কুলাউড়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার আসামি নিহত

প্রকাশ : ৩১ মে ২০১৮, ১৩:১২ | অনলাইন সংস্করণ

  কুলাউড়া প্রতিনিধি

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ইসলাম আলী (৪৫) নামে ১৪ মামলার এক আসামি নিহত হয়েছেন। 

বৃহস্পতিবার ভোররাত ৪টার দিকে উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের পাবই গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। 

পুলিশের দাবি, নিহত ইসলাম আলী আন্তঃবিভাগীয় ডাকাত দলের সর্দার। তিনি কমলগঞ্জ উপজেলার কুমড়াকাপন গ্রামের মৃত মতছিন আলীর ছেলে। তার বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ ১৪টি মামলা রয়েছে। 

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শামীম মুসা জানান, উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়ন এলাকায় একদল ডাকাত অস্ত্রসহ ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন গোপন সংবাদ পেয়ে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ভোররাত ৪টার দিকে পাবই গ্রামের পাশে পৌঁছলে বাঁশঝাড়ের ভেতর থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ডাকাতরা গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও পাল্টা ১১ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। কিছুক্ষণ পর পরিস্থিতি শান্ত হলে রাস্তার উত্তর দিকে বাঁশঝাড়ের পাশে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজন লোক পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে স্থানীয়রা এসে তাকে ডাকাত ইসলাম আলীর বলে শনাক্ত করেন।

এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলিভর্তি এলজি পাইপগান, দুটি খালি কার্তুজ, তিনটি অব্যবহৃত কার্তুজ এবং বাঁশঝাড়ের ঝোঁপের মধ্য থেকে দুটি ডেগার, তিনটি রাম দা ও একটি সাদা প্লাস্টিকের বস্তা উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় পুলিশ সদস্য খাইরুল ইসলাম (আরআরএফ কং/২৬০), আব্দুল কুদ্দুছ মিয়া (কং/২৪৭) আহত হন। তাদের কুলাউড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এছাড়া এসআই ইয়াছিন ও আলবাব  প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

নিহত ইসলাম আলীর নামে আটটি ডাকাতি, পাঁচটি চুরি ও একটি অন্যান্য মামলাসহ মোট ১৪টি মামলা রয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউছুফ জানান, নিহত ইসলাম ডাকাতের মৃতদেহ সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে পাঠানো হয়েছে।  এসআই জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে এ ঘটনায় কুলাউড়া থানায় একটি মামলা করেছে।