ঝড়ে বিধ্বস্ত মাদ্রাসা, খোলা আকাশের নিচে পাঠদান
jugantor
ঝড়ে বিধ্বস্ত মাদ্রাসা, খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

  বাউফল প্রতিনিধি  

২৪ জুন ২০২২, ০৯:৩৬:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর বাউফলে ঝড়ে বিধ্বস্ত সিংহেরাকাঠী কুরআন সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসায় এখন খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে। গত রোববার হঠাৎ ঝড়ে মাদ্রাসার একমাত্র টিনশেড একাডেমিক ভবনটি বিধ্বস্ত হয়। এর পর থেকে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে।

এর আগে বুধবার একাডেমিক ভবন নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন ওই মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ১৯৮০ সালে সিংহেরাকাঠী কুরআন সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৮৬ সালে এটি এমপিওভুক্ত হয়। বর্তমানে প্রথম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ৪৮০ শিক্ষার্থী রয়েছে এখানে।

মাদ্রাসার সুপার আবু ইউসুফ বলেন, রোববার অর্ধবার্ষিকী পরীক্ষা নেওয়ার পর দুপুরে শিক্ষার্থীরা বাড়ি চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পরই ঝড় শুরু হয়। মাদ্রাসার একমাত্র টিনশেড ভবনটি ঝড়ে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

বুধবার ওই মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী একটি নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেন। বৃহস্পতিবার মাদ্রাসা পরিদর্শনকালে দেখা যায়, খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে।

একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক বলেন, এই মাদ্রাসার পাঠদানের মান ভালো। এখানে একটি পাকা একাডেমিক ভবন প্রয়োজন। দ্রুত ভবনটি নির্মাণের জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

ঝড়ে বিধ্বস্ত মাদ্রাসা, খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

 বাউফল প্রতিনিধি 
২৪ জুন ২০২২, ০৯:৩৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর বাউফলে ঝড়ে বিধ্বস্ত সিংহেরাকাঠী কুরআন সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসায় এখন খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে। গত রোববার হঠাৎ ঝড়ে মাদ্রাসার একমাত্র টিনশেড একাডেমিক ভবনটি বিধ্বস্ত হয়। এর পর থেকে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে। 

এর আগে বুধবার একাডেমিক ভবন নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন ওই মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। 

সংশ্লিষ্টরা জানান, ১৯৮০ সালে সিংহেরাকাঠী কুরআন সুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৮৬ সালে এটি এমপিওভুক্ত হয়। বর্তমানে প্রথম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রায় ৪৮০ শিক্ষার্থী রয়েছে এখানে। 

মাদ্রাসার সুপার আবু ইউসুফ বলেন, রোববার অর্ধবার্ষিকী পরীক্ষা নেওয়ার পর দুপুরে শিক্ষার্থীরা বাড়ি চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পরই ঝড় শুরু হয়। মাদ্রাসার একমাত্র টিনশেড ভবনটি ঝড়ে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। 

বুধবার ওই মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী একটি নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেন। বৃহস্পতিবার মাদ্রাসা পরিদর্শনকালে দেখা যায়, খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে। 

একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক বলেন, এই মাদ্রাসার পাঠদানের মান ভালো। এখানে একটি পাকা একাডেমিক ভবন প্রয়োজন। দ্রুত ভবনটি নির্মাণের জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্টদের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন