গাজীপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত কামুর পরিচয় নিয়ে ধূম্রজাল

  গাজীপুর প্রতিনিধি ০২ জুন ২০১৮, ২০:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর
ছবি: যুগান্তর

গাজীপুরে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ব্যক্তির পরিচয় নিয়ে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থা দুই ধরনের তথ্য দিয়েছে, যা নিয়ে একটি ধূম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যে কামু নিহত হয়েছে শুক্রবার সকালে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল তিনি টঙ্গী এরশাদনগর এলাকার ২২ মামলার আসামি কামরুল ইসলাম কামু (৩২)।

পরে খবর নিয়ে জানা গেছে, ২০১৬ সাল থেকে নিহত কামরুল ইসলাম কামু টঙ্গীর একটি ডাবল মামলার আসামি হিসেবে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

কামুর আইনজীবী মো. শহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তার জামিন না হওয়ায় দুই বছর ধরে কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে কামরুল ইসলাম কামুর স্ত্রী কাশিমপুর কারাগারে গিয়ে তার স্বামীর সঙ্গে দেখা করে এসেছেন। কাশিমপুর কারাগার-২ এর জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বণিকও বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পরে শুক্রবার বিকালে গাজীপুর গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয় নিহত ব্যক্তির নাম কামাল খান ওরফে কামু। নিহত ব্যক্তির ঠিকানা আরিচপুরে।

ওই এলাকায় খবর নিলে কামু নামে কোনো ব্যক্তির সন্ধান দিতে পারেনি স্থানীয়রা।

গাজীপুর জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের পরিদর্শক ডেরিক স্টিফেন কুইয়া সাংবাদিকদের জানান, নিহত কামুর পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়পত্র তার কাছে রয়েছে। সেখানে কামাল খান কামু, বাবা মৃত সিরাজ খান ও ঠিকানা টঙ্গীর আরিচপুর লেখা আছে। সে কালীগঞ্জের উলুখোলা নগরভেলা এলাকায় বসবাস করে। তার নামে মাদকসহ তিনটি মামলা রয়েছে।

তবে স্থানীয়রা নিহত কামুর কালিগঞ্জের উলুখোলায় বসবাসের বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি।

এছাড়াও হাসপাতাল মর্গ থেকে বলা হয়েছে শুক্রবার রাতে কামুর মা তার লাশ নিয়ে গেছে।

তবে টঙ্গীর আরিচপুর কিংবা কালিগঞ্জের উলুখোলায় এ নামে কোনো লাশ নেয়া হয়নি।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ কালীগঞ্জের উলুখোলা এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে অভিযান চালায়। পুলিশ উলুখোলা মসজিদের পাশের রাস্তা থেকে মাদক বিক্রির সময় কামুকে গ্রেফতার করে। এ সময় তার কাছ থেকে চার হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার ও একটি এলিয়ন প্রাইভেটকার জব্দ করে।

তাকে নিয়ে কালীগঞ্জ থানায় যাওয়ার পথে তার সহযোগীরা মহানগরের ভাদুন এলাকায় পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। এ সময় কামরুল গাড়ি থেকে লাফ দিয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান কামু।

গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক প্রণয় ভুষণ দাস জানান, নিহতের বুকের বাম পাশে তিনটি গুলি বিদ্ধ হওয়ার চিহ্ন রয়েছে। তিনটি গুলিই পেছন দিক দিয়ে বেরিয়ে গেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে পুলিশ নিহত কামুর লাশ তার পরিবারের সদস্যদের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : মাদকবিরোধী অভিযান ২০১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×