প্রেমের বিয়ে মেনে না নেওয়ায় পুত্রবধূর হামলায় শাশুড়ি আহত
jugantor
প্রেমের বিয়ে মেনে না নেওয়ায় পুত্রবধূর হামলায় শাশুড়ি আহত

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

২৩ মে ২০২২, ১৪:৪৬:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরে প্রেমের বিয়ে মেনে না নেওয়ায় পুত্রবধূ ও তার বাড়ির লোকজনের হামলায় শাশুড়ি নাহার বেগম (৫০) গুরুতর জখম হয়েছেন।

রোববার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের দুধখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আহত নাহার বেগমকে প্রথমে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের দুধখালী গ্রামের চান্দু মোল্লার ছেলে ইতালি প্রবাসী মিজান মোল্লা প্রেম করে বিয়ে করেন একই এলাকার মোকলেস হাওলাদারের মেয়ে কেয়াকে। কিন্তু পারিবারিকভাবে সেই বিয়ে মেনে নিতে পারেনি মিজান মোল্লার পরিবার। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে রোববার সন্ধ্যায় পুত্রবধূ তার বাড়ির লোকজন নিয়ে মিজানের মা নাহার বেগমকে বাড়ির সামনে একা পেয়ে বেধরক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। এ ঘটনায় মাদারীপুর সদর থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

হামলার ব্যাপারে মিজানের স্ত্রী কেয়া বেগম জানান, শাশুড়ির সঙ্গে আমার ঝামেলা চলছে। শাশুড়ি আমার চুল ধরলে আমি সামান্য হাতাহাতি করেছি। তবে গুরুতর আহত হওয়ার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি।

মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে। অপরাধীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

প্রেমের বিয়ে মেনে না নেওয়ায় পুত্রবধূর হামলায় শাশুড়ি আহত

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
২৩ মে ২০২২, ০২:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুরে প্রেমের বিয়ে মেনে না নেওয়ায় পুত্রবধূ ও তার বাড়ির লোকজনের হামলায় শাশুড়ি নাহার বেগম (৫০) গুরুতর জখম হয়েছেন। 

রোববার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের দুধখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আহত নাহার বেগমকে প্রথমে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের দুধখালী গ্রামের চান্দু মোল্লার ছেলে ইতালি প্রবাসী মিজান মোল্লা প্রেম করে বিয়ে করেন একই এলাকার মোকলেস হাওলাদারের মেয়ে কেয়াকে। কিন্তু পারিবারিকভাবে সেই বিয়ে মেনে নিতে পারেনি মিজান মোল্লার পরিবার। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে রোববার সন্ধ্যায় পুত্রবধূ তার বাড়ির লোকজন নিয়ে মিজানের মা নাহার বেগমকে বাড়ির সামনে একা পেয়ে বেধরক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। এ ঘটনায় মাদারীপুর সদর থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। 

হামলার ব্যাপারে মিজানের স্ত্রী কেয়া বেগম জানান, শাশুড়ির সঙ্গে আমার ঝামেলা চলছে। শাশুড়ি আমার চুল ধরলে আমি সামান্য হাতাহাতি করেছি। তবে গুরুতর আহত হওয়ার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি।

মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে। অপরাধীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন