গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণ করে ভাইরালের হুমকি ভাতিজার!
jugantor
গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণ করে ভাইরালের হুমকি ভাতিজার!

  বাসাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

২০ মে ২০২২, ০০:১৫:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের বাসাইলে গৃহবধূর গোসলের নগ্ন ভিডিও ধারণ করে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে ভাতিজার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী বাসাইল থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মান্দারজানি গ্রামের এক যুবক (২৮) কৌশলে তার চাচির গোসলের নগ্ন ভিডিও ধারণ করে। পরে ওই ভিডিও হৃদয় খান নামে একটি ইমো আইডি থেকে তার সৌদি প্রবাসী চাচাকে পাঠায়। দুই লাখ টাকা না দিলে ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে ভাইরাল করে দেওয়া হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়। বিষয়টি তিনি তার স্ত্রীকে জানান। পরে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে বাসাইল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সরেজমিন দেখা যায়, ভুক্তভোগী ওই নারীর গোসলখানাটি অভিযুক্তের ঘরের উত্তর পাশে অবস্থিত। ভুক্তভোগী ওই নারীর গোসলখানাটি দরজাবিহীন। নগ্ন ওই ছবিটির ফ্রেম বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ছবিটি অভিযুক্তের ঘর থেকে তোলা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে চুরিসহ নানা অপকর্মে জড়িত থাকায় এলাকায় একাধিক গ্রাম্যসালিশ হয়েছে।

ভুক্তভোগী নারী বলেন, ওই যুবক ইতোপূর্বে আমার ঘরে ঢুকে খাবারের সঙ্গে বিষ জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে আমারদের সবাইকে মেরে ফেলারও চেষ্টা করেছিল। শুধুমাত্র ভাতিজা বলে এতদিন সব অত্যাচার সহ্য করেছি। এখন ও আমার ইজ্জতের ওপর হাত দিয়েছে। আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে সৌদি প্রবাসী চাচা মোবাইল ফোনে বলেন, যে ইমো আইডি থেকে আমাকে ভিডিওটি পাঠানো হয়েছে ওই একই আইডি থেকে আমার ভাতিজার সঙ্গে ইতোপূর্বে যোগাযোগ করেছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত যুবক বলেন, আমাদের বাড়িতে পুলিশ এসেছিল। আমি পুলিশকে আমার মোবাইল ফোন দিয়ে দিয়েছি। আমার চাচির সঙ্গে এমন কাজ আমি করতে পারি না। অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেও দাবি করেন তিনি।

বাসাইল থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণ করে ভাইরালের হুমকি ভাতিজার!

 বাসাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
২০ মে ২০২২, ১২:১৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের বাসাইলে গৃহবধূর গোসলের নগ্ন ভিডিও ধারণ করে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে ভাতিজার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী বাসাইল থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মান্দারজানি গ্রামের এক যুবক (২৮) কৌশলে তার চাচির গোসলের নগ্ন ভিডিও ধারণ করে। পরে ওই ভিডিও হৃদয় খান নামে একটি ইমো আইডি থেকে তার সৌদি প্রবাসী চাচাকে পাঠায়। দুই লাখ টাকা না দিলে ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে ভাইরাল করে দেওয়া হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়। বিষয়টি তিনি তার স্ত্রীকে জানান। পরে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে বাসাইল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সরেজমিন দেখা যায়, ভুক্তভোগী ওই নারীর গোসলখানাটি অভিযুক্তের ঘরের উত্তর পাশে অবস্থিত। ভুক্তভোগী ওই নারীর গোসলখানাটি দরজাবিহীন। নগ্ন ওই ছবিটির ফ্রেম বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ছবিটি অভিযুক্তের ঘর থেকে তোলা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে চুরিসহ নানা অপকর্মে জড়িত থাকায় এলাকায় একাধিক গ্রাম্যসালিশ হয়েছে।

ভুক্তভোগী নারী বলেন, ওই যুবক ইতোপূর্বে আমার ঘরে ঢুকে খাবারের সঙ্গে বিষ জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে আমারদের সবাইকে মেরে ফেলারও চেষ্টা করেছিল। শুধুমাত্র ভাতিজা বলে এতদিন সব অত্যাচার সহ্য করেছি। এখন ও আমার ইজ্জতের ওপর হাত দিয়েছে। আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে সৌদি প্রবাসী চাচা মোবাইল ফোনে বলেন, যে ইমো আইডি থেকে আমাকে ভিডিওটি পাঠানো হয়েছে ওই একই আইডি থেকে আমার ভাতিজার সঙ্গে ইতোপূর্বে যোগাযোগ করেছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত যুবক বলেন, আমাদের বাড়িতে পুলিশ এসেছিল। আমি পুলিশকে আমার মোবাইল ফোন দিয়ে দিয়েছি। আমার চাচির সঙ্গে এমন কাজ আমি করতে পারি না। অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেও দাবি করেন তিনি।

বাসাইল থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন