ২০১৮, ২১:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও যুগান্তরের প্রতিনিধি এসএম হুমায়ূন কবীর
জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও যুগান্তরের প্রতিনিধি এসএম হুমায়ূন কবীর। ছবি: যুগান্তর

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অফিস কক্ষে গোপালগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও যুগান্তরের প্রতিনিধি এসএম হুমায়ূন কবীরকে হত্যার হুমকি দিয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা।

ভিসির অফিস কক্ষে মাদক বিক্রেতা চক্রের গোপন বৈঠক নিয়ে জনমনে প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আসাদুজ্জামান বাবুল ও তার দুই ছেলে রনি ও জনি ২৫-৩০ জন অস্ত্রধারী ক্যাডার নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অফিস কক্ষে প্রবেশ করে।

এ সময় সন্ত্রাসী ক্যাডারদের চিৎকার করে বলতে শোনা যায় ‘সাংবাদিক হুমায়ূন’ ভিসি স্যারের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করেছে, ওর হাত কেটে নিয়ে আসব। ’

এরপর সেখানে তারা গোপন বৈঠক করেন বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে ওই দিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ওই মাদক ব্যবসায়ীর ছেলে জনির নেতৃত্বে ২০-২৫ জন ক্যাডার ৭-৮টা মোটরসাইকেলে করে শহরের পাবলিক হল মোড়ে এসে সাংবাদিক হুমায়ূন কবীরকে খোঁজাখুঁজি করে।

পরে তারা সাংবাদিকের নবীনবাগের বাড়িতে যায় এবং সেখানে তাকে না পেয়ে তার বৃদ্ধা মাকে গালিগালাজ করে। অতঃপর তারা প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির দফতরে গিয়ে সাংবাদিক হুমায়ূন কবীরের হাত কেটে নেয়া হবে বলে আস্ফালন করে।

প্রসঙ্গত, মাদক ব্যবসায়ী আসাদুজ্জামান বাবুল ও তার দুই ছেলে রনি ও জনিকে নিয়মিত ভিসির দফতরে দেখা যায়।

বিশ্বস্ত সূত্রমতে, উক্ত পিতা-পুত্রদ্বয় ভিসির দফতর থেকে মাসোহারা পেয়ে থাকেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন দফতরের একজন সহকারী পরিচালক তাদের এ মাসোহারা প্রদান করে থাকেন। ইতিমধ্যে আসাদুজ্জামান বাবুল ওই কর্মকর্তার যোগসাজশে তিনজনকে বিভিন্ন দফতরে ৩০ লাখ টাকার বিনিময়ে মাস্টার রোলে নিয়োগ দিয়েছে।

এছাড়াও এবছর ভর্তি পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণ চারজন শিক্ষার্থীকে ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে ভর্তি করেছে।

জানা গেছে, আসাদুজ্জামান বাবুল তার ছেলেদের ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি দেয়ার জন্য সব ব্যবস্থা সম্পন্ন করে রেখেছে।

সোমবারের ঘটনায় হুমায়ূন কবীর নিরাপত্তা চেয়ে গোপালগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেছেন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মো. আশিকুজ্জামান ভূঁইয়া ফোনে জানান, আসাদুজ্জামান বাবুল ও তার ছেলেসহ ২০-২৫ জনের একটি দল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভিসি অফিসে জড়ো হয়ে হট্টোগোল করেছে। তবে ভিসির কক্ষে তারা প্রবেশ করেনি বলে তিনি জানান।

এ ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, বাংলাদেশ ন্যাশনাল নিউজ ক্লাব, ঢাকা প্রেসক্লাব, নড়াইল প্রেসক্লাব, ফকিরহাট প্রেসক্লাব, মোল্লাহাট প্রেসক্লাব, রাজশাহীর চারঘাট প্রেসক্লাব ও গোপালগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাব, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, জেলার সচেতন নাগরিকরা তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযান ২০১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×